মানুষ স্বপ্ন দেখতে ভালবাসে। কল্পনার আবছায়া জগতে মানুষ সবসময়ই খুঁজে ফেরে এক টুকরো সুখ, একটা সফলতা। আমাদের প্রত্যাশা কি খুবই বড় কিছু? তাহলে ব্যার্থ হওয়ার ভায় সর্বদা কেন আমাদেরকে তাড়িয়ে বেড়ায়? আমাদের সফলতার কারন যেমন আমরা নিজেরাই, ঠিক তেমনি আমাদের ব্যার্থতার কারনও আমরা নিজেরাই। আমরা সারাক্ষণ কি যেন একটা খুঁজে চলেছি? কি খুঁজছি? হয়তবা সফলতার চাবিকাঠি!

সঠিক সুযোগ নির্বাচন করা এবং সর্বদা প্রস্তুত থাকা

s4আমাদের জীবনটা একটা যুদ্ধক্ষেত্র। এই যুদ্ধক্ষেত্রে জয় পাওয়াটা অসম্ভব নয়, কিন্তু এজন্য প্রয়োজন উপযুক্ত রণকৌশল এবং সঠিকভাবে তার প্রয়োগ ঘটানো। মানুযের জীবনে সুযোগ বারবার আসেনা, তাই সর্বদা নিজেকে প্রস্তুত রাখতে হবে। সঠিক সুযোগটিকে নির্বাচন করাটাও একটা গুরুত্বপূর্ণ কাজ। আমাদের জীবনের প্রতিটা মূহর্তে সচেতনতার সাথে পদক্ষেপ নিয়ে এগিয়ে যেতে হয়।

ধরুন আপনি অনেক কষ্ট করে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য প্রথমবার এডমিশন টেস্ট দিলেন, কিন্তু চান্স পেলেন না। পরবর্তীবার এডমিশন টেস্টের জন্য লেখাপড়া চালিয়ে যাচ্ছেন, আপনার বন্ধুদের অনেককেই দেখছেন চাকড়ির জন্য দৌড়াদৌরি করতে। তাদের দেখাদেখি আপনিও একটা ভাল চাকড়ির জন্য আবেদন করলেন। যুক্তিটা এরকম যে যদি এবারও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে না পারেন তাহলে চাকড়ি করবেন। দেখা গেল আপনি বিশ্ববিদ্যালয়েও চান্স পেলেন আবার চাকড়িটাও হয়ে গেল। একসাথে দুটো করা সম্ভব নয় এখন কি করবেন?

আসলে দুটোর জন্যই আপনি প্রস্তুত ছিলেন, দুটো কাজের জন্যই আপনাকে মানষিকভাবে প্রস্তুতি নিতে হয়েছে, সাধনা করতে হয়েছে, অপেক্ষা করতে হয়েছে।

সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ

অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় এক সাথে একাধিক সিদ্ধান্ত মানুষকে অস্থির করে দেয়, একজন মানুষের স্বাভাবিক অগ্রগতিকে বাধাগ্রস্থ করে, এবং ঐ ব্যক্তিটি হতাশাগ্রস্থ হয়ে পরতে পারেন । এধরণের পরিস্থিতিতে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারাটাই তার জন্য বড় সফলতা। এসকল মুহর্তে মনকে স্থির রেখে, নিজেকে প্রশ্ন করুন…………..

  • s3আপনি কোন সুযোগটিকে বেশি প্রধান্য দিচ্ছেন?
  • গত এক বছরে আপনি কোন বিষয়টিকে মনে প্রাণে চেয়েছেন?
  • কোন কাজটির জন্য আপনি বেশি সাধনা করেছেন?
  • আপনার পরিবারের মতামত কি?
  • সুযোগ দুটি পাওয়ার আগে পর্যন্ত আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কি ছিল?
  • আপনি আসলে কি চাচ্ছেন?

