ওয়ার্ডপ্রেস হচ্ছে আরেকটি জনপ্রিয় এবং শক্তিশালী কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিএমএস), যা পিএইচপি এবং মাইএসকিউএল দ্বারা তৈরিকৃত ওপেন সোর্স প্রযুক্তির ব্লগিং সফটওয়্যার। ওয়ার্ডপ্রেস প্রথম পর্যায়ে একটি ফ্রি ব্লগিং প্লাটফর্ম ছিল যা পরবর্তীতে একটি ইঞ্জিন তৈরি করে এবং বিনামূল্যে তা ডাউনলোড করে যেকোনো ব্লগারকে ব্যবহারের সুবিধা দিতে শুরু করে । ওয়ার্ডপ্রেস মূলতঃ একটি ব্লগ পাবলিশিং অ্যাপলিকেশনস ও সিএমএস। সিএমএস হলো এমন একটি পদ্ধতি যা সাইট অথবা ব্লগের বিভিন্ন তথ্য ব্যবস্থাপনার একটি সক্রিয় সিস্টেম। সিএমএসের মাধ্যমে সাইট বা ব্লগের যেকোন পরিবর্তন, সংশোধন, সংযোজন বা মুছে ফেলা যাবে। সম্পূর্ণ বিনামূল্যের ওয়ার্ডপ্রেস হল সময়ে জনপ্রিয় একটি দারুন সিএমএস।

ওয়ার্ডপ্রেস একটা ওপেন সোর্স সিএমএস হলেও এটাকে পেশাগত কাজেও ব্যবহার করা যায়। অনলাইনে অনেক মার্কেটপ্লেস আছে যেখানে ওয়ার্ডপ্রেসের কাজ করে আয় করা সম্ভব। বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্লগ তৈরির সাইটের মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস। ওয়াডপ্রেসের রয়েছে দারুন সব থিম আর রয়েছে ৩ গিগাবাইট জায়গা। ওয়ার্ডপ্রেসের ম্যাধমে বিভিন্ন প্রকার ওয়েবভাষার প্রাথমিক জ্ঞান জানা থাকলে সহজেই একটি প্রোফেশনাল মানের ওয়েবসাইট তৈরি করা সম্ভব। এইচটিএমএল অথবা পিএইচপির কোড পরিবর্তন ছাড়াই করা যাবে উইজেট পরিবর্তনের কাজ। সফটওয়্যারটি ওপেনসোর্স হওয়ার কারনে এটি বিনামূল্যে ডাউনলোডও এর কোড পরিবর্তন করে আপনার পছন্দ অনুযায়ী ব্যবহার উপযোগী করা সম্ভব হয়। এছাড়াও বিনামূল্যে রয়েছে এর কয়েক হাজার থিম, প্লাগইন। কন্টেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিএমএস) হবার ফলে এর রয়েছে এতটি সুন্দর এবং সহজ নিয়ন্ত্রন ব্যবস্থা ,যা দিয়ে আপনি সহজেই যেকোন তথ্য ,ছবি, ভিডিও পরিবর্তন, পরিবর্ধন, সংযোজন বা বিয়োজন করতে পারবেন । এছাড়া বিভিন্ন ক্যাটাগরি তৈরি,ক্যাটাগরি অনুযায়ী পোস্ট,পোস্টে বিভিন্ন ট্যাগ যোগ ইত্যাদি সুবিধার পাশাপাশি এটি অনেকটাই সার্চ ইঞ্জিনবান্ধব। শুধু কম্পিউটারেই নয় বিভিন্ন ডিভাইসের মাধ্যমে ওয়ার্ডপ্রেসের কন্ট্রোল প্যানেল ব্যবহার করা যায়। এর মধ্যে রয়েছে আইফোন, আইপ্যাড, অ্যান্ড্রোয়েড ফোন, ব্ল্যাকবেরি ইত্যাদি। এটি ব্লগ লেখালেখির প্লাটফর্ম হলেও প্লাগইন ও থিম ব্যবহার করে সামাজিক সম্পর্ক, গ্যালারী, ই-কমার্স, ম্যাগাজিন, পত্রিকা, পোর্টাল, পোর্টফোলিও, ফোরাম ইত্যাদি যেকোন ধরণের সাইট তৈরী করা সম্ভব।

ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহারের জন্য PHP 4.3 বা এর উপরের সংস্করণ, MySQL 4.0 বা এর উপরের সংস্করন এবং ব্যবহৃত কম্পিউটারকে লোকাল সার্ভার এ পরিনত করতে Apache, IIS অথবা Lite speed লাগবে । ক্রসপ্লাটফরমে তৈরি করা এই সফটওয়্যার দিয়ে বিভিন্ন ভাষায় কাজ করা যায়। আমাদের দেশে ওয়ার্ডপ্রেসে বাংলাভাষায় প্রচুর ব্লগ ও ওয়েবসাইট রয়েছে । ওয়ার্ডপ্রেসের নানা উইজেট ট্যাব থেকে আপনার ইচ্ছামত সাইডবারে ড্রাগ করে ড্রপ করে ব্যবহার করা যায়। এভাবেই সাইডবার বিভিন্ন প্রয়োজনীয় উইজেটগুলো দিয়ে সাজানো সাইট দেখতেও লাগে দারুন। ওয়ার্ডপ্রেস জনপ্রিয় হবার অন্যতম কারন এর প্রচুর প্লাগিংস। প্রয়োজন মত যে কোন কিছুই অ্যাড করা যায় প্লাগিংসগুলোর মাধ্যমে। এজন্য প্রয়োজনীয় প্লাগিংসগুলো আপলোড করতে হয় হোস্টের ওয়ার্ডপ্রেস ফোল্ডারে। হোস্টের ওয়ার্ড প্রেস ফোল্ডারের wp contect>plugings ফোল্ডারের ভেতর দিলেই হয়। অবশ্য এই আপলোড প্রক্রিয়াটি ড্যাশবোর্ড থেকেও করা যায়। ড্যাশবোর্ড থেকে Install plugings ট্যাবে গিয়ে Active ক্লিক করে এক এক করে একটিভ করুন প্লাগিংস গুলো। ওয়ার্ডপ্রেসের বিস্তারিত জানা যাবে ওয়ার্ডপ্রেস ঠিকানার ওয়েবসাইটে।

 

comments

1 COMMENT

  1. এটা সত্যিই অনেক ভালো এবং উপকারী পোস্ট। ধন্যবাদ বিজ্ঞান প্রযুক্তি ডেস্ককে এমন সুন্দর ১টা পোস্ট দেয়ার জন্য

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.