আমাদের প্রায় সবারি একটি মুদ্রা দোষ আছে, আর সেটি হল বাজারে যখন যে নতুন ফোনটি আসে তখন সেটি সবার আগে কিনতে যাওয়া। ইভেন আমার মধ্যে এই সমস্যাটি সবথেকে বেশী কাজ করে। বর্তমানে আমি যে ফোনটি ব্যবহার করছি এটি আমার যতসম্ভব ১৫ নম্বর ফোন। তবে আজকে থেকে আর এমনটি করবো না ভাবছি।

আচ্ছা আপনি কি আপনার স্মার্টফোন আমার মতো প্রফেশনালি ব্যবহার করেন নাকি সুধু গেমস, গান, মুভি ইত্যাদি এসবের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখেন। উত্তর টা যাই হোক না কেন সমস্যা অন্য যায়গাতে।

htc-one

হয়তো আপনার ফোনে অনেক ব্যাক্তিগত ফাইল থাকে, যেমন ব্যাক্তিগত ছবি বা ভিডিও ইত্যাদি। কিন্তু আপনার ফোনটি যখন অন্য কারোর কাছে বিক্রি করে দিচ্ছেন তখন তো আপনি নিজের ইচ্ছায় আপনার ফোনে থাকা সব স্পর্শ কাতর জিনিষ গুলো অন্যর হাতে তুলে দিচ্ছেন। কিভাবে?

আপনি হয়তো ভাবছেন যে আপনার ফোনের সবকিছু তো আপনি ডিলিট করেই দিচ্ছেন ইভেন রিসেট করে দিচ্ছেন কিন্তু তাতে করে আপনি কতটুকু নিরাপদ? একটুও না কারন আপনার স্মার্ট ফোন প্রাথমিক পর্যায়ে ফ্ল্যাশ মেমোরি ব্যবহার করে এবং সেগুলো ডিলিট করে দিলেও পার্মানেন্ট ভাবে ডিলিট হয় না। বিশেষ সফটওয়্যার ব্যবহারের মাধ্যমে আবারো সেগুলো ফিরিয়ে আনা যায়।

কথা গুলো আমার মুখের কথা না যদিও কিছু দিন আগে আমি এর সত্যতা পেয়েছি। আমার এক বন্ধুর ফোনে মেমোরি ভুলে ফরমেট হয়ে গেছিলো পরে আমি আবার একটি রিকভারি সফটওয়্যার দিয়ে ওর সব ছবি ফিরিয়ে আনতে সক্ষম হই। তারপর তো আমি নিজেই টাস্কি খেয়ে যায় যে “মাম ইটস্‌ ওয়ার্কিং”

এর আগে গবেষকেরা ২১ টি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন নিয়ে গবেষণা করেছেন এবং ভয়ানক কিছু তথ্য সবার সাথে শেয়ার করেছে। টেস্ট করা ফোন গুলোর মধ্যে ছিল এইচটিসি, মোটোরলা এবং স্যামসাং। দুর্ভাগ্য জনক ভাবে তারা প্রায় সবগুলো ফোনকেই আবার রিকভার করতে সক্ষম হয়েছে। যেমন, আপনার মেইলবক্স, সোশ্যাল ইনবক্স, গ্যালারি, ফোন বুক ইত্যাদি।

যদিও সবগুলো ফোন একবার করে রিসেট কর হয়েছিলো।

তাহলে এখন কথা হল আমার কি তবে আমাদের ব্যবহৃত অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন বিক্রি করা ছেড়ে দিবো? আপাতত তো সেটাই করতে হবে মনে হচ্ছে কারন গবেষকদের মতে এটায় করা উচিৎ।

অথবা খুব বেশী স্পর্শ কাতর বিষয় নিজের ফোনে না রাখায় শ্রেয়। ভালো হয় যদি আপনার সামর্থ্য থাকে তবে বিক্রি না করে আরেকটি কিনেন।

তো এখন আপনার মতামত কি? আমাদের যানাতে পারেন কমেন্টে 🙂

comments

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.