বেশ কয়েক বছর ধরেই বাংলাদেশে বেশ কিছু গেমিং কনটেস্ট এর আয়োজন করা হচ্ছে আর সময়ের সাথে এর জনপ্রিয়তাও ধীরে ধীরে বাড়ছে। বিশেষ করে সিঙ্গাপুর এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ ২০১০ এ বাংলাদেশের হয়ে আরাফাত জানি (অন্তু) চীনকে হারিয়ে ফিফাতে ৩য় স্থান অধিকার করে ব্রোঞ্জ জেতার পরপরই গেমিং এ বাংলাদেশের সামর্থ্য ও সম্ভাবনাটা সবার সামনে পরিস্কার হয়ে ওঠে ফলে প্রতি বছরই টুর্নামেন্টের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ জয়ী আরাফাত জানি অন্তু
এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ জয়ী আরাফাত জানি

আমি নিজেও একজন গেমার এবং প্রায় সবকটি টুর্নামেন্টেই খেলেছি তাই শখের বশে যারা গেম খেলেন বা যাদের মাঝে সম্ভাবনা আছে কিন্তু টুর্নামেন্টগুলোর কথা জানেননা দেখে অংশ নিচ্ছেননা তাদেরকে টুর্নামেন্টগুলোর কথা জানাতেই মূলত এই পোস্টটি লিখছি। বাংলাদেশের গেমারদের জন্য প্রধান দুটি টুর্নামেন্ট হলো World Cyber Games বা WCG এবং Asian Championship। প্রায় প্রতি বছরই WCG এর National Round ছাড়াও স্কুল/কলেজ চ্যাম্পিয়নশপ কিংবা National Round এর পূর্বে ঢাকা ছাড়াও চট্টগ্রাম ও সিলেটের মত শহরে বেশ কিছু প্রস্তুতিমূলক টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়। WCG National Round এর বিজয়ীদের মূল পর্বে বিশ্বের বাকি দেশগুলোর বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ দেয়া হয়। তেমনি Asian Championship এর Selection Round এর বিজয়ীরাও বাংলাদেশের হয়ে এশিয়ার দেশগুলোর মুখোমুখি হয়। বিজয়ীদের বিদেশভ্রমনের সুযোগ তো থাকছেই সাথে থাকছে মেডাল ও অর্থসহ আরো অনেক অনেক পুরস্কার। মূল দুটি টুর্নামেন্ট ছাড়াও দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কিংবা স্থানীয়ভাবে আরো অনেক টুর্নামেন্ট আয়োজিত হয় যেমন সম্প্রতি IUT 3rd National ICT Fest এ বেশ বড়সড়ই একটা গেমিং কনটেস্ট হয়ে গেল।

world-cyber-games (2)

আর আগামী মাসের শেষের থেকেই শুরু হচ্ছে Bangladesh Club Cyber Gaming Championship যা স্পন্সর করছে Razer ও Friends Forever Media। সম্ভবত এটাই এই বছরের প্রথম বড় টুর্নামেন্ট হতে যাচ্ছে কারন এখন পর্যন্ত আর কোন টুর্নামেন্ট শুরুর ঘোষণা দেয়া হয়নি। তবে টুর্নামেন্টটি প্রথমে ৩১শে মে থেকে শুরু হবার কথা থাকলেও এ লেভেল পরীক্ষার কারনে ১মাস পিছিয়ে দেয়া হয়।  এটি অনুষ্ঠিত হবে ঢাকার মিরপুর ইনডোর স্টেডিয়ামে আগামী ৩১শে জুন থেকে ২রা জুলাই পর্যন্ত। টুর্নামেন্টটিতে মোট ৬টি গেইম থাকবে। গেইমগুলো হলো:

১। FIFA 11

২। NEED FOR SPEED: MOST WANTED

৩। DOTA: FROZEN THRONE

৪। COUNTER STRIKE SOURCE

৫। CALL OF DUTY 4 (COD-4)

