পরীক্ষামূলকভাবে ঢাকা সিটি করপোরেশনে ৩ অক্টোবর থেকে স্মার্টকার্ড বিতরণ শুরু হবে। ভোটারদের কাছ থেকে এখনকার লেমিনেটেড জাতীয় পরিচয়পত্রটি নেওয়ার পর ১০ আঙ্গুলের ছাপ ও চোখের আইরিশের ছাপ নিয়ে স্মার্টকার্ড দেওয়া হবে।

৩ অক্টোবর সর্বপ্রথমে উত্তরা ও রমনা এলাকার চারটি ওয়ার্ডে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ শুরু হবে। ওই চার ওয়ার্ডে অভিজ্ঞতা নিয়ে ঢাকায় পুরোদমে স্মার্ট কার্ড বিতরণ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সুলতানুজ্জামান মো. সালেহ উদ্দিন।

তিনি সোমবার সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী ঢাকায় এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্মার্ট কার্ড বিতরণ উদ্বোধন করবেন। এরপরই ঢাকা ও কুড়িগ্রামে বিতরণ শুরু হবে।

উত্তরা থানা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহজালাল জানান, পরীক্ষামূলকভাবে উত্তরার ১ নম্বর ওয়ার্ডের ৬৩ হাজারেরও বেশি ভোটারের কাছে স্মার্ড কার্ড বিতরণ শুরু হবে।

৩ অক্টোবর থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত উত্তরা হাই স্কুল ও কলেজে বিতরণকাজ চলবে।

রমনা থানার ১৯, ২০ ও ২১ নম্বর ওয়ার্ডে পরীক্ষামূলক কার্ড বিতরণ করা হবে বলে জানান থানা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুবা মমতা হেনা।

১৯ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটাররা সিদ্ধেশ্বরী গার্লস হাই স্কুল ও কলেজ, ২০ ওয়ার্ডে সেগুন বাগিচা হাই স্কুল ও ২১ নম্বর ওয়ার্ডে উদয়ন স্কুলে ৩ অক্টোবর থেকে ২৬ অক্টোবর পর্যন্ত ভোটাররা এসে স্মার্ট কার্ড নিতে পারবেন।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, ইতোমধ্যে ঢাকার দুটি থানার জন্য ৫৫ জন অপারেটর নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। উত্তরায় ৩০ জন এবং রমনার জন্য ২৫ জন অপারেটর কাজ করবে।

জাতীয় পরিচয়পত্র সংক্রান্ত যে যে কোনো ধরনের সেবার বিষয়ে তথ্য জানাতে হেল্প ডেস্ক রাখা হয়েছে। নির্ধারিত নম্বরে কল করলে নাগরিকদের তথ্য জানাবে জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন বিভাগের কর্মকর্তারা।

স্মার্ট কার্ড বিতরণ বিতরণ সংক্রান্ত তথ্য জানতে যে কোনো মোবাইল ফোন থেকে ১০৫ নম্বরে কল করার অনুরোধ জানিয়েছেন এআইডি উইং।

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.