ফেসবুকঃ কতটা মানসিক শান্তি যোগায় আপনাকে?

“ফেসবুকে অধিক ঘোরাফেরা আপনার মনকে নষ্ট করে দেয়”- ভয়ংকর অথচ বাস্তব এই কথাটি মনগড়া কোন কথা নয়। এটি বলছে ডেনমার্কের একটি গবেষণা সংস্থা। তাদের একটি জরিপে পাওয়া তথ্যমতে তারা বিবিসিকে এটি জানিয়েছে।

তাদের এক সপ্তাহের একটি জরিপে দুটি ক্যাটাগরী অনুযায়ী একটি ট্রায়ালের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। এই ট্রায়ালে প্রথম ক্যাটাগরীর মানুষরা সাতদিন কোনরকম ফেসবুক ব্যবহার করতে পারে নি এবং দ্বিতীয় ক্যাটাগরীর মানুষ তাদের অভ্যাসমত ফেসবুক ব্যবহার করবে।

প্রথম ক্যাটাগরীর মানুষকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল এই এক সপ্তাহে ফেসবুক ব্যবহার না করার ফলে তাদের মাঝে কি ধরণের পরিবর্তন এসেছে। গবেষকরা আরো দুই ধরণের ক্যাটাগরী নিয়েছিলেন। এরা হচ্ছেন, যারা অরিরিক্ত মাত্রায় ফেসবুকে আসক্ত ও যারা কিছুটা কম মাত্রায় ফেসবুকে আসক্ত।

গবেষণায় দেখা যায় যে, যারা অত্যধিক মাত্রায় ফেসবুক ব্যবহার করে, তাদের সন্তুষ্টির হার অনেক বেশি। তারা ফেসবুকের ভার্চুয়াল জগত ছেড়ে বাস্তবের জগতে আরো বেশি মনোযোগী হতে পেরেছেন। হান্না রড্রিকস নামের এক ছাত্রী বলেন, “যাদের জন্মদিনে আমি একটি ওয়াল পোস্ট দিয়ে সেরে ফেলতাম, এই সাতদিন আমি তাদের বাড়িতে গিয়ে পরিবারের সাথে জন্মদিন সেলিব্রেট করেছি। এতে বন্ধনটি অবশ্যই আরো দৃঢ় হয়।”

গবেষকেরা বলেন যে, ফেসবুক মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহার করার ফলে একজনের মাঝে অপরের জন্য হিংসা বেশি তৈরি হয়। নানা ধরণের চেক-ইন, খাবারের ছবি, বন্ধুদের সাথে ছবি ইত্যাদি দেখে তার নিজের মধ্যে এক ধরণের ঈর্ষা ও একাকীত্ব সৃষ্টি হয়। এটি মানসিকভাবেও নানাদিক থেকে পর্যুদস্ত করে ফেলে। তাই “ওয়েলবিয়িং” নামের এই ড্যানিশ প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞানী রুডলফ বলছেন,

“সামাজিক মাধ্যম অবশ্যই দরকার আছে। তবে তা পারিবারিক বন্ধন ছিন্ন করে নয়।”

 

সূত্রঃ nhs.uk

 

 

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.