৬। AOE II

45395605
মিরপুর ইনডোর স্টেডিয়াম

প্রতিটা গেইমের জন্যই আলাদাভাবে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে এবং রেজিস্ট্রেশন ফি হলো প্রতি গেমার ৩০০ টাকা। সকল রেজিস্টার্ড গেমারকে ১টি টিশার্ট, ১টি ব্যাগ ও ১টি ক্যাপ দেয়া হবে। এই প্রতিযোগাতার বিজয়ীদের জন্য থাকছে আকর্ষনীয় পুরস্কার। প্রতিটা গেইমের ১ম পুরস্কার বিজয়ী পাবেন ২০,০০০ টাকা, ২য় পুরস্কার বিজয়ী পাবেন ১০,০০০ টাকা, ৩য় পুরস্কার বিজয়ী পাবেন ৫,০০০ টাকা, ৪র্থ পুরস্কার বিজয়ী ৩,০০০ টাকা এবং ৫ম পুরস্কার বিজয়ী পাবেন ২,০০০ টাকা। তাছাড়া প্রথম দশজনকেই দেয়া হবে আকর্ষনীয় মেডাল। আর বোনাস হিসেবে থাকছে স্পন্সরদের দেয়া পুরস্কার যা শুধু ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অধিকারীদের দেয়া হবে। প্রতিটা গেইমেরই নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম রয়েছে যেসব ভঙ্গ করলে ম্যাচ বাতিল সহ গেমারকে বহিস্কারও করা হতে পারে। সবগুলো গেইমের আলাদভাবে নিয়ম ও বিস্তারিত জানতে বাংলাদেশ ক্লাব সাইবার গেমিং চ্যাম্পিয়নশিপের অফিশিয়াল ফেসবুক ইভেন্ট পেইজটার ইনফো থেকে ঘুরে আসতে পারেন: Bangladesh Club Cyber Gaming Championship Powered By Razer™

যেহেতু এর রেজিস্ট্রেশনের তারিখ ও জায়গা এখনো নির্ধারন করা হয়নি তাই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করতে ইচ্ছুক হলে এবং রেজিস্ট্রেশনের তারিখসহ সর্বশেষ তথ্য জানতে চাইলে ইভেন্টটিতে “Attending” দিয়ে রাখতে পারেন। তাছাড়া এই টুর্নামেন্টের একটি অফিশিয়াল ওয়েবসাইটও খোলা হচ্ছে: www.ffmediabd.com

ওয়েবসাইটটি তৈরির কাজ এখনো শেষ হয়নি। সম্ভবত রেজিস্ট্রেশনের তারিখ ঘোষণার কিছুদিন আগেই ওয়েবসাইটটি পুরোপুরি চালু করা হবে। তাই এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করতে চাইলে গেমাররা এখন থেকেই এর ইভেন্ট পেইজ ও ওয়েবসাইটে চোখ রাখা শুরু করুন। আর যেহেতু আমি মিরপুরেই থাকি তাই অনাকাঙ্খিত কিছু না ঘটলে আমি অবশ্যই অংশগ্রহন করছি, তাহলে দেখা হবে মিরপুর ইনডোর স্টেডিয়ামে 😉

comments

34 কমেন্টস

  1. ভাই এত্ত সুন্দর একটা পোস্ট!!!! আমি রাজশাহীতে। জয়েন করতে পারবনা :'( আমি NFS MOST WANTED এ ১০০% কভার করা প্লেয়ার। আমার কোনো ফ্রেন্ডই আমাকে হারাতে পারেনি। খুব ইচ্ছা ছিল 🙁

    যাই হোক, ধন্যবাদ ভাইয়া 🙂

    • ভাই পুলিশ নিয়ে গুতাগুতি করেন কীভাবে? আমি প্রতিটি ব্ল্যাকলিস্ট মেম্বারের সঙ্গে খেলতে গেলে আটকে যাই কেবল মাইলস্টোনগুলোতে। ৭৫০০০ বাউন্টি, ৬টি রোডব্লক ডজ এসব করতে করতে কন্ডিশন ৩ বা ৪ হয়ে যায় তখন আর পালাতে পারি না। :cry::cry: কী করবো বলে দেন। 🙁

      আমি ব্ল্যাকলিস্ট মেম্বার ৮-কে হারিয়েছি পরশু। এখন তার গাড়িটা নিয়ে ঘুরাঘুরি করি। 😉

      • ব্ল্যাকলিস্ট ৬ পর্যন্ত যান আগে। মিং এর গাড়ি পাবেন। ওইডাই বস জিনিস (আমার কাছে)। আর কোনো গাড়ি কিনা লাগবেনা। আর গাড়ির পারফরমেন্স আপডেট করবেন। রঙ, চেসিস ইত্যাদি চেঞ্জ করলে গাড়ি ভারী হয়ে যায়।

