যুদ্ধক্ষেত্রে আহত সৈনিকদের অনেকেই মারা যায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরনের ফলে। রক্তক্ষরন বন্ধে বর্তমানে ব্যবহৃত পদ্ধতি যতেস্ট সনাতন এবং খুব একটা কার্যকর নয়। আর তাই দীর্ঘদিনের গবেষনার পর বুলেটের ক্ষত থেকে রক্ত বন্ধ করার এক অভিনব পদ্ধতি আবিস্কার করেছেন গবেষকরা আর এই পদ্ধতিতে মাত্র ১৫ সেকেন্ডে বড় ধরনের ক্ষত থেকে রক্ত বন্ধ করা সম্ভব।

রক্ত বন্ধের নতুন পদ্ধতি

নতুন এই পদ্ধতিতে ব্যবহার করা হবে সয়ংক্রিয়ভাবে বৃদ্ধিপ্রাপ্ত মেডিক্যাল স্পঞ্জ। যদিও এর আগে ফোম স্প্রে করে রক্ত বন্ধ করার একটি প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করেছিলেন তারা তবে সেটি সফলকাম হয়নি। রক্তের বেগ যথেস্ট বেশি থাকার কারনে স্প্রে করা ফোমের স্থায়িত্ব রক্ষা করা সম্ভব হোত না। এ ব্যপারে একজন গবেষক বলেন,

“That’s what we pictured as the perfect solution: something you could spray in, it would expand, and bleeding stops. But we found that blood pressure is so high, blood would wash the foam right out.”

আর তাই ফোমের বদলে এবার তারা বেছে নিয়েছেন স্পঞ্জ। এই বিশেষভাবে তৈরি এই ফোম ক্ষতস্থানে দিলে সেটি নিজে নিজেই বৃদ্ধিপ্রাপ্ত হয়ে স্থানটি ভরিয়ে দিবে যার ফলে রক্ত পড়া বন্ধ হয়ে যাবে।

বিভিন্ন আকৃতির ক্ষতস্থানের কথা মাথায় রেখে ৩০ মিলিমিটার এবং ১২ মিলিমিটার আকৃতির স্পঞ্জ তৈরি করা হয়েছে। নতুন এই উদ্ভাবনটি যুদ্ধক্ষেত্রে অনেক সৈনিক এর প্রান বাঁচাবে বলে তারা আশা করছেন।

comments

8 কমেন্টস

  1. এই আবিষ্কার বাংলাদেশের সংগ্রমী মিছিল মিটিংকারিদের জীবন রক্ষায় চরম কাজে আসবে|

    • নাহ। প্রাথমিকভাবে কয়েক মিনিট বা কয়েক ঘন্টার জন্য রক্ত বন্ধ করার কাজে এটি ব্যবহার করা হয়। অস্ত্রপোচার এর পূর্বে স্পঞ্জগুলো তুলে ফেলা হয়।

      • এর খরচ কিরকম হবে।
        আপনি কি আমাকে দয়া করে এর পুরো বিষয় বিস্তারিত বলতে পারবেন

  2. ভাল ১টা টেকনিক ২০১৫-১৬ সাকে বাংলাদেশের কাজে কাগবে,বিশেষ করে আঃলীগের

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.