নিজের নাম নিয়ে অন্যের সাথে যুদ্ধ! এমন কথা সচারচর শুনা যায় না। আমার নাম শাওন, তাই বলে কি আপনার নাম “শাওন” হতে পারে না? অবশ্যই পারে। কিন্তু যে নাম নিয়ে সোস্যাল মিডিয়াতে ঝড় উঠেছে সে নামটি কি আর যেন তেন ব্যক্তির নাম? নাহ!! তিনি যে ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা “মার্ক জুকারবার্গ”। ভাবছেন কি হল এই নাম নিয়ে তাই না? চলুন শুনি… 😉

সম্প্রতি ইসরাইলের নগরী “রোতেম গুয়েজ” এ জন্মগত এক উদ্যোক্তা তার জন্মগতভাবে প্রাপ্ত পারিবারিক নামটি আইনগত ভাবে পরিবর্তন করে নতুন নাম রেখেছেন, তাও আবার যেনতেন নাম নয়, নামটি “মার্ক জুকারবার্গ”। হ্যাঁ পাঠক, যার কথা বলছি তিনি নিজের নামকে পরিবর্তন করে ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতার নামকে তার হিসাবে পরিবর্তন করেছেন গত ৭-ই ডিসেম্বর।

নতুন এ জুকারবার্গ এর ওয়েব সাইট ঠিকানা: MarkZuckerbergOfficial.com, -এ বলা হয়েছে, এই বছরের শুরুর দিকে সেই ফেসবুকে “Mark Zuckerberg” নাম দিয়ে সাইনআটপ করতে গেলেই ঘটে বিপত্তি। এমনিতেই ফেসবুক কোন সিকিউর প্রিফিক্স বা কোন ব্রান্ড দিয়ে আন অথোরাইজ ব্যক্তি নাম দিল সাথে সাথে রিফিউজ করে সেখানে “Mark Zuckerberg”। Omg !! 😛

বর্তমান জুকারবার্গ(নাম পরিবর্তনের পর) ইসরাইলে Like Store নামে একটি সোস্যাল মার্কেটিং কোম্পারীর সহ প্রতিস্ঠাতা। যা কিনা কোন কোম্পানীর বা সিলেব্রেটিদের বা অন্য কেউ চাইলে তাদের ব্রান্ড নেম পেজের লাইক(ফ্যান) সযগ্রহ করে দেন। লাইকস্টোর এর ভাষ্য মতে,

“Are you sad no one’s visiting your Facebook Page? We have a solution! Need 1,000 Likes? We’ll get them for you. Need 5,000 Likes? We’ll get them for you. Need 10,000 Likes? We’ll get them for you.”

 

গেল সেপ্টেমবরে ফেসবুক ল ফার্ম নবাগত এই জুকারবার্গ এর বিপক্ষে মামলা নিক্ষেপ করেছেন, কারন তিনি অবৈধভাবে এবং ফেসবুক সোস্যাল টার্মস এন্ড কন্ডিশন এর বিপক্ষে কায় সম্পাদন করছেন। মামলাটিতে উল্লেখ্য: নতুন জুকারবার্গ যেন তার সেই ব্রান্ড কোম্পানী বন্ধ করে এবং আর কখনও এই সোস্যাল মিডিয়াতে এসবের অপব্যবহার না করে।

জুকারবার্গ বৈধভাবে তার নামটি পরিবর্তন করেছেন গত ৭ ডিসেম্বর। নিজের ভিডিওটি দেখলেই বুঝা যায়, সেদেশের ম্যধবর্তী মন্ত্রী তার সেই নামটিকে বৈধতা দিয়ে বলেছেন, “তার ইচ্ছে ছিল পারিবারিকভাবে নামিটি পরিবর্তন করার”। এর ঠিক এক সপ্তাহ পরেই নতুন মার্ক-কে সেই লাইকস্টোর কোম্পানী এখনও বহাল রাখার কারনে ফেসবুক পূণরায় তার বিপক্ষে মামলা শীট প্রেরণ করেছন। বিবৃতিতে আরোও জানা যায়, লাইকস্টোর কোম্পানীর কর্তৃপক্ষ তাদের সহ প্রতিষ্ঠাতার নতুন এই নাম ব্যবহার করে অনেককেই ভয়ভীতিও প্রদশর্ন করে চলেছেন।

যদিও ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বৈধ্যতার জন্য অনেক কিছুই জায়ের করতে পারে। তদুপরি, এও জেনে রাখা ভাল যে “Mark Zuckerberg” যে কারো নাম হতেই পারে। আর এটা নিয়ে ঝড় তুলোটাই নিছকই ঠাট্টা বিদ্রুপ ছাড়া আর কি হতে পারে। 😉

জানা গেছে, নতুন এই জুকারবার্গ তার নামে ব্রান্ড ফেসবুক ফ্যান পেজ এবং টুইটারে তার নিজ নামের একাউন্ট করেছেন। @iMarkZuckerberg- আইডিতে প্রচার চালাচ্ছেন খুব শীঘ্রই তিনি কিছু একটা স্পালাস করবেন তার নতুন এই পরিচয়ে। ফেসবুক পেজে নতুন পরিচয় এবং একই নামে পার্সপোর্টও পাওয়া গেছে। 😉


আপনি কি মনে করেন নতুন এই জুকারবার্গ তার এই পরিচয় দেয় লক্ষকোটী মানুষকে তাক লাগিয়ে দিবে? নাকি আসল মার্ক জু এর কাছে হার মানবে সহজেই। সে কথা না হয় আমি না-ই বললাম। সময়ের অপেক্ষায় থাকি কি বলেন? আর হ্যাঁ, আপনার মতামত জানাতে ভুলবেন না।

সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন। 🙂

comments

2 কমেন্টস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.