শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন ছাত্র মিলে তৈরি করে দেখিয়েছে একটি অত্যাধুনিক ড্রন। যার মাধ্যমে তাঁরা ভিডিও করে দেখানোর চেষ্টা করেছে যে, কিছুদিন আগে যে শ্যালা নদীতে একটি তেল বাহী ট্রলার ডুবে কি পরিমান ক্ষতি হয়েছে সুন্দরবনের তার আসল চিত্র

এর আগেও সেখানে অনেক দেশী বিদেশি টিম গিয়েছে বনের ক্ষয়ক্ষতির পরিমান হিসেব করার জন্য। তবে ড্রন নিয়ে এরাই প্রথম। আমি বলবো উদ্যোগটা সত্যি অসাধারণ এবং অবশ্যই প্রশংসনীয়। চলুন এবার ক্ষুদে বিজ্ঞানিদের মুখে শোণা যাক তাঁরা কি বলে।

10624807_10203232107425724_3509837266369172789_n

তাদের টিম লিডার সৈয়দ রেজওয়ানুল হক নাবিল বলেছেন, আমরা সবসময় চাইতাম ড্রোন যেন শুধু উড়ানো নয় বাস্তবে যেন এটির কার্যকর ব্যবহার করতে পারি। আর ঠিক এই চিন্তা থেকেই আমারা সুন্দরবনে যাওয়ার কথা ভাবি। আমাদের টিম “সাস্ট ড্রোন টিমের” সদস্যরা গত কয়েকদিন ধরেই সুন্দরবনের উপর কয়েকদফায় অটোনোমাস এবং ম্যানুয়াল ড্রোন মোতায়েন করি । এ সময় আমরা সুন্দরবনের কিছু এরিয়াল ভিডিও ও ম্যাপিং এর কাজ করি। তবে দুর্ভাগ্যর বিষয় হল আমরা সেখানে ট্যাংকার ডুবির কয়েকদিন পরে পৌঁছানোয় খুব বেশি পরিবেষ বিপর্যয়ের ছবি ওঠাতে সক্ষম হইনি। তাছাড়া সেখানকার আবহাওয়া ছিল আমাদের প্রতিকূলে। খুব বেশী দমকা হাওয়া সাথে সাথে নৌকা থেকে ড্রনকে ওড়ানো এবং আবার ল্যান্ড করানো খুব কঠিন হয়ে দাড়ায়। তারপরেও আমারা সফল ভাবে সেটি করতে পেরেছি। আপনারা আমাদের করা ভিডিওটি দেখলেই বুঝতে পারবেন।

তাদের টিমে নাবিল ছারা আরও চারজন ছিল যেমন, মারুফ হোসেন, রাহাত, রবি কর্মকার, আখলাকুজ্জমান আশিক ও ওমর ফারুক তোহা।

কিভাবে তাঁরা ড্রনটি সুন্দরবনের ওপর দিয়ে ওড়ালো। দেখুন তাদের তৈরি করা প্রথম ভিডিওতে-

সূত্রঃ নাবিল

comments

3 কমেন্টস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.