প্রশ্ন গুলোর উত্তরগুলো থেকে নিশ্চিৎ ভাবে বলা যায়, আপনি সুযোগ দুটির মধ্যে থেকে কোনো একটিকে সঠিকভাবে নির্বাচন করতে সক্ষম হবেন। জীবনের গতিপথকে একই দিকে প্রবাহিত করুন। অন্যপথটিকে ভুলেযান। জীবন সংগ্রামের সকল পথেই কমবেশি সুযোগ থাকবে আবার প্রতিকুলতাকেও জয়করতে হবে।

s2অনেক ব্যক্তিকে বলতে দেখা যায় ইস! আমি যদি এটা না করে ঐটা করতাম তাহলে আমার আজ এই দুর্দশা হত না। আসলে আমরা সবাই কম বেশি চিন্তা করেই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে থাকি। কিন্তু সব সময় যে সঠিক সিদ্ধান্তটিই আমরা গ্রহণ করি তা নয় অনেক ক্ষেত্রেই আমাদের সিদ্ধান্ত গ্রহনের পেছনে আবেগ কাজ করে, যার ফলফল ভবিষ্যতে গিয়ে পাওয়া যায়। তাই আসুন আমরা সঠিক উপায়ে, সঠিক পদ্ধতিতে আমরা সঠিক সিদ্ধান্তটি গ্রহণ করি; আমরা সুখের স্বপ্ন রচনা করি, এবং সফলতা দিয়ে সেই স্বপ্নকে বাস্তবে প্রতিষ্ঠিত করি; একটা সুখী সুন্দর পৃথিবীর জন্য নিজেকে উৎসর্গ করি।

………………………………………………………………………………..

আজ এ পর্যন্তই। সবার জন্য শুভকামনা রইল ।

comments

7 কমেন্টস

  1. আসলে মানুষ এক সাথে একাধিক কাজ করার ক্ষমতা রাখে। শুধু তার জন্য প্রয়োজন হয় দৃঢ় মনোবল এবং ইচ্ছা শক্তি। যেমনটি আপনার উদাহরনের ছাত্রটির মত। সে ইচ্ছে করলেই দুটি বিষয়কেই সমান তালে চালায় যেতে পারে।

    আমরা মানুষ পারি না এমন কিছু কাজ পৃথিবীতে আবিস্কার হয় নাই এখনও। কিন্তু আমরা আমাদের মনোবল এবং ইচ্ছা শক্তিকে জাগাতে পারি না বিধায় আজও আমরা পেছনে পরে আছি এবং একই সময় আমাদের পাশের জাতিগুলো উন্নতির চরম শিখরে পৌছায় গেছে। তাই, এখনই আমাদের লক্ষ আমাদেরকেই ঠিক করতে হবে।

    অনেক মূল্যবান কথাগুলো আলোচনার জন্য ধন্যযোগ। 🙂

    • শাওন ভাই আপনাকেও অসংখ্য ধন্যযোগ।

      “আমরা মানুষ পারি না এমন কিছু কাজ পৃথিবীতে আবিস্কার হয় নাই এখনও। কিন্তু আমরা আমাদের মনোবল এবং ইচ্ছা শক্তিকে জাগাতে পারি না বিধায় আজও আমরা পেছনে পরে আছি এবং একই সময় আমাদের পাশের জাতিগুলো উন্নতির চরম শিখরে পৌছায় গেছে। তাই, এখনই আমাদের লক্ষ আমাদেরকেই ঠিক করতে হবে।”

      আপনার কথা গুলো বেশ ভাল লাগল ।

      কিন্তু মনে করুন আপনি একই সাথে দুটি কাজই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করলেন। এখন আপনাকে 10am- 6pm পর্যন্ত সপ্তাহে ৬ দিন অফিসে থাকতে হবে আবার আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাসের সময়ও 10am- 3pm ; তাহলে আপনি কি করবেন?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.