অতি সাম্প্রতিক বিশ্বের অন্যতম মাইক্রোপ্রসেসর নির্মাতা ইন্টেল তাদের নতুন রিসার্চ এর ফলাফল ঘোষণা করেছে। আর বরাবরের মতনই বিশ্ব কাপিয়ে দিয়েছেন তারা। গত ১৫ই সেপ্টেম্বর ২০১১ এ অনুষ্ঠিত, ইন্টেল ডেভেলপমেন্ট ফোরাম এ তারা একটি বিশেষ ধরনের প্রসেসর দেখিয়েছে। ঠিক আছে, ইন্টেল তো প্রসেসর ই দেখাবে…… এতে বিশ্ব কাঁপানোর কি হলো ? আছে আছে, ইন্টেল দেখিয়েছে এমন একটি প্রসেসর, যা চলার জন্য মাত্র ১০ মিলিওয়াট বিদ্যুৎ লাগবে এবং যা সোলার প্যানেল দিয়ে চলবে।

জ্বি আপনি ঠিক ই পড়েছেন, মাত্র ১০ মিলিওয়াট এবং সোলার প্যানেল। আপনার কাছে যদি এটাকে খুব বেশি মনে হয়, তবে দয়া করে এই লিঙ্ক থেকে ইন্টেলের প্রসেসর গুলো কত ওয়াট এ চলে দয়া করে একটু দেখে নিন।

তবুও আমি কিছু উদাহারন দিচ্ছি;

ইন্টেল পেন্টিয়াম ৭৫ মেগাহার্জ ৮ ওয়াট
ইন্টেল পেন্টিয়াম ২০০ মেগাহার্জ ১৫.৫ ওয়াট
ইন্টেল পেন্টিয়াম এমএমএক্স ২৩৩ মেগাহার্জ ১৭ ওয়াট
ইন্টেল পেন্টিয়াম ২ ২৬৬ – ৩০০ মেগাহার্জ ১৬ থেকে ৪৩ ওয়াট
ইন্টেল পেন্টিয়াম ৩ ৫০০ – ৬০০ মেগাহার্জ ১৬ থেকে ৪২.৭৬ ওয়াট
ইন্টেল পেন্টিয়াম ৪ ১৩০০ – ৩৬০০ মেগাহার্জ ৫১.৬ থেকে ১১৫ ওয়াট
ইন্টেল পেন্টিয়াম ডি ২৬০০ – ৩৬০০ মেগাহার্জ ৯৫ থেকে ১৩০ ওয়াট
ইন্টেল কোর ২ সিরিজ ১৬০০ – ৩২০০ মেগাহার্জ ৬৫ থেকে ১৫০ ওয়াট

থাক আর না যাই ।

ইন্টেল এর এই আল্ট্রা লো পাওয়ারড প্রসেসর টির নাম দিয়েছেন, Claremont। প্রসেসর টি আগে কার দিনের সকেট ৭ এর পেন্টিয়াম ডিজাইন এ করা। আসলে এটা কে সকেট ৭ এ করা হলেও এঁকে এমন ভাবে মডিফাই করা হয়েছে যে প্রসেসর টির সর্বোচ্চ ক্ষমতায় থাকবার সময় এটা কোন ভাবেই ১০ মিলিওয়াট এর বেশি বিদ্যুৎ খরচ করবে না।

এখন কার দিনের আল্ট্রা লো ভোল্টেজ সিপিইউ (ইন্টেল অ্যাটম Z550, ২ গিগাহার্জ) এর কথা যদি বলেন তো সেটাও কিন্তু প্রায় ৩ ওয়াট এর মতন বিদ্যুৎ খরচ করে।

