নানা সমস্যায় জর্জরিত এ বাংলাদেশে প্রযুক্তির ছোয়া পেতে বেশ সময় লেগে যায়। যে স্মার্ট ফোনটি আমেরিকার বাজারে ২ বছর আগে আসে সেটি এ দেশে নতুন পন্য আর প্রবাশীরা কিছু ফোন নিয়ে আসলে সেটিই হয় এদেশের প্রথম ফোন। তাছাড়া এ দেশে ওয়াইম্যাক্স নতুন, থ্রিজি যেখানে আসে নাই সেখানে উচ্চগতির ইন্টারনেট ছাড়া স্মার্টফোনগুলো অচল বলা চলে। বাজারে অনিয়মিত ধারার এ ব্যবধান এখন কমে যাচ্ছে। আর অনেক আগে থেকেই স্যামসাং এর মোটামুটি আধিপত্য করার মতোই বাজার রয়েছে বাংলাদেশে। সাম্প্রতিক সময়ে সেটি দেখাও যাচ্ছে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি ট্যাব ১০.১ - দামঃ ৬০৩০০ টাকা

 

এদেশে এপল পন্যের একেবারে ব্যবহার নেই বললেই চলে। কিছু ফোন নকিয়ার সিমবিয়ান দিয়ে চলছে। তবে সাম্প্রতিক সময়ের এন্ড্রয়েডচালিত স্যামসাং গ্যালাক্সি ট্যাব ও বেশ কিছু স্মাট ফোন বাজারের প্রচার অনেককেই অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের সাথে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছে। বিশেষ করে বিভিন্ন মার্কেটের কাছে স্যামস্যাংএর আউটলেটটি নজর কারার মতো।

স্যামসাং গ্যালাক্সি পপ - দামঃ ১৫৫০০ টাকা

 

তারা বেশ কিছু স্মার্টফোন ও গ্যালাক্সি ট্যাব সাধারন ক্রেতাদের ব্যবহার করতে দিচ্ছে এবং তাদের মতমত সংগ্রহ করছে। যাদের মাল্টি টাচের সাথে পরিচয় নেই তাদের পরিচয় করানো হচ্ছে। গেমিং এর নতুন পদ্ধতি দেখে অনেকেই অবশ্য বেশ মজা পাচ্ছে। এন্ড্রয়েড এপ্লিকেশনের সাথে পরিচয় আরও মাতিয়ে তুলছে দর্শকদের।

স্যামসাং গ্যালাক্সি প্রো - দাম ১৯২০০ টাকা

 

সব মিলিয়ে বুঝা যায়, এশিয়ার মার্কেটে বেশ ভাল একটি অবস্থান করতে পারবে এন্ড্রয়েড। এখানকার মূল প্রতিদন্ডি নকিয়াকেও ছাড়িয়ে যাওয়ার সমুহ সম্ভাবনা রয়েছে। বাজারে বেশ কিছু স্যামস্যাং পণ্য কিস্তিতেও বিক্রি হচ্ছে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ২ - দামঃ ৫৬৫০০ টাকা

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here