বন্ধুরা,ডেস্কটপ প্রোগ্রামিং এর জগতে সি এক অনন্য নাম,যাকে বলা হয় “Mother of all languages” অর্থাৎ সকল ল্যংগুয়েজের মাতা। আর সি এর এই প্রয়োজনীয়তার প্রেক্ষিতেই সি প্রোগ্রামিং টিউটোরিয়াল। এটি এর ৬ষ্ঠ পর্ব। আর এ পর্বে আপনাদের সবাইকে স্বাগত জানাচ্ছি।

গতপর্বের শেষে একটি কোড দিয়েছিলাম, মনে আছে কি ? মনে না থাকলেও সমস্যা নেই। চলুন কোডটা আবার দেখি।

১)          #include<stdio.h>

২)          #include<conio.h>

৩)          main()

৪)          {

৫)           printf(“hello everybody.”);

৬)            getch();

৭)               }

 

আমি আগেই বলেছি ফাংশন এর কথা। প্রতিটা ফাংশন একেকটা কাজ করে। তেমনি একটি ফাংশন main() ফাংশন। এই ফাংশনের কাজ হল, এই ফাংশনের মধ্যে যা কিছু লেখা হবে সি প্রোগ্রাম তা নিয়েই কাজ করবে। অর্থাৎ প্রোগ্রামের যাবতীয় প্রসেসিং হবে main() ফাংশনের ভেতর। এই ফাংশনের পরে “{“ দিয়ে ফাংশনের ভেতরের অংশ শুরু করা হয়েছে। এবং এর ভেতরে প্রথমেই লেখা হয়েছে printf(“hello everybody.”);। উল্লেখ্য, printf() হল আরেকটি ফাংশন যার কাজ হল এর ভেতরে লেখা কোনো শব্দ বা শব্দগুচ্ছকে মনিটরের স্ক্রীনে প্রদর্শন করা। এই ফাংশনের “()” অংশের ভেতরে “” চিহ্ন দিয়ে লেখা হয়েছে “hello everybody.” তাই এই লেখাটি স্ক্রীনে দেখানো হবে। printf() ফাংশনের মাধ্যমে এই যে একটি লেখাকে প্রোগ্রামে দেখানোর কমান্ড দেয়া হল, একে বলা হয় ইন্সট্রাকশান দেয়া। আর এই পুরো লাইনটা হল একটি স্টেটমেন্ট। প্রতিটি স্ট্যাটমেন্টের পরে “;” সেমিকোলন দিতে হয়।

এরপরের লাইনেই লেখা হয়েছে, getch();। উল্লেখ্য, এটিও একটি ফাংশন যার কাজ হল দর্শকের কাছ থেকে কোনো ক্যারেক্টার নেয়া। অর্থাৎ, কেউ যখন কীবোর্ড থেকে কোনো ক্যারেক্টার প্রেস করবে তখন এই ফাংশনের মাধ্যমে ঐ ক্যারেক্টারটি ইনপুট হিসেবে প্রোগ্রাম নিয়ে নেবে। আর যতক্ষন পর্যন্ত কীবোর্ডের কোনো কী প্রেস না করে ক্যারেক্টার না দেয়া হবে তখন এই ফাংশন কোনো ক্যারেক্টারকে ইনপুট হিসেবে পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করতে থাকবে।

এরপরেই আছে “}” যার মাধ্যমে প্রোগ্রামের শেষ বুঝানো হয়। আপনি যখন কোনো ক্যারেক্টারে প্রেস করবেন তখন getch() ফাংশন ঐ ক্যারেক্টার ইনপুট হিসেবে নেবে এবং ঐ লাইনের কাজ শেষ হয়ে যাবে। এরপরের লাইনে শুধুমাত্র “}” আছে যার ফলে প্রোগ্রামটি শেষ হয়ে যাবে।

এখানে দুটি ফাংশন ব্যবহার করা হয়েছে। printf()  এবং getch() ফাংশন। এদের প্রোটোটাইপ যথাক্রমে stdio.h এবং conio.h ফাইলে ডিক্লেয়ার করা আছে। তাই এই সকল ফাংশনের হেডার ফাইল যথাক্রমে stdio.h এবং conio.h। যেহেতু উক্ত ফাংশনগুলো প্রোগ্রামে ব্যবহার করা হয়েছে, তাই এদের হেডার ফাইলের নাম main() ফাংশনের আগে ডিক্লেয়ার করতে হবে নিচের মত।

#include<stdio.h>

#include<conio.h>

এভাবে লেখার মধ্যে কোনো স্পেস থাকতে পারবে না।

রান করার পরে নিচের মত পাবেন।

আজ এ পর্যন্তই, ভালো থাকবেন। কেমন লাগলো জানাবেন। সবাইকে ধন্যবাদ।

comments

21 কমেন্টস

  1. আপনার পোস্টগুলোর quality নিয়ে কিছু বলার নেই। সুন্দর হয়েছে। তবে পোস্ট গুলো খুব ই ছোট। আমার মনে হয় আপনি আপনার সব পোস্ট আগে রেডি করে তারপর প্রকাশ করলে ভাল হয়।

