নবমবারের মত অনুষ্ঠিত হচ্ছে মুক্ত বিশ্বকোষ উইকিপিডিয়া আয়োজিত সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য নিয়ে ছবি তোলার সবচেয়ে বড় প্রতিযোগিতা ‘উইকি লাভস মনুমেন্টস (ডব্লিউএলএম)’। ডব্লিউএলএম একটি আন্তর্জাতিক আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা যা প্রতিবছর সেপ্টেম্বর মাসে বিশ্বব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী দেশগুলো স্ব-স্ব স্থাপনার ছবি নিয়ে অংশগ্রহণ করে।

বাংলাদেশও এ বছর তৃতীয়বার এই প্রতিযোগিতায় দেশের প্রত্নতাত্ত্বিক ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলো নিয়ে অংশগ্রহণ করছে । এই প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের যে কেউ অংশ নিতে পারবেন। বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার তালিকা থেকে যেকোন সময় তোলা যে কোন স্থাপনার ছবি যত খুশি আপলোড করা যাবে পুরো সেপ্টেম্বর মাস জুড়ে। বাংলাদেশে প্রতিযোগিতাটি আয়োজন করছে উইকিমিডিয়া বাংলাদেশ। প্রতিযোগিতাটি ১ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে। প্রতিযোগিতা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য ও বাংলাদেশ থেকে অংশ গ্রহণের বিস্তারিত জানা যাবে উইকি লাভস মনুমেন্টস ২০১৮ ঠিকানায়।

প্রতিযোগিতা শেষে অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দেশ থেকে প্রাপ্ত ১০টি করে ছবি থেকে আন্তর্জাতিক বিজয়ী ঘোষণা করা হবে। আন্তর্জাতিকভাবে বিজয়ী প্রথম দশজনকে বিভিন্ন পুরস্কার প্রদান করা হবে। এছাড়া স্থানীয় পর্যায়েও সতন্ত্রভাবে পুরস্কার প্রদান করা হবে। এ বছর প্রতিযোগিতাটি আয়োজনে আয়োজকদের সহযোগিতা করছে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা ‘ইউনেস্কো’, জনপ্রিয় আলোকচিত্র শেয়ারিং ওয়েবসাইট ‘ফ্লিকার’ ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের সহযোগী সংস্থা ‘ইউরোপানোস্ট্রা’।

বাংলাদেশে এ প্রতিযোগিতার সমন্বয়ক নাহিদ সুলতান বলেন, “গত বছর আয়োজনের দ্বিতীয়বারেই আন্তর্জাতিকভাবে সেরা ১০টি ছবির মধ্যে বাংলাদেশের জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের দুটি ছবি যথাক্রমে তৃতীয় ও সপ্তম স্থান অধিকার করে নেয়। এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে প্রাপ্ত গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনার ছবিগুলো উইকিপিডিয়ার বাংলাদেশ বিষয়ক নিবন্ধগুলোতে ব্যবহার করা ও উইকিপিডিয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশের ঐতিহ্যকে বিশ্বদরবারে উপস্থাপণ করাই এ আয়োজনের অন্যতম লক্ষ্য।”

প্রতিযোগিতার বিষয়ে সহ-সমন্বয়ক ও বাংলা উইকিপিডিয়ার প্রশাসক নুরুন্নবী চৌধুরী বলেন, ‘তৃতীয় বারের মতো এ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ অংশ নিচ্ছে। আশা করছি গত দুই বছরের চেয়েও এবার বেশি ছবি এ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে পাওয়া যাবে।’

২০১৭ সালের প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের তৃতীয় বিজয়ী ১০০০ ইউরো সমমূল্যের ক্যামেরা সংক্রান্ত যন্ত্রাদি এবং সপ্তম বিজয়ী ৩০০ ইউরো সমমূল্যের যন্ত্রাদি কেনার সুযোগ পেয়েছেন। গত বছর এ প্রতিযোগিতায় ৫৪টি দেশের ১০ হাজার অংশগ্রহণকারী দুই লাখ ৪৫ হাজার ছবি আপলোড করেছেন।

উল্লেখ্য, এ বছর প্রতিযোগিতাটিতে অংশ নিচ্ছে বিশ্বের ৫০টি দেশ। ২০১০ সালে শুরু হওয়া এই প্রতিযোগিতায় এখন পর্যন্ত বিভিন্ন দেশের স্থাপনার ১৮ লাখের বেশি ছবি যুক্ত হয়েছে। গিনেজ বুকের রেকর্ড অনুযায়ী, এটিই এখন পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে বড় আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.