ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল সম্প্রতি জানিয়েছে, সর্বাধিক জনপ্রিয় মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটার তৃতীয়-পক্ষের তৈরি টুইটার ক্লায়েন্ট টুইটডেক কিনে নেয়ার পাঁয়তারা করছে। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে আলোচনা চলছে বলেও জানা গেছে। উল্লেখ্য, টুইটারের যতগুলো ডেস্কটপ বা মোবাইল ক্লায়েন্ট আছে তার মধ্যে সর্বাধিক সংখ্যক ব্যবহারকারী টুইটডেক ব্যবহার করে থাকেন। টুইটডেক উইন্ডোজ, লিনাক্স, ম্যাক, আইফোন, আইপ্যাড ইত্যাদি ক্রস প্লাটফর্ম ও ক্রস ডিভাইস একটি অ্যাপ্লিকেশন।

টুইটডেকের জনপ্রিয়তার অন্যতম মূল কারণ এর ব্যবহার-বান্ধবতা। একই স্ক্রিনে বসে ব্যবহারকারী টুইটারে স্ট্যাটাস আপডেট, বন্ধুদের আপডেট, রিপ্লাই, ডাইরেক্ট মেসেজসহ ফেসবুক ফিড এবং ফেসবুকে স্ট্যাটাস আপডেট করতে পারেন। এছাড়াও টুইটডেক মাইস্পেস, ফোরস্কয়ার এবং লিংকড-ইন সাপোর্ট করে বলে এর জনপ্রিয়তা এখন তুঙ্গে।

জানা গেছে, টুইটডেক পরিচালনায় আছেন মাত্র ১৫জন সদস্য। এটি যুক্তরাজ্যে অবস্থিত একটি ফার্মের তৈরি অ্যাপ্লিকেশন। টু্ইটডেকের আসলে কতজন ব্যবহারকারী রয়েছেন তা সঠিকভাবে কখনই জানা না গেলেও এটি জনপ্রিয়তার শীর্ষে তা ঠিকই বের করেছে বিভিন্ন পরিসংখ্যান।

সূত্র জানিয়েছে, এর আগে আরো একবার টুইটডেককে কিনে নিতে চেয়েছিল UberMedia নামক অন্য একটি প্রতিষ্ঠান। সেবার এর দাম উঠেছিল ৩০ মিলিয়ন ডলার। কিন্তু এবার খোদ টুইটারই উঠে পড়ে লেগেছে টুইটডেক কিনে নিতে। অবশ্য কিছু কিছু সূত্র এর কারণ হিসেবে বলছে, টুইটার চায় না নির্দিষ্ট কোনো তৃতীয়পক্ষের প্রতিষ্ঠান টুইটারের একটি বড় সংখ্যক ব্যবহারকারীকে নিয়ন্ত্রণ করুন। এ জন্যই হয়তো ৫০ মিলিয়ন দাম হাঁকিয়ে টুইটডেক প্রতিষ্ঠাতাকে চিন্তায় ফেলে দিয়েছে টুইটার।

তবে শেষ পর্যন্ত টুইটডেক কার হাতে গিয়ে পড়ে সেটাই দেখার বিষয়। আর এ ব্যপারে এককভাবে সিদ্ধান্ত নিবেন টুইটডেক এর প্রতিষ্ঠাতা Iain Dodsworth এবং তার দিকেই তাকিয়ে আছে সবাই।

comments

4 কমেন্টস

  1. আমি কিনব!!! ১০০ মিলিয়ন ডলার!!!!!!!!! বেচব নাকি??? জিজ্ঞেস করেন!! 😈 😈 😈 😈 😈 😈 😈 😈

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.