বিনামূল্যে ব্যবহার করা যাবে পেইন্ট

বিশ্বখ্যাত সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফটের জনপ্রিয় প্রোগ্রাম ‘পেইন্ট’ বন্ধ হচ্ছে না। প্রোগ্রামটি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে এমন খবরে মাইক্রোসফটের বিপুল সংখ্যক ব্যবহারকারী হতাশ হয়ে পড়ায় এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে মাইক্রাসফট। অবশেষে ভক্ত ও ব্যবহারকারীদের কথা চিন্তায় রেখে ৩২ বছরের পুরোনো পেইন্ট প্রোগ্রামটি চালুর রাখার কথা জানিয়েছে মাইক্রোসফট কর্তৃপক্ষ। শুধু চালুই নয় এ সেবাটি বিনামূল্যেই ব্যবহার করতে পারবেন আগ্রহীরা। বিষয়টি নিয়ে সম্প্রতি মাইক্রোসফটের এক ব্লগ পোস্টে বলা হয়েছে, ‘এমএস পেইন্ট ভক্তরা খুশি হতে পারেন। আসল এই আর্ট অ্যাপটি কোথাও যাচ্ছে না। এটি উইন্ডোজ স্টোরে বিনা মূল্যে ব্যবহারের জন্য থাকছে।’ পেইন্ট প্রোগ্রামটিতে এখন খুব বেশি কাজ করা না গেলেও সাধারণ ছবি সম্পাদনা, দ্রুত কাট-পেস্ট করতে ব্যবহৃত হয়। উইন্ডোজের প্রথম সংস্করণে পেইন্ট অ্যাপটি যোগ করা হয়। ১৯৮৫ সালের নভেম্বরে উইন্ডোজ ১.০ নামের ওই সংস্করণটি উন্মোচন করা হয়। জেডসফট করপোরেশনের তৈরি পিসি পেইন্টব্রাশকে লাইসেন্স করিয়ে নেয় মাইক্রোসফট। শুরুর দিকে এতে এক বিটের মনোক্রোম গ্রাফিকস সমর্থন করত। উইন্ডোজ ৯৮-এ গ্রাহকেরা প্রথম জেপিইজি ফাইল ফরম্যাটে ছবি সংরক্ষণ করার সুযোগ পান।

মাইক্রোসফট পেইন্ট

মাইক্রোসফটের উইন্ডোজ ব্যবহারকারীদের মধ্যে প্রায় সবাই পেইন্ট সফটওয়্যারটি চেনেন। অনেক ডিজিটাল চিত্রশিল্পীর হাতেখড়িও যে এই পেইন্টে, তা-ও বলার অপেক্ষা রাখে না। ১৯৮৫ সালে উইন্ডোজের প্রথম সংস্করণের সঙ্গেই প্রথম এসেছিল মাইক্রোসফট বা এমএস পেইন্ট। পরবর্তী সময়ে জেডসফট করপোরেশনের তৈরি ‘পিসি পেইন্টব্রাশ’কে লাইসেন্স করিয়ে নেয় মাইক্রোসফট। শুরুর দিকে মাত্র এক বিটের মনোক্রোম গ্রাফিকস সমর্থন করত পেইন্টে। এ সফটওয়্যার ব্যবহার করে প্রথম জেপিইজি ধরনের ছবি সংরক্ষণের সুযোগ পায় উইন্ডোজ ৯৮ এর গ্রাহকেরা। গত কয়েক দিন আগে মাইক্রোসফটের প্রকাশিত এক তালিকায় এই পেইন্ট অনুমোদন দেওয়া হয়নি। ফলে চলতি বছরের শেষ দিকে উইন্ডোজ ১০ ফল ক্রিয়েটরস হালনাগাদ থেকে বাতিল করা হতে পারে পেইন্ট এমন ধারণা ছড়িয়ে পড়েছে ব্যবহারকারীদের মাঝে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে ক্ষোভ প্রকাশ শুরু করে পেইন্টের ভক্তরা। পরবর্তীতে মাইক্রোসফট জানায়, পেইন্ট উইন্ডোজের নতুন সংস্করণে ডিফল্টভাবে থাকছে না ঠিকই, তবে পুরোপুরি বাতিলও করা হবে না। উইন্ডোজ অ্যাপ স্টোরে বিনা মূল্যে পাওয়া যাবে পেইন্ট। এ নিয়ে এক ব্লগ পোস্টে মাইক্রোসফটের মহাব্যবস্থাপক মেগান সনডার্স লিখেন, এমএস পেইন্ট থাকছে, শিগগিরই এটির একটি নতুন স্থান হবে, উইন্ডোজ স্টোরে এটি বিনা মূল্যে পাওয়া যাবে। গত বছর পেইন্টের নতুন সংস্করণ ‘পেইন্ট ৩ ডি’ উন্মোচন করেছিল মাইক্রোসফট। ত্রিমাত্রিক ছবি তৈরি করার পেইন্ট ৩ ডি’র বেশ কয়েকটি সুবিধা মাইক্রোসফট ফটোতে থাকতে পারে বলেও জানান সনডার্স।

তথ্যসূত্র: বিবিসি, দ্য গার্ডিয়ান, আইএএনএস।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.