    • পোষ্টগুলো খুব ছোট হওয়ার একটি কারণ আপনিই বলে দিয়েছেন,পোষ্ট ছোট হলেও যত্ন করে লেখার জন্য কিছুটা হলেও বেশি সময় দিতে হয়। তাছাড়া পোষ্ট আমি বড় করব আরো কিছুটা পরে, ভিতরের জিনিসগুলো একেবারে নবীন যারা, তারা ভালোভাবে উপলদ্ধি করার জন্য এই পোষ্টগুলো ছোট করা। তবে পরবর্তীতে আস্তে আস্তে পোষ্ট বড় হবে এতে কোনো সন্দেহ নেই। আসলে বলতে পারেন এটাই আমার স্টাইল। আশা করি এতেই সবার সুবিধা হবে। ধন্যবাদ। 🙂

      • আমার মনে হয় মিঠু ভাই ঠিক বলেছেন।
        আমার মত হয়ত আরো অনেকে আছে যারা একেবারে প্রথম থেকে শিখতেছে।
        ধন্যবাদ মিঠু ভাই।

  2. ভাইয়া getch() এর ব্যাপারটা বুঝি নাই।

    • ধীরে ভাইয়া, এখন বুঝলে পরে গুবলেট হতে পারে। আমি ধারাবাহিকভাবে সবকিছুই বর্ণনা করব।

  3. মিঠু ভাই আপনার পোষ্টগুলো পড়ে প্রোগ্রামিং শেখার চেষ্টা। আমি কিন্তু প্রোগ্রামিং এ নতুন। ধন্যবাদ। 🙂

  4. সপ্তাহে দুইটা করে পোষ্ট দিলে কেমন হয়???? কি বলেন মিঠু ভাই!!!!! :-P:-P

    • আমার পোষ্ট তো প্রতিদিনই পাব্লিশ হচ্ছে। ছয় বিষয়ের উপর ছয়টি করে।

  5. @শাকিল ভাই- getch() হল লেখাটাকে উইন্ডোতে hold করানোর জন্য অর্থ্যাৎ আপনি enter না দেয়া পর্যন্ত উইন্ডোটা ইস্থির থাকবে।
    @মিঠু ভাই- চমৎকার টিউটোরিয়াল দিয়েছেন তবে প্রোগ্রামগুলো portable and standard হলে ভালো হত ধন্যবাদ। 🙂

  6. ভাইয়া আমার run করতে দিলেই error দেখায় আমি please আরো একটু বিস্তারিত জানতে চাই।

    • যেভাবে লিখা আছে ঠিক সেভাবে লিখুন। লেখার মাঝখানে কোনো স্পেস দেবেন না। এমনকি একটা সেমিকোলনও মিস করবেন না। যেমন,#include এবং #include এ কোনো স্পেস থাকবেনা। যেখানে ছোট হাতের লেখা আছে সেখানে ছোট হাতের লেখাই লিখতে হবে। সবকিছু ঠিকঠাক রেখে রান করুন।

  7. আমি এবার নতুন problem এ পড়লাম run দিলে দেখায় declaration syntax error আমি কি সব গুলো লাইন একিই লাইনে লিখব? আর main এর পর যে আক্ষর আছে ওটা কী O নাকি 0 ?:cry::cry:

    • সব লাইন একই লাইনে লেখা বা না লেখা একই কথা যদি প্রতিটি লাইন বা স্টেটমেন্টের পরে “;” দেয়া হয়। আর main এর পরে () অর্থাৎ ব্রাকেট দেয়া হয়েছে।

  8. ভাই আমার 4th line এ সমস্যা হচ্ছে। আমার declaration syntax error দেখানোর সাথে সাথে 4th line কে indicate করছে। মানে { এই চিহ্নের লাইনটিকে error হিসেবে গণ্য করছে। ভাই plz জলদি একটা solution দেন।

    • কারেকশানের সময় সি তে যে লাইনে এরর দেখানো হয় আসলে ঠিক সেই লাইনে এরর নাও থাকতে পারে, ঐ লাইনের কাছাকাছি লাইন যেমন ৩নং অথবা ৫ নং লাইনেও এরর থাকতে পারে।

  9. Thanx ভাইয়া আমি এবার মিলাতে পারলাম। আমার খুবই মজা লাগছে।

    • হে হে হে 😀 ভালো। আর বেশি ভালো যদি এরর আসে। কারণ, যত ভুল হবে, ততই শেখাটা ঝালাই হবে। 🙂 তাইএরর আসলে ঘাবড়ে যাওয়ার কিছু নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.