কিছু উপায় অবলম্বন করলেই কমানো সম্ভব মোবাইলের নেটের বিল

আজকাল বেশিরভাগেরই দিনের অনেকটা সময় ব্যয় হয় ইন্টারনেটে।কখনও জরুরি কোনো কাজে কখনও শুধু বিনোদনের জন্য ইন্টারনেট ব্রাউজিং করি।নেট ব্রাউজিং এর বেশিরভাগই হয় সাধারণত স্মার্টফোনে।

স্মার্টফোনে নেট ব্রাউজিং এর সুবিধা যেমন আছে, তেমন আছে অসুবিধাও।বেশির ভাগ সময়ই দেখা যায় স্মার্টফোনে নেট ব্রাউজিং এর সময় প্রচুর ডাটা কাটে ফোন কোম্পানিগুলো।ফলে নেটের বিল গুনতে গুনতে পকেট ফাঁকা! আসুন জেনে নেওয়া যাক কী করলে কমবে মোবাইলের নেট বিল—

১. প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে নিজের স্মার্টফোনের ডাটা খরচের হিসেব রাখুন।‘অন’ করে রাখুন ডাটা ট্র্যাকিং।

২. আইওস-এ বিল্ট ইন ডাটা ইউসেজ ট্র্যাকার থাকে।সেটিংস অপশনে গিয়ে দেখে নিন কোন অ্যাপস  সব থেকে বেশি ব্যাকগ্রাউন্ড ডাটা খরচ হয়েছে।বুঝেশুনে সেই অ্যাপসের ব্যাকগ্রাউন্ড ডাটা ‘ডিসেবল’ করে দিন।

৩. স্মার্টফোনে ইনস্টল করুন অনাভো কাউন্ট অ্যাপসটি।তারপর কারেন্ট ডাটা প্ল্যানটির সমস্ত তথ্য দিন।এই অ্যাপসটি আপনার ডাটা খরচকে ট্র্যাক করবে ও আপনাকে নিয়মিত রিপোর্ট দেবে।

৪. অ্যান্ড্রয়েড এবং  আই ও এস ফোনের জন্য ইনস্টল করুন মাই ডাটা ম্যানেজার অ্যাপটি। শুধু ফোনে নয়, মাল্টিপল ডিভাইসেও যদি ওয়াই-ফাই ও থ্রিজি ব্যবহার করেন, তাহলে এই অ্যাপসটি আপনাকে ডাটা ইউসেজের হিসেব রাখতে সাহায্য করবে।

৫.  ভিডিও চ্যাটিং বা বড় অ্যাপস ডাউনলোড করার সময় ফোনের ইন্টারনেট বন্ধ রেখে ওয়াই-ফাই ব্যবহার করুন।

৬. তবে খরচ কমানোর সবচেয়ে ভালো উপায়টি হলো অপ্রয়োজনে ডাটা কানেকশন চালু না করা।

তথ্যসূত্রঃইন্টারনেট

 

comments

কোন কমেন্ট নেই

LEAVE A REPLY

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.