        টাকা জমাতে থাকেন। দরকার হলে ছোট্ট ছোট্ট ইভেন্ট খেলতে থাকেন। একবারেই যে ৭৫০০০ বাউন্টি, ৬টা মাইলস্টোন আর ১০ টা পুলিশ এর গাড়ি ভাঙ্গা লাগবে তা না। অল্প অল্প করে আগাতে থাকেন। আর ধরা পড়ে গেলে জেইল পাস ব্যাবহার করুন। টাকা দিয়ে ছাড়াবেন না। তাহলে হিট কমে যাবে। হিট কমে গেলে (১/২ এ নেমে গেলে) বাউন্টি উঠে দেরীতে। আর ইনফ্র্যাকশান কমপ্লিট করলে বেশি বাউন্টি উঠবে।

        • ৫০০০ বাউন্টি, ৬টা মাইলস্টোন আর ১০ টা পুলিশ এর গাড়ি ভাঙ্গা লাগবে একেবারেই। এটা ব্ল্যাকলিস্ট মেম্বার ৭ এর মাইলস্টোনে আছে। আর মিং এর বোনাস থেকে যে পিঙ্ক স্লিপটা পাবো তার নিশ্চয়তা কী? 🙁

          • আরে না। এক পারসুইটেই করতে হবে তা না। আপনি প্রথমে দৌড়াদৌড়ী করে বাউন্টি তুলুন। হয়ে গেলে সেফ হাউজে চলে যান। তারপর ১/২টা পুলিশ ডেকে মাইলস্টোন ভেঙ্গে ফেলুন। আবার সেফ হোম। 😀 অবশ্য একবারেই সব কাজ করার মজাই আলাদা। কিছু জাইগা আছে যেখানে সারাদিন বসে থাকলেও পুলিশ ধরতে পারবেনা কিন্তু বাউন্টি বাড়তেই থাকবে। আমি সর্বোচ্চ ৪৯ মিনিট ছিলাম। 🙁

          • আমি প্রথমবার গেম শেষ করার সময় সবার পিঙ্ক স্লিপ পেয়েছিলাম (রনি ছাড়া)।

            ২য় বারে কারোরটাই পাইনি :'(

        • আর আপনি ৬৯ নং চ্যালেঞ্জ শেষে পালালেন কী করে? 😮

        • শাওন ভাই কী Auto দিয়ে খেলেন ?? প্রফেশনাল গেমাররা কিন্তু Manual এ খেলে, হাজার চেষ্টা করলেও ওদের টাইমিং টপকাতে পারবেননা Auto তে খেললে !

          • রাহাত ভাই এটাই প্রথম গেম যেটা পিসি কিনার পরই পেয়েছিলাম। ডিফল্ট এ যা ছিল তাইই খেলেছি। মারাত্নক সত্য কথা যে ম্যানুয়ালে খেলে অনেক সুবিধা। কিন্তু পরে আর করা হয়নি 🙁

    • ভাই রাজশাহী থাকলে কী হয়েছে ? চলে আসেন ! অনেকে চট্টগ্রাম, সিলেট থেকেও আসে WCG National Round খেলতে !
      আর আপনাকেও ধন্যবাদ। 🙂

      • সামনে সপ্তাহ থেকে ক্লাস টেস্ট। এমনিতেই পড়া করিনা, গেলে তো … :|:|

  2. মোস্ট ওয়ান্টেডটা ২০০৫ সালের গেম আর আমি এটা খেলাই শুরু করলাম ২০১১ তে। 🙁 এই দুঃখ রাখি কই। দেখা যাবে এই গেমটা হাত করতে করতে ডব্লিউসিজি অন্য একটা ভার্সন সিলেক্ট করে ফেলেছে। 🙁

    • মোস্ট ওয়ান্টেড আরো কিছুদিন থাকতে পারে। নতুনগুলোতে ল্যানে সমস্যা করে, তাই আপাতত মোস্ট ওয়ান্টেডই চলবে।

  3. ভিন্ন ধারার পোস্ট…………….আনেক তথ্য পেলাম………….রাহাত ভাই ধন্যবাদ

  4. রাহাত ভাল খরব। তুমি রেজি.. করার আগে আমাকে একটু জানিত্ত। fb তে।
    আমিত্ত জয়েন করব। ধন্যবাদ তথ্যটি দেত্তয়ার জন্য।

  5. প্রথমবারের মত পার্টিসিপেট করবো কিনা ভাবছি…. 🙂 most wanted ১২% কমপ্লিট করেছি!!! [বিরাট সাফল্য!! :P]

  6. bus stop e gea ramp er upor uthe jan.then bounty ar dekhte hobena!!!even 7 lakh korao kono bapar na.pink slip pate hole sob somoy marker select korar somoy prothom ta ar 3rd ta select karon.obosso pink slip paben.age prothom ta korte hobe.

