মোবাইলের বাজার যে এখন কতোটা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ভর্তি তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। এক সময় ডেস্কটপ ও ল্যাপটপেরই রাজত্ব থাকলেও এখন মোবাইল ও ট্যাবলেট ডিভাইস নিয়েই কোম্পানিগুলোর মধ্যে প্রতিযোগিতা সবচেয়ে বেশি হয়। এই প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে বিভিন্ন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান যেমন গুগল, ব্ল্যাকবেরি, মাইক্রোসফট, নকিয়া, অ্যাপল ইত্যাদি নতুন নতুন সুবিধা সম্বলিত হ্যান্ডসেট ও অপারেটিং সিস্টেম বাজারজাত করে থাকে। তবে মোবাইল মার্কেটে অনেকটা পিছিয়ে থাকা মাইক্রোসফট এবার আনলো স্মার্টফোনের জন্য নতুন অপারেটিং সিস্টেম যার কোডনেম ‘ম্যাংগো’।

7532.NeighborhoodHub_5F00_inPhone_5F00_L1_5F00_6D9D2C24

যারা মাইক্রোসফটের নতুন স্মার্টফোন অপারেটিং সিস্টেমের কথা শুনে তেমন একটা গুরুত্ব দিচ্ছেন না, তারা একটু নড়েচড়ে বসুন। কারণ, মাইক্রোসফটের স্টিভ বলমার জানিয়েছেন, ১৮ হাজার অ্যাপ্লিকেশন ছাড়াও ম্যাংগোতে থাকছে গুণে গুণে ৫০০টি নতুন ফিচার। হ্যাঁ, ৫টি বা ৫০টি নয়, ঝাড়া ৫০০টি নতুন ফিচার। এসব ফিচারের মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে সোশাল মিডিয়া ইন্টেগ্রেশন যার মাধ্যমে ফেসবুক ছাড়াও টুইটার ও লিংকডইন-এর সব তথ্য স্মার্টফোনেই ইমপোর্ট করা যাবে।

এছাড়াও ম্যাংগোতে থাকবে টেক্সট, ইমেইল ও চ্যাট করার উন্নততম সুবিধা। সোশাল নেটওয়ার্কে চেকইন করার সুবিধা ছাড়াও ক্যামেরায় থাকছে ফেসবুক ডিটেকশন প্রযুক্তি। সার্চ করার জন্য বিং-এর অ্যাডভান্সড সার্চ ইঞ্জিন ছাড়াও ওয়েব ব্রাউজিং করতে পারবেন মাইক্রোসফটের ‘বিউটি অফ দা ওয়েব’ ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ৯ দিয়ে।

সবমিলিয়ে খুব একটা অবাক হওয়ার মতো তেমন কোনো নতুনত্ব না থাকলেও মাইক্রোসফটের অন্ধভক্ত ছাড়া আর কেউ এই হ্যান্ডসেট কিনবেন কি না সেটাই দেখার বিষয়। কেননা, এর আগে মাইক্রোসফটের বাজারে আনা আরেকটি স্মার্টফোন পুরোপুরিই মার খেয়েছে যার ফলে মাইক্রোসফটকে ঐ ফোনের উৎপাদন ও বিক্রি দুই-ই বন্ধ করে দিতে হয়েছে। এবার মাইক্রোসফটের গাছের আম কেমন বিক্রি হয় সেটাই দেখার বিষয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here