কম বিদ্যুৎ খরচের কারণ হচ্ছে নতুন একটি টেকনোলজি। টেকনোলজি টি হচ্ছে, Near Threshold Voltage. বুদ্ধিটা হচ্ছে, বর্তমানের প্রসেসর গুলোতে প্রয়োজনের তুলানায় অনেক অনেক বেশি পরিমাণের বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়ে থাকে (দেখা গেছে, একটি প্রসেসর থেকে প্রায় দশ গুন পারফর্মেন্স পাওয়া যায় যখন প্রসেসর টি তার নমিনাল ভোল্টেজ এ অপারেট করে) শুধু মাত্র এটা নিশ্চিত করতে যে প্রসেসর এর Transistor গুলো তাদের সুইচিং এর সময় যেন কোন সমস্যা না হয়। Near Threshold Voltage টেকনোলজি তে প্রসেসর এ যে ভোল্টেজ টি দেয়া হবে তার পরিমাণ টি হবে, যে পরিমাণ বিদ্যুৎ প্রয়োজন তার Transistor গুলোর জন্য, তার থেকে সামান্য পরিমাণের বেশি।

Claremont প্রসেসর টিতে একটি বিশেষ ধরনের স্পীড স্টেপ ব্যবহার করা হয়েছে, যাতে প্রসেসর টিকে কোন ধরনের স্পীড বুস্ট করা সম্ভব না হয়।
আগের দিনের সকেট ৭, পেন্টিয়াম প্রসেসর গুলোর থার্মাল ডিজাইন পাওয়ার (Thermal design power – TDP) ছিল, ১৫.৬ থেকে ২০.৬ ওয়াট, কারেন্ট লাগত২.৮৫ থেকে ৩.৬ ভোল্ট এবং ৪.৭ থেকে ৭.১ অ্যাম্পেয়ার যেখানে, Claremont প্রসেসর টির জন্য দরকার হবে, ০.০৮ ওয়াট, কারেন্ট লাগত ০.০১১ থেকে ০.০১৭ ভোল্ট ।

লক্ষ্যঃ

আজকের দিনের সার্ভার গুলোর প্রতি ১০০ গিগাফ্লপস (FLOPS: Floating-Point Operations Per Second) পারফর্মেন্স এর জন্য ২০০ ওয়াট করে খরচ হচ্ছে, ইন্টেল চাচ্ছে এই খরচ কে মাত্র ২ ওয়াট এ নিয়ে আসতে।তবে, দক্ষ ম্যানেজমেন্ট এবং ইফিশিয়েন্ট হার্ডওয়্যার ই নয় এই Claremont ধরনের প্রসেসর গুলোর জন্য দক্ষ প্রোগ্রামিং এবং সফটওয়্যার এর প্রয়োজন, এই লক্ষ্যেই ইন্টেল তাদের আগামীর রিসার্চ গুলো চালিয়ে যাবে বলে নিশ্চয়তাও দিয়েছে।

সূত্রঃ ইন্টারনেট থেকে।

comments

16 কমেন্টস

  1. আপনার লেখাগুলো সবসময়ই চমৎকার ও আকর্ষণীয় হয়। সবগুলোই আমার প্রিয় 🙂

  2. Kate Spade New York is a brand that revels in personality both quirky and regal, tremendous mood, pops of color, brazen adventure, unexpected detail and afirs of the heart, just to name a few. The Kate Spade New York woman is daring, from her hairstyle to her footwear and all points in-between. Always enchanting and ever-surprising, the Kate Spade New York woman may find herself holding court at an uptown cocktail party, decked out in a spectacular Kate Spade New York dress, jewelry gleaming and twinkling against a backdrop of conversation about which director made the greatest and most influential French New Wave film.
    Louis Vuitton Womens Wallets Cheap Outlet

  3. birkenstock papillio Exercise is another great way to get a flat tummy. But you have to find an activity you enjoy or else you find it difficult to stick with it. There are lots of fat burning workouts such as running or jogging, using the stair climber, the elliptical, cycling, swimming and resistance training. While you can’t choose where the fat will be burned from, you can be sure that it will be taken from your tummy eventually. Just doing sit-ups or crunches will not help you to get a flat tummy fast because you can’t tone fat. To get those toned abs showing, you have to lose the fat that is on top of them first. Don’t worry if you can’t face going to the gym, as there are also lots of effective ways to exercise at home.louis vuitton sunglasses

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.