আপনি নতুন একটি যন্ত্র কিনলেন। হোক সেটি একটি নতুন মোবাইল কিংবা একটি হেডফোন- প্রথমেই আমরা যে জিনিসটি নিয়ে ভাবি তা হচ্ছে, জিনিসটি কতদিন টিকবে। কেউ কেউ হয়ত বন্ধুর মাসের পর মাস দিব্যি চলতে থাকা হেডফোন দেখে হাঁ হুতাশ করতে থাকেন, আবার কেউ বা প্রতি সপ্তাহান্তেই একটি করে নতুন হেডফোন কিনে থাকেন। যাই হোক না কেন, নিজেদের গাঁটের পয়সায় কেনা গ্যাজেটটি একটু বেশিদিন টিকিয়ে রাখবার জন্য মানুষ নানা ধরণের সাবধানতা অবলম্বন করে থাকে। কোন কোন গ্যাজেট কেনা হতে বিরত থাকবেন, তা নিয়ে কিছু টিপস আজ আপনাদের দেয়া হলঃ

১) কমদামী হেডফোনের দিকে ঝুঁকবেন নাঃ
ফার্মগেটের ওভারব্রিজ কিংবা রাস্তার পাশ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন। হঠাৎ দেখতে পেলেন এক বিক্রেতা তার পসরায় সাজিয়ে রেখেছেন নানা রং বেরং এর হেডফোন, ইয়ারফোন। তা দেখে আপনি লোভ সংবরণ করতে পারলেন না। কিনে ফেললেন কমদামী দারুণ দেখতে একটি ইয়ারফোন। কিন্তু কয়েকদিন পরই দেখা গেল এক কানে শব্দ শুনতে পাচ্ছেন কিন্তু অপরকানে শব্দ আর আসছে না। হঠাৎ করেই সাধের কেনা ইয়ারফোনটি নষ্ট হয়ে গেল। পুরো টাকাটাই কিন্তু গেল গচ্চা।
তাই দেখেশুনে বাজার থেকে একটু দাম দিয়ে হলেও ভালো দেখে একটু হেডফোন কিনুন এবং নিশ্চিন্ত থাকুন। এক্ষেত্রে মাইক্রোল্যাব, অমনিকন ইত্যাদি কোম্পানীর হেডফোনের ওপর আস্থা রাখতে পারেন।

হেডফোন কিনুন দেখেশুনে
হেডফোন কিনুন দেখেশুনে

২) মোবাইল কিনুন দেখে শুনেঃ

নানা ধরণের অ্যাপ, ঝকঝকে ছবি, ফেসবুক, ব্রাউজিং ইত্যাদি ব্যবহার করবার জন্য শখ করে একটি মোবাইল কিনেছেন। কিন্তু কয়েকদিন পরই মোবাইল গেল নষ্ট হয়ে, ব্যাটারী আর কাজ করছে না কিংবা মোবাইলের বাটন কিংবা টাচপ্যাড হয়ে গেল অচল। পুরো মোবাইলটাই কিন্তু নষ্ট হয়ে গেল।
এজন্য খুব দামী না হোক, অন্তত আস্থাযোগ্য একটি মুঠোফোন কিনুন এবং ব্যবহার করুন নিশ্চিন্তে। বাজারে নানা ব্র্যান্ডের লোগো নকল করে দেদারসে চাইনিজ ফোন বিক্রি হয়। কমদামী দেখে অনেকে এই ফোনগুলোর দিকে ঝুঁকে যায় কিন্তু আখেরে তা খুব বেশিদিন কাজ করে না। পুরো টাকাটাই যায় জলে।

৩) মোবাইলের আনুষঙ্গিকের প্রতিও নজর দিনঃ
বেশ দামী দেখে একটি মোবাইল কিনলেন। ব্যবহারেও আপনি বেশ সন্তুষ্ট। তাতেও কিন্তু আপনার কাজ শেষ হয়ে যায় না। মোবাইলের পরিচর্যার কাজটিও কিন্তু আপনাকে করতে হবে। এক্ষেত্রে যেটি সবচাইতে বেশি প্রয়োজন তা হচ্ছে মোবাইলের চার্জার। শুনে অবাক লাগলেও এটিই কিন্তু সত্য। নানা রিপোর্টে উঠে এসেছে সঠিক চার্জার ব্যবহার না করবার ফলে মোবাইলের নানা ধরণের ক্ষতি হয়ে থাকে। ব্যাটারী অভ্যন্তরে সমস্যা দেখা দেয় যার ফলে মোবাইলটি ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে থাকে। তাই মোবাইলের চার্জারটিও কিনুন দেখে শুনে।

চার্জারও কিন্তু কম গুরুত্বপূর্ণ নয়
চার্জারও কিন্তু কম গুরুত্বপূর্ণ নয়

সূত্রঃ Gadgettricks.com

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.