স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধিতে সাহায্য করুন নিজেকে ছবি সূত্রঃ ইন্টারনেট

প্রতিদিনই আমরা নতুন কিছু না কিছু শিখছি। জানতে পারছি নানা অজানা সব তথ্য। কিন্তু তার কতটুকুই বা আমরা মনে রাখতে পারি? আজ আপনাদের এমন কিছু সূত্র দেয়া হল যার মাধ্যমে আপনারা কেবল পড়বেনই না, বরং পড়লে কেমন করে তা মনে রাখা যায় তা সম্পর্কে জানতেও পারবেন।

কিছু কিছু বাচ্চা রয়েছে যারা পড়া একদম মনে রাখতে পারে না। রাস্তা যত সামনের দিকে এগুতে থাকে, তার পথটাও আরো কঠিন হয়ে যায়। ফলে পরিবার ও আশপাশ থেকে ভালো ভাবে সহযোগিতা না পেলে তার পক্ষে খুবই কঠিন হয়ে দাঁড়ায় টিকে থাকতে। তাদের জন্যও এই টিপসগুলো কাজে লাগবে। বিজ্ঞানকে ধন্যবাদ যে তাদের মাধ্যমে আজ মানুষ কিছু শিখতে ও জানতে পারছে।

১) নিজের স্কিলগুলো আলাদা করতে শিখুনঃ

যদি আপনি গিটার শিখতে চান, তবে প্রথমবারই স্টেজ পারফর্ম করছেন, এমন কিছু ধরে নেবেন না। প্রাথমিক জ্ঞান আহরণ করুন। গিটারের নানা কর্ড রয়েছে। কর্ডগুলো আয়ত্বে আনুন। তারপর পরিবার, বন্ধুবান্ধবদের বাজিয়ে শোনান। তারাই আপনাকে আপনার ভুলগুলো ধরিয়ে দেবে। ফলে নিজের মধ্যে এক ধরনের আত্মবিশ্বাস তৈরি হবে ও আপনি আপনার ভেতরকার শক্তিটা যাচাই করতে পারবেন।

২) অনেকগুলো কাজ একসাথে নয়ঃ

অনেকেই মনে করেন যে একসাথে অনেকগুলো কাজ করতে পারার দক্ষতা এক ধরনের মিথ। মানুষ একসাথে অনেক কাজ করতে পারে না। কিন্তু কথাটা আসলে সত্য নয়। মানুষের মস্তিষ্ক একসাথে অনেকগুলো কাজের ধাঁচ ধরতে পারে ঠিকই, কিন্তু কেউ তা সবগুলো ভালোভাবে সমাধা করতে পারে, কেউ আবার পারে না। তাই আপনি নিজের ভেতর বিশ্বাস তৈরি করুন যে আপনি পারবেন।

আর যদি আপনি ধীর স্থির কিংবা কাজ বুঝে বুঝে সময় নিয়ে করতে ভালোবাসেন তবে অনেকগুলো কাজ একসাথে হাতে না নেয়াই ভালো।

৩) লিখে রাখা সাহায্য করেঃ

অনেক সময় খেয়াল করে দেখবেন যে মানুষ তাদের পকেটে একটা ছোট নোটবুক রাখে। জরুরী কোন তথ্য যাতে সে মনে রাখতে পারে কিংবা প্রয়োজনের সময় যদি স্মৃতি বিশ্বাসঘাতকতা করে তাহলে লিখে রাখা জিনিসটাই তাকে উদ্ধার করবে।

গবেষকরাও বলেন যে মানুষ কোন জিনিস পড়ার সাথে সাথে তা যদি লিখে রাখে তবে মস্তিষ্ক তা সহজে বুঝে নিতে পারে। তারা আরো বলেন যে মনে রাখার জন্য সাদা কাগজ ও তার জমিনে কালো কালির লেখার চাইতে ভালো কিছু আর হতেই পারেনা স্মৃতির জন্য।

৪) ভুলগুলোকে উপভোগ করুন, উদযাপন করুনঃ

একদম সঠিক আপনি কখনো হতে পারবেন না, তা কখনো সম্ভবও নয়। তাই কোন কাজে ব্যর্থ হলে ভেঙে পড়বেন না, নিজেকে শক্ত করুন। ভুলগুলোকে উদযাপন করবার মত মানসিক শক্তি অর্জন করুন। কারণ, তখন আপনার মন প্রফুল্ল থাকবে। নিজের ভুলগুলোকে বুঝতে পারবেন আরো ভাল করে এবং সামনে এ ধরনের ভুল এড়িয়ে চলতে পারবেন।

সূত্রঃ লাইভ সাইন্স

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.