উবুন্টু ১০.১০ লুসিড লিংক্স থেকে স্প্ল্যাশ স্ক্রিনে প্লাইমাউথ ব্যবহার শুরু হয়। স্প্ল্যাশ স্ক্রিন হচ্ছে লগইন স্ক্রিন আসার আগে এবং শাট ডাউন হওয়ার সময় বেগুনী ব্যাকগ্রাউন্ডে উবুন্টুর যে লোগো দেখা যায় সেটি। এটি মূলত এক ধরনের থিম যেখানে হাই রেজুলেশন ছবি অথবা অ্যানিমেশন দেখানো সম্ভব। ইন্টারনেটে খুঁজলে অনেক উবুন্টু প্লাইমাউথ স্প্ল্যাশ স্ক্রিন খুঁজে পাওয়া যাবে। কিন্তু দুঃখের ব্যাপার হলো, এই প্লাইমাউথ থিম ডাউনলোড করলেও ইন্সটল করতে সাহায্য নিতে হয় বেশ কিছু কমান্ড লাইন অর্থাৎ টার্মিনালের।

আমার উবুন্টুতে থিম পরিবর্তনের সময় টার্মিনাল নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করতে হলেও কাজটি করে আমি মজা পেয়েছি। কিন্তু নতুন ব্যবহারকারীরা স্বাভাবিক কারণেই জটিল সব কমান্ড লাইন এড়াতে চান। যেহেতু কমান্ড লাইন ব্যবহার করেই স্প্ল্যাশ স্ক্রিনের থিম পরিবর্তন করতে হয়, তাই অনেক নতুন উবুন্টু ব্যবহারকারীই এতোদিন ডাউনলোড করলেও নতুন সব স্প্ল্যাশ স্ক্রিন অ্যাকটিভ করতে পারেননি।

কিন্তু উবুন্টুতে সবকিছুই দিনকে দিন সহজ ও দ্রুততর হয়ে আসছে। কেউ একদিন কল্পনাও করতে পারেনি সাধারণ মানুষ কোনো টেকনিক্যাল জ্ঞান ছাড়াই লিনাক্স ব্যবহার করতে পারবে। কিন্তু উবুন্টু তা করে দেখিয়েছে। এবার ডেভেলপাররাও থেমে নেই। উবুন্টুকে আরো সহজসাধ্য করে তুলতে নতুন নতুন অ্যাপ্লিকেশন প্রতিনিয়তই উবুন্টুকে করে চলেছে সমৃদ্ধ।

উবুন্টুর স্প্ল্যাশ স্ক্রিন পরিবর্তন করার জন্য অতি সম্প্রতি নতুন একটি সফটওয়্যার বের হয়েছে। একেবারেই নতুন হওয়ায় এর সুযোগ-সুবিধা কম। তবে নতুন থিম ইন্সটল করা বা থিম পরিবর্তন করার কাজে টার্মিনাল এড়াতে চাইলে জোরিন স্প্ল্যাশ স্ক্রিন ম্যানেজার একটি পারফেক্ট সফটওয়্যার।

ইন্সটল ও ব্যবহার

জোরিন স্প্ল্যাশ স্ক্রিন ম্যানেজারের ওয়েবসাইট থেকেই প্যাকেজটি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। এটি .deb ফাইল তাই ডাউনলোডের পর ডাবল ক্লিক করলেই ইন্সটল করতে পারবেন। ডাউনলোড করার সময় ৩২বিট অথবা ৬৪বিট কম্পিউটার সিলেক্ট করে ডাউনলোড করতে হবে।

zorin-download-installer

ইন্সটল করা সম্পন্ন হলে সিস্টেম > অ্যাডমিনিস্ট্রেশন > স্প্ল্যাশ স্ক্রিন ম্যানেজার থেকে সফটওয়ারটি চালু করুন।

zorin-menu

জোরিন স্প্ল্যাশ স্ক্রিন ম্যানেজার চালু হবে। জোরিন স্প্ল্যাশ স্ক্রিন ম্যানেজার খুব ছোট একটি উইন্ডোতে চালু হবে এবং অল্প কিছু অপশন দেখতে পাবেন সেখানে। মাত্র কিছুদিন আগে মুক্তি পাওয়ায় এটিতে এখনো অ্যাডভান্সড সুবিধাগুলো যোগ করা হয়নি। তবে স্প্ল্যাশ স্ক্রিন পরিবর্তনের কাজে এটি কার্যকরী।

zorin-main

স্প্ল্যাশ স্ক্রিন পরিবর্তন করার আগে লক্ষ্য করুন আপনার কম্পিউটারে নতুন কিছু স্প্ল্যাশ স্ক্রিন আগে থেকেই ডাউনলোড করা থাকতে হবে। আপনি ইন্টারনেটে খুঁজে অথবা এই ঠিকানা থেকে tar.gz ফরম্যাটের স্প্ল্যাশ স্ক্রিন ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

এবার ম্যানেজার থেকে ইন্সটল বাটনে ক্লিক করে tar.gz আর্কাইভটি দেখিয়ে দিন। থিমটি ইন্সটল হয়ে যাবে।

zorin-choose-plymouth-file

এরপর নতুন ইন্সটল হওয়া থিমটি অ্যাকটিভ করতে Change Default Theme বাটনে ক্লিক করে নতুন থিমটির ফোল্ডার থেকে .plymouth এক্সটেনশন যুক্ত ফাইলটি দেখিয়ে দিন। ব্যস, আপনার কাজ শেষ। এবার আপনি কম্পিউটার রিস্টার্ট করলেই নতুন স্প্ল্যাশ স্ক্রিনটি উপভোগ করতে পারবেন। এভাবে জোরিন স্প্ল্যাশ স্ক্রিন ম্যানেজার ব্যবহার করে আপনি যখন খুশি তখন এই স্ক্রিন পরিবর্তন করতে পারবেন।

লক্ষ্যণীয় বিষয়

  • নতুন সফটওয়্যার বলে জোরিন স্প্ল্যাশ স্ক্রিন ম্যানেজার দিয়ে নতুন থিম অ্যাকটিভ করার পর প্রিভিউ দেখা যায় না। প্রিভিউ দেখতে হলে কম্পিউটার রিস্টার্ট করতে হয়। কিন্তু টার্মিনাল দিয়ে ইচ্ছে করলে প্রিভিউ দেখা যেতে পারে। এজন্য নিচের কমান্ডগুলো পরপর দিনঃ
sudo plymouthd
plymouth --show-splash
প্রিভিউ বন্ধ করতে..
sudo plymouth quit
  • থিম ইন্সটল করার পর ডিফল্ট থিম পরিবর্তন করার সময় থিম ফোল্ডার খুঁজে পাবেন এখানেঃ File System/lib/plymouth/themes

আশা করি পোস্টটি নতুন উবুন্টু ব্যবহারকারীদের উপকারে আসবে এবং তারা উবুন্টু নিজেদের ইচ্ছেমতো সাজিয়ে নিতে পারবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here