দুই বছর আগে ফেসবুকের কাছে হোয়াটসঅ্যাপ বিক্রি হয়ে যাওয়ার সময় হোয়াটসঅ্যাপ সিইও জ্যান কউম  বলেছিলেন, ‘কিছুই পরিবর্তন হবে না।’

 

কিন্তু পরিবর্তন ঠিকই ঘটছে!

 

২৫ আগস্ট বৃহস্পতিবার, ব্যবহারকারীদের চমকে দিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ ঘোষণা দিয়েছে, প্রাইভেসি পলিসিতে বড় ধরনের পরিবর্তন করতে যাচ্ছে। আর তা হচ্ছে, হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের ফোন নম্বর শেয়ার করা হবে প্যারেন্ট কোম্পানি ফেসবুকে সঙ্গে। অর্থাৎ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্টের তথ্য ব্যবহার করতে পারবে ফেসবুক।

 

এ ব্যাপারে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষের যুক্তি, ‘নতুন নীতিমালা হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের আরো বেশি বন্ধু খুঁজে পেতে সহায়তা করবে, ফেসবুক বিজ্ঞাপন আরো বেশি উন্নত হবে এবং ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ উভয়ের ক্ষেত্রেই এটি লাভজনক হবে।’

 

হোয়াটসঅ্যাপ এবং ফেসবুক উভয় কর্তৃপক্ষই নিশ্চিত করেছে যে, নতুন নীতিমালার হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্টের তথ্য ফেসবুকের বিজ্ঞাপন উন্নয়নে কাজে লাগানো হবে, ব্যবহারকারীদের চ্যাট ও ফোন নম্বর ফাঁস করা হবে না। কিন্তু তারপরও অনেকে নম্বর গোপণীয় সংক্রান্ত সংশয়ে ভুগছেন।

 

সেক্ষেত্রে চাইলে হোয়াটসঅ্যাপের নম্বর ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে শেয়ার না করার দুইটি উপায় রয়েছে।

 

প্রথমত আপনি হোয়াটসঅ্যাপের নতুন প্রাইভেসি পলিসিতে সম্মত হয়ে ‘অ্যাগ্রি’ অপশনে ক্লিক করার পরপরই অ্যাকাউন্টের তথ্য শেয়ারের অপশন থেকে টিকমার্ক উঠিয়ে দিন। দ্বিতীয় উপায়টি হচ্ছে, নতুন প্রাইভেসি পলিসির চালু করে থাকলে, ৩০ দিনের মধ্যে তা বন্ধ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে সেটিংস মেন্যু থেকে অ্যাকাউন্ট ট্যাবে গিয়ে ‘শেয়ার মাই অ্যাকাউন্ট ইনফো’ থেকে টিকমার্ক উঠিয়ে দিন।

 

তথ্যসূত্র: মিরর

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.