TVস্যামসাং ইলেকট্রনিক্স বাংলাদেশে ক্রিকেট মৌসুমে তার সম্মানিত গ্রাহকদের জন্য আকর্ষণীয় মুল্যে নির্ধারিত মডেলের টিভি বাজারে নিয়ে এসেছে। বিশ্বের শীর্ষ স্থানীয় এই কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক্স কোম্পানিটি ইলেকট্রনিক্স পণ্য উৎপাদনে এবং টিভি বিক্রয়ে সারা বিশ্বে টানা নয় বছর ধরে প্রথম স্থান অর্জন করে আসছে।
স্যামসাং কার্ভড সিরিজ, জয় স্মার্ট সিরিজ, স্যামসাং স্মার্ট সিরিজ এবং স্যামসাং এলইডি সিরিজের বিভিন্ন মডেলের টিভিতে ক্রেতারা নতুন মুল্যে কিনতে পারবেন। স্যামসাং এসব মডেলের টিভিতে সর্বনি¤œ ২ হাজার ৮৫০ টাকা থেকে  সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে।
গ্রাহকদের জন্য মুল্য ছাড় থাকছে স্যামসাং কার্ভড সিরিজ মডেলের ৩২”, ৪০”, ৪৮” এবং ৫৫” এবং স্মার্ট টিভি সিরিজের ৪০”, ৪৮” এবং ৫৫” মডেলের টিভিতে। শুধু তাই নয়, জয় প্লাস সিরিজের ৩২” ও ৪০” এবং স্যামসাং এলইডি মডেলের ২৩”, ৩২” এবং ৪০” টিভিতেও এই অনন্য অফার ক্রেতারা উপভোগ করতে পারবেন।
স্যামসাং ইলেকট্রনিকস বাংলাদেশের হেড অব কনজ্যুমার ফিরোজ মোহাম্মদ বলেন, “স্যামসাং-এ আমরা বিশ্বাস করি, গ্রাহকদের সেরা পণ্যের অভিজ্ঞতা দেওয়ার ক্ষেত্রে উদ্ভাবন-ই সেরা পথ।” তিনি আরও বলেন, “আমাদের দেশের মানুষ ক্রিকেট নিয়ে অত্যন্ত উৎসাহী। এ দেশী দর্শকরা যেন, টি২০ বিশ্বকাপ ২০১৬-এর বিশেষ মুহুর্তগুলো উপভোগ করতে পারেন সেজন্য স্যামসাং, তার গ্রাহকদের চমৎকৃত করতে নির্দিষ্ট টিভি মডেলগুলো আকর্ষণীয় মুল্যে বাজারে নিয়ে এসেছে।”
স্যামসাং পণ্যে নিত্য নতুন উদ্ভাবনী ডিজাইন এবং পণ্যের সেরা মান নিশ্চিত করে সুনাম বৃদ্ধির অগ্রযাত্রাকে আরও তরান্বিত করতে চায়। যাতে, দর্শকরা স্যামসাং-এর সব মডেলের টিভিতে সেরা বিনোদন উপভোগ করতে পারেন। স্যামসাং-এর নতুন টিভিগুলোতেও এর ডিজাইন এবং পিকচারের উচ্চ গুণগত মান বজায় রেখেছে।
বিস্তারিত জানতে কল করুন-০৯৬১২-৩০০-৩০০। স্যামসাং-এর অনুমোদিত ডিস্ট্রিবিউটর হচ্ছে- ট্রান্সকম ডিজিটাল, ইলেক্ট্রা ইন্টারন্যাশনাল, র‌্যাংস এবং সিংগার। গ্রাহকরা স্যামসাং ইলেকট্রনিকস বাংলাদেশের অনুমোদিত পণ্য কিনতে ইএমআই সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।  বিস্তারিত তথ্যের জন্য ভিজিট করুন-www.facebook.com/SamsungElectronicsBangladesh

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.