ভাই, আপনার পিসি র র‍্যাম কত ? আমার মনে হয়না কেউ এখন বলবেন, যে তিনি মেগাবাইটের যুগে আছেন।  তবে ১ গিগা কে কেউ হয়তো ১০২৪ মেগাবাইট বলতে পারেন। যাই হোক বরাবরের মতই পুরানো দিনের প্রযুক্তি পন্যের আয়োজনে আজকে আমি আপনাদের সামনে কিছু পুরাতন দিনের র‍্যাম নিয়ে এসেছি।

প্রথমেই বলব সিম বা সিঙ্গেল ইন লাইন মেমোরি মডিউল (SIMM) র‍্যাম :

১৯৮০ থেকে ১৯৯০ এর দিক কার কম্পিউটার গুলোতে সিম র‍্যাম ব্যবহৃত হত। দুই ধরনের সিম র‍্যাম ছিল। একটি ৩০ পিনের এবং অপরটি ৭২ পিনের।

৩০ পিনের সিম র‍্যাম, ২৫৬ কিলবাইট থেকে শুরু করে সর্বচ্চো ১৬ মেগাবাইট পর্যন্ত হত। অপর দিকে, ৭২ পিনের সিম র‍্যাম , ১ মেগা থেকে শুরু করে ১২৮ মেগাবাইট পর্যন্ত হত।

ALL SIMM

ডিম বা ডুয়েল ইন লাইন মেমোরি মডিউল (DIMM) র‍্যাম :

আমরা এখন যে সমস্ত র‍্যাম ব্যবহার করি তার সবি কিন্তু DIMM RAM. ডিম র‍্যাম, সাধারনত ১৬৮ পিন এবং ১৮৪ পিন এর হয়। ডিম র‍্যামের ব্যবহার শুরু হয়, ইন্টেলের পি-৫ বেসড পেন্টিয়াম প্রসেসর থেকে।

আরডি বা র‍্যাম বাস ইন লাইন মেমোরি মডিউল (RD/ RIMM)র‍্যামঃ

প্রথম আরডি র‍্যাম সাপোর্ট করে এমন মাদারবোর্ড বাজারে আসে ১৯৯৯ সালে। এ ধরনের র‍্যামের বাস স্পীড ছিল, ৪০০ মেগাহার্জ এবং ১৬০০ মেগাবাইট পার সেকেন্ড Bandwidth –এ।যা সে সময় কার এসডি র‍্যাম যার সর্বোচ্চ বাস স্পীড ১৩৩ মেগাহার্জের থেকেও অনেক বেশি। আরডি র‍্যামেই প্রথম বারের মতন ডাবল ডাটা রেট টেকনোলজির ব্যবহার হয়, যার ফলে ১৮৪ পিনের এই র‍্যাম টি ক্লক রেট ডাবল হয়ে যেত। এর স্ট্যান্ডার্ড নাম ছিল, পিসি – ৮০০।আরডি র‍্যাম কে সব সময় পেয়ার বা জোড়া হিসেবে ব্যবহার করতে হত।

64 MB RD

অবাক করা বিষয় হচ্ছে, কোন এক কারনে এই র‍্যাম টা বাজারে বেশি দিন চলতে পারেনি। আপনাদের কেউ যদি জানেন এর কারন টা কি, প্লিজ় জানাবেন।

এসডি বা সিঙ্ক্রোনাস ডাইনামিক র‍্যান্ডম অ্যাক্সেস মেমোরি (SD/ Synchronous Dynamic RAM):

এসডি র‍্যাম কে বলা যায় আর অন্য সব সাধারন ডাইনামিক র‍্যাম এর মতন, কিন্তু এটা সিস্টেম বাস এর সাথে সিঙ্ক্রোনাইসড হবার কারনে, এর নাম এসডি বা সিঙ্ক্রোনাস ডাইনামিক র‍্যান্ডম অ্যাক্সেস মেমোরি। ১৬৮ পিনের এই এসডি র‍্যাম, ১০০ এবং ১৩৩ মেগাহার্জ স্পীড এ কাজ করত, ১০৬৬ মেগাবাইট পার সেকেন্ড Bandwidth –এ।

ALL SD

ডিডিআর এসডি বা ডাবল ডাটা রেট সিঙ্ক্রোনাস ডাইনামিক র‍্যান্ডম অ্যাক্সেস মেমোরি (DDRSD-RAM):

নাম শুনেই কি চমকে উঠলেন নাকি ?আমরা যাকে ডিডিআর বলে জানি, তারই আসল নাম এটা। যাই হোক, ডাবল ডাটা রেট সিঙ্ক্রোনাস ডাইনামিক র‍্যান্ডম অ্যাক্সেস মেমোরি আগের সিঙ্ক্রোনাস ডাইনামিক র‍্যান্ডম অ্যাক্সেস মেমোরি বা এসডি র‍্যামের তুলনায় অনেক বেশি স্পীডে ডাটা ট্রান্সফার করতে পারত কেননা ক্লক সিগ্নাল এবং ইলেক্ট্রিক্যাল ডাটার উপরে এর কড়া নিয়ন্ত্রনের জন্য।এর কারনেই ডিডিআর র‍্যাম তার ক্লক ফ্রিকোয়েন্সির থেকে ডাবল স্পীডে ডাটা ট্রান্সফার করতে পারে।

256 MB DDR 1

পরবর্তিতে ডিডিআর ২ এবং ডিডিআর ৩, ডিডিআর ১ এর তুলনায় আরো উন্নত মানের করে তৈরি করা হয়।

ALL DDR 2

ডিডিআর ১ এর  ক্লক ফ্রিকোয়েন্সি ১০০ – ২০০ মেগাহার্জ এবং ট্রান্সফার ফ্রিকোয়েন্সি ২০০ – ৪০০ মেগাহার্জ।

ডিডিআর ২ এর  ক্লক ফ্রিকোয়েন্সি ১০০ – ২৬৬ মেগাহার্জ এবং ট্রান্সফার ফ্রিকোয়েন্সি ৪০০ – ১০৬৬ মেগাহার্জ।

ডিডিআর ৩ এর  ক্লক ফ্রিকোয়েন্সি ১০০ – ২০০ মেগাহার্জ এবং ট্রান্সফার ফ্রিকোয়েন্সি ৮০০ – ১৬০০ মেগাহার্জ।

পোস্টটি কেমন লাগল জানাতে ভুলবেন না………

comments

5 কমেন্টস

  1. ভাল লাগল। অনেক অজানা বিষয় জানাগেল।
    ধন্যবাদ

  2. ভালো লাগলো। আমি যতটুকু জানি আরডি র‍্যামের একটি বড় সীমাবদ্ধতা ছিল, জোড়ায় জোড়ায় ব্যাবহার করার পাশাপাশি বাকী স্লট গুলো ব্লক করে দিতে হত। তাই এস ডি র‍্যাম বেশী জনপ্রিয় হয়ে উঠে। আমার একটা আরডি র‍্যামের মাদার্বোর্ড ছিলো, পরে র‍্যাম পাইনি বলে পরিত্যাক্ত করে রাখতে হয়েছে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.