ভীতিকর উমিবজু

এসব প্রাণীদের সম্পর্কে বিশ্বাস করবার কোন কারণ নেই। তারা কোনকালে ছিলও না, আসবেও না। কিন্তু তাও এদের গল্প শুনতে ভালো লাগে। কারণ, আমরা গল্প ভালোবাসি। অস্তিত্ব থাকুক কিংবা নাই থাকুক, এদের সম্পর্কে জানলে নিজেদের কাছেই প্রশ্ন করি। সত্যিই? এরা আসলেও ছিল?
এদের নিয়েই সিরিজ আকারে আপনাদের জন্য আয়োজন। আজকে লেখা হল জাপানি পৌরাণিক জীব উমিবজুকে নিয়েঃ

একটি ভালো আবহাওয়া এবং একটি শান্ত সাগর, নাবিকদের কাছে এর চাইতে বেশি কিছু চাওয়ার আর নেই। কিন্তু জাপানের লোকগাথায় নাবিকরা শান্ত সাগরে তাদের জাহাজ ভাসালেই খুব ভয়ে থাকেন।

এর কারণটি হচ্ছে উমিবজু।

উমিবজু
                            উমিবজু

জাপানের লোকগাথায় রয়েছে শান্ত সাগরে নাবিকদের সবচেয়ে বড় ভয় হচ্ছে উমিবজুর ভয়। এটি কোন ধরণের সতর্কতা ছাড়াই সাগরের অতল থেকে উঠে আসে এবং জাহাজকে আক্রমণ করে টুকরো টুকরো করে ফেলে।

উমিবজু যখন জাহাজ আক্রমণ করে, তখন পুরো আকাশ কালো হয়ে যায় এবং ঘন ঘন বজ্রপাত হতে থাকে। সমুদ্রের নাবিকদের যতটা ভয় পাওয়ানো সম্ভব তার সবটুকু উমিবজু করে থাকে।

প্রাচীন জাপানি রুপকথায় রয়েছে, উমিবজুর শারীরিক গঠন মানুষের মত। এটির শরীর কালো চামড়ায় আবৃত এবং বড় বড় এক জোড়া চোখ রয়েছে। এটি জাহাজে আক্রমণ করার আগে নাবিকদের কাছে একটি পিপে চেয়ে নেয়। এই পিপে থেকে সে সমুদ্র থেকে পানি ওঠায় এবং জাহাজের ওপর ঢালতে থাকে। এর ফলে নাবিক ও মাঝিমাল্লারা সাগরে ঝাপ দিতে বাধ্য হয়।

 

সূত্রঃ Toptenz.net

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here