আপনি যত বড় ব্যবসায়ীই হোন না কেন, আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান যতই সফল হোক না কেন, আপনার ব্যবসা মানুষের যতই জনপ্রিয় হোক না কেন, অমানবিক কোনো কাজ করলে এবং তা সবার সামনে প্রকাশ হয়ে পড়লে মানুষ আপনাকে ধিক্কার দেবেই। কেবল ধিক্কারই নয়, আপনার ব্যবসায়ও এর প্রভাব পড়ার আশংকা রয়েছে প্রচুর। আর যদি আপনার থাকে বুদ্ধিমান কিছু প্রতিদ্বন্দ্বী, তাহলে তো কথাই নেই। সুযোগের পূর্ণ সদ্ব্যবহার করে আপনার ব্যবসা থেকে যতটুকু সম্ভব ক্রেতা হাতিয়ে নিতে বিন্দুমাত্র দেরি করবে না তারা।

উপরের পরামর্শগুলো বিশ্বাস না হলে সবার জন্য রয়েছে একটি আদর্শ কাহিনী। ইন্টারনেটে ডোমেইন বা ওয়েবসাইটের ঠিকানা কেনার জন্য গোড্যাডি-কে বলা যায় সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠান। হোস্টিং-এ এদের সেবা নিয়ে অনেকের অভিযোগ থাকলেও ডোমেইন নিয়ে আজ পর্যন্ত অভিযোগ তেমন একটা শোনা যায়নি। এই গোড্যাডির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বব পারসোনস হাতিকে অমানবিকভাবে হত্যা করে হারাতে বসেছেন তার ব্যবহার বেশকিছু ক্রেতা।

জানা গেছে, কিছুদিন আগে জিম্বাবুয়েতে ছুটি কাটাতে গিয়ে তিনি বেশ কিছু হাতি শিকার করেন। এসব হাতি কেবল শিকার করেই তিনি ক্ষান্ত হননি, বরং শিকারের সম্পূর্ণ ভিডিও তুলেছেন এবং তার হাতে নিহত হাতির পাশে বীরের মতো দাঁড়িয়ে পোজও দিয়েছেন। সেখানেই সব শেষ নয়, বাড়ি ফিরে এই ভিডিও তিনি দিয়েছেন ইন্টারনেটেও। আর এতেই ঘটেছে যত বিপত্তি। তার এই অমানবিক আচরণে পেটা (পিপল ফর দি এথিক্যাল ট্রিটমেন্ট অফ এনিমেল) তাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। অবশ্য এতে তিনি যুক্তি দেখিয়েছেন যে হাতি ফসল নষ্ট করে ফেলে বলে তিনি সমস্যা সৃষ্টিকারী প্রাণী মেরে ফেলতে চেয়েছেন।

নৃশংস ভিডিওটি দেখতে পারেন নিচেঃ

এদিকে সুযোগের পুরো সদ্ব্যবহার করছে নেমচিপস ডট কম নামের আরেক ডোমেইন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান। তারা এই ঘটনায় ধিক্কার জানিয়ে একটি ব্লগ পোস্ট প্রকাশ করেছে এবং ক্ষুব্ধ গোড্যাডি ক্রেতাদের নেমচিপসে ডোমেইন ট্রান্সফার করার অফার দিয়েছে সাধারণের চেয়ে অনেক ছাড়মূল্যে। এতে করে এ পর্যন্ত বহু সংখ্যক গোড্যাডি ব্যবহারকারী তাদের ডোমেইন নেমগুলো নেমচিপসে সরিয়ে এনেছেন। নেমচিপস আরো জানিয়েছে, তারা প্রতিটি ট্রান্সফারের জন্য ১ ডলার করে সেইভ দ্যা এলিফেন্ট-এর ফান্ডে জমা দিবে।

অবশ্য এই ঘটনাকে অনেকে বাড়াবাড়ি বলেও দাবি করছেন। তারা বলছেন, হাতিগুলোকে না মারলে হাতিগুলো এলাকার মানুষের জমি তো নষ্ট করতোই, উপরন্তু মানুষের উপরও হামলা করতে পারতো। এছাড়াও জানা গেছে, হাতিটি মেরে ফেলায় পরদিন সকালে অনেক ক্ষুধার্ত আফ্রিকান হাতির মাংস খেয়ে ক্ষুধা নিবারণ করেছেন। অনেকের যুক্তি, কিছু কিছু মানুষ (পেটা) মানুষের চেয়ে প্রাণীকে বেশি গুরুত্ব দেয়।

তবে লজিক যাই হোক, ব্যবসায় ক্ষতির সম্মুখীন তিনি হয়েছেন এটা অস্বীকার করার কোনো উপায় নেই। অনলাইনে ব্যক্তিগত বিষয়াবলি প্রকাশের ক্ষেত্রে আরো সতর্ক হওয়া বোধহয় সবারই প্রয়োজন।

comments

7 কমেন্টস

  1. গোড্যাড্ডির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা যা করেছে তা অমানবিক…তবে নেমচিপও ভাল কিছু করে নাই। ব্যবসার জন্য হাতিকে এক ডলার প্রদান 😯 সম্পূর্ণটাই একটা ব্যবসায়ীক প্রকল্প। হাতিকে টাকা দিতে চাইলে নিজের পকেট থেকেই দেওয়া উচিৎ। ( আমার ডোমেইনগুলো নেমচিপে আছে।)

    • হুম, ঠিক বলছেন মাহবুব ভাই। মানুষ সুযোগ পেলে এর যেকোন ব্যবহার করতে ছাড় দেয় না, এটা তার একটি উজ্জল দৃষ্টান্ত। 🙁

    • এই ব্যবসায়িক দৃষ্টান্ত ভাই সবার মধ্যেই দেখা যায়। জাপানে ভূমিকম্প ও সুনামির পর মাইক্রোসফট ঘোষণা করেছিল তাদের একটি টুইট যতবার রিটুইট করা হবে তত ডলার জাপানের ত্রাণ ফাণ্ডে যাবে। অ্যাপলও তাদের আইটিউনস থেকে একটা অংশ জাপানে দেয়ার ঘোষণা দেয়। এগুলো ব্যবসার জগৎ ভাই।

  2. ঘটনা আসলেই মর্মাহত। নিজের আত্নতুষ্টি নিবারনের জন্য একম অমানবিক আচারন করা মোটেই উচিৎ নয়। একথাটি হয়তো বব পারসোনস ভুলে গিয়েছিলেন। যার ফলাফল স্বরুপ তিনি উপহার পেয়েছেন, ব্যবসায়ের ক্ষতি। ঢিল ছুড়লে তো পাটকেল খেতেই হবে। 😉

    ধন্যযোগ সজীব-কে বিষয়টি উপস্থাপনের জন্য। 🙂

  3. শুধু হাতি না, একটা লেপার্ডও মেরেছেন। ঐ বেপারটা তেমন একটা আলোচিত হয়নি। বেচারা ‘হিরো’ সাজতে গিয়ে উলটো ব্যবসায় নিয়ে টানাটানি 😛

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.