স্মার্টফ্রিজ বা বাসাবাড়ির অন্যান্য ইলেক্ট্রনিক যন্ত্রপাতিতে ম্যালওয়্যার সংক্রমণের খবর বেরিয়েছে সম্প্রতি। অ্যাডুপস (Adups) নামে ফার্মওয়্যারটি অতি সাধারণ ইলেক্ট্রনিক্স থেকেও তথ্য চুরি করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে এর চেয়ে ভয়াবহ খবর হচ্ছে বিশ্বব্যাপী ৩০ লাখেরও বেশি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে মারাত্মক নিরাপত্তা ত্রুটি রয়েছে।

অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের জন্য এর চেয়ে দুঃসংবাদ আর হতে পারে না। তবে যেসব ফোনে Rootkit/Backdoor অ্যাপটি আগে থেকেই কোম্পানি ইনস্টল করে দিয়েছিল শুধু সেসব ফোনেই এই ঝুঁকি রয়েছে।

ইন্টারনেট নিরাপত্তা কোম্পানি বিটসাইট (BitSight) বলছে, সস্তা ফোনগুলোতেই এই সমস্যা রয়েছে। প্রিইনস্টলড ফার্মওয়্যারটি নিরাপত্তা দুর্বলতা তৈরি করে। ফলে এটি হ্যাকিংয়ের জন্য মধ্যস্থতাকারী হিসেবে কাজ করে। সস্তার সব অ্যান্ড্রয়েড ফোনের এটি একটি সাধারণ সমস্যা।

এর ফলে হ্যাকাররা খুব সহজেই যেকোনো ফোনের রুট একসেস পায় এবং পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নিজের হাতে নিতে পারে।

এখন পর্যন্ত এই ধরনের নিরাপত্তা ত্রুটিযুক্ত ফোনগুলোর মধ্যে রয়েছে- BLU Studio G, BLU Studio G Plus,
BLU Studio 6.0 HD, BLU Studio X, BLU Studio X Plus, BLU Studio C HD, Infinix Hot X507,
Infinix Hot 2 X510, Infinix Zero X506, Infinix Zero 2 X509, DOOGEE Voyager 2 DG310, LEAGOO Lead 5, LEAGOO Lead 6, LEAGOO Lead 3i, LEAGOO Lead 2S, LEAGOO Alfa 6,
IKU Colorful K45i, Beeline Pro 2, XOLO Cube 5.0 ।

ইতিমধ্যে কিছু ফোন কোম্পানি এই নিরাপত্তা দূর করতে গ্রাহকদের সফটওয়্যার আপডেট দিয়েছে।

বিটসাইট জানিয়েছে, উল্লেখিত মডেলগুলোর মধ্যে কমপক্ষে ৫৫টি ডিভাইস থেকে তথ্য চুরি গেছে। আক্রান্ত ডিভাইসের মধ্যে ২৬ শতাংশ ব্লু, ১১ শতাংম ইনফিনিক্স এবং ৮ শতাংশ গুগি কোম্পানি তৈরি করেছে।

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.