  7. এত কিছুর মধ্যে শুধু call of duty ও need for speed ই পরিচিত
    ইচ্ছা থাকলেও যেতে পারলাম না ।সুন্দর একটা পোষ্ট হইছে ধন্যবাদ

  8. AOE আমার একটা অপছন্দের গেম
    ফিফা টা ভালো লাগে

  9. কম্পিউটার গেমস এর মধ্যে আমি NFS খেলা অনেক পছন্দ করি। কিন্তু আমার পিসির কনফিগার আপডেট না। আমার পিসিতে Underground 1 পর্যন্ত খেলা যায়। পরের ভার্সনগুলো কি কনফিগের জন্য , না ইনস্টলের সমস্যার জন্য হয় না তা বলতে পারি না। কিন্তু আমি কার্বন, প্রতিযোগিতায় দেয়া মোস্ট ওয়ান্টেড এসব নতুন ভার্সনের গেম খেলতে চাই।
    আমার পিসির কনফিগ দিচ্ছি। কত কম টাকা খরচে, কি কি বাড়িয়ে আমি এসব ভার্সন খেলতে পারব,জানালে খুব উপকৃত হত।
    OS: XP 2
    CPU: Dual Core 1.6 GHz
    RAM: 1 GB
    Motherboard: Gigabyte
    Graphics: Memory-built in 512MB, type-2
    Hard disk: 160 GB
    Monitor: HP 19 inch

    • এটা খেলতে যায়গা লাগে ২.৮ গিগা। তাই ডিস্ক কত সেটা ফ্যাক্ট না আপাতত। আপিনি প্রসেসর আপডেট করেন। কোর ২ ডুও নেন। এখন তো ২.৯৩ গিগাহার্টজ এর পাওয়া যায়, দাম বেশিনা। এক্সপি তে খেলার জন্য র‍্যাম ঠিকই আছে। সমস্যা যেটা হবে তা হল ভিডিও মেমরি। আমার বিল্ট-ইন কার্ডে বেশ ভালোই চলে কারণ G41 চিপসেট। পারলে একটা গ্রাফিক্স কার্ড কিনেন, তাহলে গেম খেলা আর রিচ অ্যাপ্লিকেশান চালানো নিয়ে ভয় থাকবেনা।

      • আপনাকে অনেক ধন্যবাদ শাওন ভাইয়া। আমার মনে হয় প্রসেসর পরিবর্তন করলে হবে। আমার চিপসেটও G41। যাই হোক, আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আরেকটা সাহায্য করলে খুশি হতাম, আমি underground 1 এর drug টা বুঝি না,শুধু circuit খেলি। drug জিনিসটা কিভাবে খেলতে হয় একটু বুঝিয়ে দিলে ভাল হয়। যতবার খেলি আমার চাকা পাংচার হয়ে যায়। ভাল থাকবেন।

        • হুম। ড্র্যাগ রেস হল কারো সাথে ধাক্কা না লাগিয়ে সবার আগে শেষে পৌঁছাতে হবে। শিফট আপ করতে হবে ঠিক যখন গিয়ার উঠবে। আর এই রেস এ গাড়ি অটো ডানে বামে ঘুরে। তবে মাঝে মাঝে ডান না বাম কোনটায় গেলে ধাক্কা লাগবেনা তা হিসাব করে লেফট বা রাইটে যেতে হবে। মাত্র ৩০-৫০ সেকেন্ডের এই রেসে অনেক মজা আছে, 🙂

    • I think you need an PCI Express AGP. You don’t need to update your Processor.
      (Graphics: Memory-built in 512MB, type-2)
      Built-in Graphics doesn’t support Direct3d acceleration. I played that in P4 processor.

  10. ভাই রে, চোর পালালে বুদ্ধি বারে আজকে এই কথাটার আবার প্রমান পেলাম । আমাকে Fifa 11 এর Master বলতে পারেন। আর Mostwanted এর কথা নাই বা বললাম। আপনার এত সুন্দর পোস্টটা পরলাম আজকে !!!!! আর একদিন আগে কেন এই post টা পরলাম না……………।। 😥 এখন আগামি tournament আশা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে…… যাই হোক, আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.