ঠিক কেন তা বোঝা না গেলেও, স্কাইপের এবারের ডাউনটাইমের ঘটনা উল্লেখ করার সময় প্রায় সব সংবাদমাধ্যমই ‘মাইক্রোসফটের’ স্কাইপ কথাটার উপর জোর দিচ্ছে। ভাবখানা এমন, যেন মাইক্রোসফটের কব্জায় যাওয়ায়ই স্কাইপের এই দশা। ও হ্যাঁ, কী দশা সেটাই তো বলা হয়নি। সম্প্রতি বেশ লম্বা সময় ধরেই বিভিন্ন ক্লায়েন্টের স্কাইপ ব্যবহারকারীরা সেবা পাননি। জানা গেছে, এই সমস্যা ২৬শে মে সারাবিশ্বের স্কাইপ ব্যবহারকারীদের অনেকেই টের পেয়েছেন।

তবে এখনও অনেকে কল করতে বা স্কাইপে লগইন করতেই পারছেন না বলেও স্কাইপ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। এ ব্যাপারে তারা তদন্ত করছে বলেও বিশ্বব্যাপী ব্যবহারকারীদের আশ্বাস দিয়েছে। এদিকে দি নেক্সট ওয়েব জানিয়েছে, প্রথম দিকে সমস্যাটি কেবল উইন্ডোজের স্কাইপ সফটওয়্যারে দেখা গেলেও পরে বিভিন্ন জায়গায় ম্যাক ও লিনাক্সের স্কাইপ ক্লায়েন্টেও এই সমস্যা হতে দেখা গেছে যাতে করে নিশ্চিত হওয়া গেছে সমস্যা সফটওয়্যারের নয় বরং স্কাইপ সার্ভারের। তাই কেউ যদি স্কাইপে লগইন করতে বা কল করতে না পারেন, তাহলে চিন্তিত হবার কিছু নেই। সমস্যা আপনার নয়, মাইক্রোসফট স্কাইপেরই সমস্যা।

এদিকে টুইটারে ব্যবহারকারীরা ইতিমধ্যেই মাইক্রোসফটের চৌদ্দগোষ্ঠী উদ্ধারে লেগে গেছেন। জানা গেছে, অনেকেই বলছেন এবার সত্যি সত্যিই “মাইক্রোসফটের পণ্য” হিসেবে পূর্ণতা পেলো স্কাইপ।

মজার ব্যাপার হলো, এই বছরই শুরুর দিকে বেশ লম্বা সময় ধরে সার্ভিস আউটেজে ছিল স্কাইপ যার কারণে উইন্ডোজ থেকে স্কাইপ ব্যবহারকারীরা প্রায় দুইদিন স্কাইপ থেকে বিচ্ছিন্ন ছিলেন। কিন্তু এবার মাইক্রোসফটের হাতে যাওয়ামাত্রই সবাই মাইক্রোসফটকে তুলোধূনা করা শুরু করেছেন। এতে একটা বিষয় কিছুটা হলেও পরিষ্কার হচ্ছে যে, উইন্ডোজ বিশ্বের এক নম্বর অপারেটিং সিস্টেম হওয়া সত্ত্বেও অনেকেই মাইক্রোসফটকে দু’চোখে দেখতে পারে না। বিশেষ করে লিনাক্সে স্কাইপ ব্যবহারকারীদের অনেকে তো মাথায়ই হাত দিয়ে বসেছেন। এদের মধ্যে একজন মন্তব্য করেছেন, “We will continue not to get updates of Skype for Linux.” অবশ্য মাইক্রোসফট জানিয়েছে, তারা লিনাক্সের স্কাইপকে আপডেট করবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here