খুব শিগগিরই ব্যবহারকারীদের জন্য আসছে অ্যাপলের নতুন অপারেটিং সিস্টেমের (ওএস) সংস্করণ। আইওএস ১২ নামের এ সংস্করণটি আইফোন, আইপ্যাড ও আইপডে ব্যবহার করা যাবে। ওএসের নতুন এ সংস্করণে অ্যাপল চেষ্টা করেছে নতুন করে নানা বিষয় যুক্ত করতে। ব্যবহারকারীদের কাজে লাগে এমন বেশ কিছু ফিচারও যুক্ত করা হয়েছে আইওএস ১২তে। গত ৪ জুন, সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার সান জোসে ম্যাকএনরি কনভেনশন সেন্টারে অ্যাপলের বার্ষিক ডেভেলপার কনফারেন্সে (ডব্লিউডব্লিউডিসি) অ্যাপলের প্রধান নির্বাহী টিম কুক এ অপারেটিং সিস্টেমটির ঘোষণা দেন।

নতুন সংস্করণে ব্যক্তিগত সহকারি সিরিকে আরো শক্তিশালী করা হচ্ছে। গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট, অ্যামাজনের অ্যালেক্সা কিংবা মাইক্রোসফটের কর্টানার সাথে নিয়মিত ভাবে প্রতিদ্বন্ধি হিসেবে টিকে থাকতে সিরিকে আরও শক্তিশালী করার চেষ্টা করছে অ্যাপল। জানা গেছে, বিভিন্ন তথ্য খুঁজে বের করা ও কাজ করে দেয়ার জন্য সিরিতে এক হাজার কোটির বেশি অনুরোধ আসে। তাই নতুন সিরিতে যুক্ত করা হয়েছে চমৎকার এক ফিচার, যা ব্যবহারকারীর ধরন ও চাহিদা অনুযায়ী বিভিন্ন পরামর্শ দেবে। প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট সময়ে হাঁটতে বের হতে চাইলে সিরি সেই সময় অনুযায়ী মনে করিয়ে দেবে। প্রতি মুহূর্তে ব্যবহারকারীর কাজের ধরন থেকে হালনাগাদ নিয়ে সিরি সে অনুযায়ী ব্যবহারকারীকে জানাবে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৯-এর এআর ইমোজির মতো করে নতুন ভাবে ‘মিমোজি’ থাকছে নতুন সংস্করণে।  ইমোজিতে ব্যবহারকারীরা নিজের মতো করে কার্টুন চরিত্র বা ইমোজি তৈরি করতে পারতেন। ‘মিমোজি’ নামে ফিচারটি ব্যবহার করে ব্যবহারকারীরা নিজেদের মতো একটি থ্রিডি কার্টুন বা ইমোজি তৈরি করতে পারবেন। তারপর মিমোজিতে অডিও যুক্ত করে তা আই মেসেজে পাঠানো যাবে।

লকস্ক্রিনে ফোনের নোটিফিকেশন গ্রুপ আকারে প্রদর্শিত হবে আইওএস ১২ তে। অর্থাৎ ফেসবুকের সব নোটিফিকেশন আলাদাভাবে নয় বরং একত্রে দেখা যাবে লক স্ক্রিনের নোটিফিকেশনে। কোনো অ্যাপের নোটিফিকেশন না চাইলে তা লক স্ক্রিন থেকেই বন্ধ করে রাখা যাবে।

অ্যাপলের জনপ্রিয় ভিডিও কলিং সেবা ফেসটাইমে আনা হয়েছে কলের সুবিধা। ফলে একত্রে ৩২ জন বন্ধু ভিডিও কল করতে পারবেন। ভিডিও কলে যুক্ত থাকা সব বন্ধুদের ছবি ছোট আকারে প্রদর্শিত হবে। উন্নত করা হয়েছে ডোন্ট ডিস্টার্ব মোড। এতে নির্দিষ্ট সময় ও ক্যালেন্ডার থেকে তারিখ অনুযায়ী ডিভাইসটির ভলিউম রিংটোন কমানো বা সাইলেন্ট করা, নোটিফেশন বন্ধসহ বিভিন্ন মোড নির্বাচন করে রাখা যাবে। নির্দিষ্ট সময়ে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডোন্ট ডিস্টার্ব মোডটি চালু হয়ে যাবে। স্ক্রিনটাইম নামক একটি অ্যাপ থাকছে যা ব্যবহারকারী কোন অ্যাপ কত সময় ব্যবহার করেছেন, কোন অ্যাপ বেশি সময় ব্যবহার করেছেন, কখন ডিভাইসটি বেশি ব্যবহার হয় ইত্যাদি তথ্যগুলো রিপোর্ট আকারে জানাবে। কোন অ্যাপ কত সময় ব্যবহার করবেন তা নির্ধারণ করার সুবিধা মিলবে আইওএস ১২-তে। অ্যাপলের বই পড়ার অ্যাপ আইবুকস নতুন রূপে হাজির হয়েছে আইওএস ১২-এ। আইবুকস থেকে নাম পরিবর্তন করে ‘অ্যাপল বুকস’ নাম দেয়া হয়েছে। ডিজাইনে আনা হয়েছে অনেক পরিবর্তন। ইতিমধ্যে ডেভেলপাররা ওএসটির পরীক্ষামূলক সংস্করণ ব্যবহার করতে পারবেন। চলতি মাসের শেষের দিকে সব ব্যবহারকারীদের জন্য উন্মুক্ত হবে সংস্করণটি।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.