আকাশচুম্বী জনপ্রিয়তার অধিকারী ফেইসবুক ব্যবহার করছেন প্রতিদিন। শত শত বন্ধুর সাথে যোগাযোগ করে চলেছেন প্রতিনিয়ত। একদিন ফেইসবুকে না ঢুকলে ভালো লাগে না। তবে আশংকার বিষয় হলো ফেইসবুক যেকোন সময় বিনা নোটিশে আপনার এই সখের একাউন্টটি বন্ধ করে দিতে পারে।

2010-06-30_015250

আর তাই আমাদের সবারই সতর্ক থাকা উচিত এবং জানা থাকা উচিত যে সকল কারনে একটি ফেইসবুক একাউন্ট ব্যান হতে পারে। এই পোস্টে ফেইসবুক একাউন্ট ব্যান হওয়ার অন্যতম কিছু কারন নিয়ে লিখছি।

পর্নগ্রাফীঃ

এটি ফেইসবুক একাউন্ট ব্যান হওয়ার একটি অন্যতম প্রধান কারন। আপনার ফেইসবুক প্রোফাইল বা অন্য কোথাও আপনি যদি এই ধরনের কোন ছবি বা ভিডিও ব্যবহার করেন, তাহলে ফেইসবুক আপনার একাউন্ট ব্যান করবে কোন এবিউজ রিপোর্ট অথবা নোটিশ ছাড়া।

ভাষার অপব্যবহারঃ

স্টাটাস আপডেট অথবা ম্যাসেজ আদান-প্রদান এর সময় আপনার ভাষার প্রতি খেয়াল রাখতে হবে। বাজে ভাষা ব্যবহার করলে আপনার ফ্রেন্ড লিস্টে থাকা কেউ আপনার নামে রিপোর্ট করতে পারে এবং ফেইসবুক একাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

ভূয়া প্রোফাইলঃ

আপনি যদি আপনার নিজের নামের বদলে কোন সেলিব্রেটি অথবা অন্য কারও নাম ব্যবহার করেন, তাহলে আপনার একাউন্ট বন্ধ করা হবে খুব তাড়াতাড়ি।

হুমকি দেয়াঃ

কাউকে হুমকি দেয়ার জন্য কখনোই আপনার ফেইসবুক একাউন্ট ব্যবহার করবেন না। এমনকি মজা করার জন্য হলেও না। ফেইসবুক এই বিষয়টি খুব গুরুত্বের সাথে নেয় এবং খুব দ্রুত একাউন্ট সাসপেন্ড করে দেয়।

স্প্যামিং করাঃ

শুধু ফেইসবুক না, পুরা ইন্টারনেট জগত এটিকে ঘৃনা করে। আপনার পন্য বা ওয়েব সাইট প্রোমোট করার জন্য ফেইসবুক একাউন্ট ব্যবহার না করাই ভালো। তবে একটি নির্দিস্ট সীমা পর্যন্ত এটি করা যেতে পারে যেটি স্প্যামিং এর পর্যায়ে পড়ে না।

অতিরিক্ত বন্ধু রিকোয়েস্টঃ

প্রতিদিন ২০টির বেশি ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠাবেন না। যত কম হয় ততই ভালো। ফেইসবুক একাউন্ট বন্ধ হবার এটি আরেকটি অন্যতম কারন।

অনেক গ্রুপে জয়েন করাঃ

খুব বেশি গ্রুপে জয়েন না করাই ভালো। ফেইসবুক এটি ভাল চোখে দেখে না। আর গ্রুপগুলো থেকে ম্যাসেজ এসে আপনার ইনবক্স ভর্তি হয়ে যাবে প্রতিদিন।

অতিরিক্ত ম্যাসেজঃ

আপনি যদি আপনার বন্ধুদের ওয়াল অথবা ইনবক্সে প্রতিদিন অনেক বেশি ম্যাসেজ পোস্ট করেন, তাহলে আপনার ফেইসবুক একাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে। আর একই ম্যাসেজ বার বার দিতে চাইলে সেখানে কিছুটা পরিবর্তন করে দিন। নাহলে ফেইসবুক এটি স্প্যাম হিসেবে ধরবে।

মূলত ফেইসবুক ব্যবহারের সময় এই বিষয়গুলোর দিকে একটু খেয়াল রাখলে আপনার ফেইসবুক একাউন্ট ব্যান হওয়ার কোন আশাংকা থাকবে না। আর ফেইসবুক ব্যবহারও হয়ে উঠবে মজার ও সাচ্ছন্দময়।

comments

22 কমেন্টস

  1. আমার অভিজ্ঞতা আছে । ৩ বার ফেসবুক একাউন্ট ব্যান হইছে ।

    অনেক কষ্টরে

  2. ধন্যবাদ।
    আমার ফেইসবুক একাউন্ট কয়েকদিন আগে মুছে দিয়েছে। তবে, জানামতে উপরের একটা কারণের সাথেও মিলেনি। সম্ভবত, কেউ কম্পলেন করেছিল…

  3. বেশ কিছু নতুন তথ্য জানলাম। যদিও এসব ব্যাপারে আগে থেকেই সতর্ক ছিলাম, এখন আরও বেশি থাকব! 😀
    ধন্যবাদ ভাইয়া।

      • আপনাকেও ধন্যবাদ 😛
        রাব্বী ভাইয়া মোবাইলে ফেসবুক ব্যবহার করে, মোবাইলেই বাংলা লেখে। ফেসবুকে শেয়ার করেছিলাম, মোবাইলেই দেখেছে পোস্টটা। ওয়ার্ডপ্রেস মোবাইলে লেখকের নাম আসেনা, তাই লেখকের নামটা আর দেখেনি। এটা আসলেই একটা সমস্যা 🙁
        মোবাইল ওয়ার্ডপ্রেসে পোস্টগুলোতে লেখকের নাম উল্লেখ করা উচিৎ ছিল 🙁

  4. “আপনি যদি আপনার বন্ধুদের ওয়াল অথবা ইনবক্সে প্রতিদিন অনেক বেশি ম্যাসেজ পোস্ট করেন, তাহলে আপনার ফেইসবুক একাউন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে।”

    —এইটা জেনে একটু দুশ্চিন্তায় পড়ে গেলাম ভাইয়া। 🙁

  5. সতর্কতামূলক পোষ্টের জন্য ধন্যবাদ

  6. অনেক ভালো লাগলো । আমার প্রথম একাউন্ট টি কি কারনে ব্যান হয়েছিল আজ বুঝতে পারলাম ।
    আপনাকে অনেক ধন্যবাদ ।

  7. ভাইয়া আমার একটি ফেইসবুক একাউন্ট টেমপোরোয়ারী লক দেখাচ্ছে আমি এখন কি করতে পারি
    melonsikder666@gmail.com
    password:-01725968330

  8. donnobad vai apnake.facebook’e maje maje kisu baje lok aje baje cobi post kore.egulo theke potikar ki.and otirikto grup jodi joine kore feli ta hole egulo dilet ki vabe korbo.pllls

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.