শরীর থেকে অতিরিক্ত মেদ ঝরাতে চাইছেন?

আপনি কি আপনার শরীর থেকে বাড়তি মেদ ঝরাতে চাইছেন? উপোস থেকে কিংবা না খেয়ে থাকাকে আপনি বিবেচনায় রাখতে পারেন। না না, চমকে যাবেন না। কেন উপোস থাকবেন, তার বৈজ্ঞানিক ব্যাখা দিয়েছেন ইউনিভার্সিটি অব এবার্ডিনের খাদ্য ও পুষ্টি বিষয়ক গবেষকেরা।

গবেষকেরা বলছেন, আপনি যদি বিকেলের নাস্তাটি না খেয়ে থাকতে পারেন, তাহলে শরীর থেকে অতিরিক্ত মেদ সহজেই ঝরাতে পারবেন। এই গবেষণায় দুই ধরণের ব্যক্তিদের অংশগ্রহণ করানো হয়। প্রথম দলে যারা রয়েছেন তাদের ছয় ঘন্টা উপোস রাখা হয়। সময় হচ্ছে সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা।
দ্বিতীয় দলে যারা রয়েছেন, তাদের উপোস থাকার সময়টা একটু লম্বা। ১২ ঘন্টা তারা উপোস থাকেন, সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা। কিন্তু বিস্ময়করভাবে দেখা গিয়েছে যে, একই ধরণের খাবার খেয়ে তাদের ক্যালরি খরচের পরিমাণ সমান এবং দ্বিতীয় দলের চাইতে প্রথম দলের মেদ ঝরানোর সম্ভাবনা বেশি। এখন আপনি মনে করতেই পারেন, যারা ৬ঘন্টা বেশি না খেয়ে থেকেছে, তারা সুবিধা তো পাবেই। কিন্তু ঘটনা আসলে সেখানে নয়।
গবেষকেরা বলছেন, এই দুই দলের মাঝে যেটি ব্যবধান গড়ে দিয়েছে তা হচ্ছে বিকেলের নাস্তা।

কারণ, সকালের খাবার কিংবা দুপুরের খাবার বাদ দেয়া হলেও বিকেলের নাস্তাটা মানুষের বাড়তি মেদ তৈরি করার জন্য প্রধান সহায়ক ভূমিকা হিসেবে পালন করে। তাই তারা বলছেন বাড়তি সময় উপোস থেকে বিকালের নাস্তাটি যদি তালিকা থেকে বাদ দিন, তাহলে তা শরীরকে ফিট রাখতে সাহায্য করবে বেশি।

আমাদের শরীরে যে গ্লাইকোজেন রয়েছে, তা ক্যালরি পোড়াতে যে সময় নেয়, তা হচ্ছে ১২ ঘন্টা। এর ওপরে গেলে শরীর বাড়তি ক্যালরি জমা করতে থাকে। ফলে মেদ জমে যায়। যারা ১২ ঘন্টা উপোস থেকেছেন, তারা এত লম্বা সময় ধরে উপোস থাকার পরও একটি কারণে প্রথম দল থেকে পিছিয়ে তা হচ্ছে, ১২ ঘন্টা পর তাদের শরীর মেদ পুনরায় তৈরি করতে শুরু করে।

সূত্রঃ live science

comments

কোন কমেন্ট নেই

LEAVE A REPLY

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.