বর্তমানের জনপ্রিয় ইমোজি

ফেসবুক, ভাইবার, হোয়াটস অ্যাপ- যে কোন সামাজিক মাধ্যমেই আমরা ইমোজি ব্যবহার করি। হাসি খুশি আছি কিংবা রেগে আছি, তা বোঝানোর জন্য একটি ইমোজিই যথেষ্ট। কিন্তু ইমোজি কি বর্তমানের আবিষ্কার নাকি এর পূর্ববর্তী কোন ধারা ছিল?

আপনি জেনে অবাক হবেন যে, স্লোভাকিয়ার ট্রেঞ্চিন এর ন্যাশনাল আর্কাইভে কর্মরত বিজ্ঞানীরা এমন একটি ইমোজি আবিষ্কার করেছেন, যার ফলে এটি ধারণা করা যেতে পারে যে স্লোভাকিয়াতে সেই ১৬০০ সাল থেকেই ইমোজির ধারণা চালু ছিল।

স্লোভাকিয়াতে প্রাপ্ত ১৭ শতকের ইমোজি
                            স্লোভাকিয়াতে প্রাপ্ত ১৭ শতকের ইমোজির রুপ 

ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমসকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে শ্রীসা ঘোষ বলেন,

“আমি মূলত জানি না এটি স্লোভাকদের সর্বপ্রাচীন ইমো নাকি পৃথিবীরই সর্বপ্রাচীন ইমো। কিন্তু এটা নির্দ্বিধায় বলা যায় যে ট্রেঞ্চিন অঞ্চলের মাঝে এটি সর্বপ্রথম ইমোজি।”

ঘোষ আরো বলেন, ১৬৩৫ সালে স্ট্রাজোভ পাহাড়ের ধারের একটি গ্রাম থেকে এই চিরকুটটি পাওয়া যায়। এই চিরকুটে রয়েছে একটি গোলাকার অংশের মাঝে দুটি বিন্দু।পরীক্ষা করলে দেখা যাবে যে এই চিরকুটটির মাঝে যে ছবির মত অংশটি রয়েছে তা আজকের “ইমোজি স্মাইলি ফেস”কে নির্দেশ করে।
তথ্যসূত্রঃsmithsonian.org

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here