গত একমাস বা তা্রও আগে থেকে যারা ফ্রীলান্সার.কম এ কাজ করছেন তারা হয়তো কিছু বিষয় লক্ষ করছেন যে, ফ্রীলান্সার কর্তৃপক্ষ তাদের পূর্বের কিছু নিয়মশৃঙ্খলার পরবর্তন ঘটিয়েছেন। আসলে পরিবর্তন না বলে বলবো উন্নয়ন করেছেন তাদের বায়ার ও প্রোভাইডারদের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়ন এবং বিশ্বাস বাড়ানোর জন্য। কারন এর আগে অনেক বার বায়ার এবং প্রোভাইডার উভয়ই উভয়ের কাছে প্রতারিত হচ্ছিল।

কিছুদিন আগেও একটা সমস্যাবোধ হতো প্রোভাইডারদের কাছে, যেমন: বায়ার প্রোজেক্ট জয়ী করায় দিয়েই কাজ শুরু করে দিতে বলতেন তাদের দেয়া নির্দেশনা মত। এতে করে দেখা যেত, যারা একদম নতুন তারা প্রতারিত হতেন ৭০%। নতুন ফ্রীলান্সাররা যখন প্রথম প্রোজেক্ট জয়ী হয় তখন তাদের মধ্যে একটি উত্তেজনা কাজ করে কিভাবে অতি দ্রূত বায়ারের কাজ সমপন্ন করে দিতে পারে। ফলে, নতুন কাজ পেয়ে বায়ারের সাথে পেমেন্ট সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনা না করেই কাজে নেমে পড়ে। আর বায়ারের যদি অসত উদ্দেশ্য থাকে তবে, আপনার কাজ করাই বেকার যাবে। টাকা আর পাবেন না। অবশ্য সব বায়ার এমনটা না। এখন কথা হল বায়ার যেমনি হোক আপনার লক্ষ থাকবে মাইলস্টোন পেমেন্ট নিবেন তারপরে কাজ শুরু করবেন। অবশ্য দেশী বায়ার হলে তাদের ব্যাপারটা শিথিলযোগ্যও হতে পারে। 😉

বর্তমানে ফ্রীলান্সার যেসব উন্নয়ন করেছেন তাদের ক্লায়ন্টদের জন্য তার মধ্যে অন্যতম হচ্ছে, যখন একজন বায়ার প্রোজেক্ট পোষ্ট করাবেন তখন তার একাউন্ট থেকে $5 সাধারনত কাটা যায়। কিন্তু, তারপরে আবার যখন প্রোজেক্ট জয়ী করাবেন তখন আরো $2 কাটা যাবে। 😉 কি ভাবেছেন, এসব শুনেই কি বায়ার হবার চিন্তা বাদ দিলেন নাকি? চিন্তার কোন কারন নাই আপনি এখানে থেকে $5 রিফাউন্ড পাবেন অবশ্যই। সেটা কিভাবে; দেখুন: আগের নিয়ম অনুসারে যখন একজন বায়ার প্রোজেক্ট জয় করায় দিতেন তখন তিনি সাথে সাথেই $3 রিফাউন্ড পেতেন। কিন্তু বর্তমানের নতুন সিস্টেম অনুয়ায়ী, সাথে সাথে পাবেন না। আপনি প্রোজেক্টের কাজ পোভাইডার থেকে বুঝায় নিবেন তারপরে তার মাইলস্টোন রিলিজ করবেন এবং সম্পূর্ণ পেমেন্ট পরিশোধ করার সাথে সাথেই $5(প্রোজেক্ট ফিস থেকে $3 এবং পরের $2) রিফাউন্ড হবে স্বয়ংক্রীয়ভাবে। আর বায়ার মসাই যদি আপনার সাথে ধোকাবাজি করে তাহলে তার $5 আর রিফাউন্ড পাইতে হবে না। 😀 তাহলে এর থেকেই বুঝা যায় যে এখন কিছুটা হলেও নিরাপত্তা পাবেন। আর হ্যা, এই পোষ্টটি কিন্তু আপনি একজন বায়ার হিসাবে পড়বেন, সুতরাং নিজের দিকটাও ভাববেন ভাল করে !! 😉

তো চলুন দেখি কিভাবে আপনি আপনার প্রোভাইডারকে মাইলস্টোন পেমেন্ট দিবেন এবং তার কাজ শেষে রিলিজ করবেন তার সচিত্র টিউটোরিয়াল…

১. ফ্রীলান্সার একাউন্টে লগইন থাকা অবস্থায় Payments > New Milestone Payment এ ক্লিক করুন।

২. তারপর নিচের চিত্রের মত করে রেডিও বাটনগুলো নির্বাচন করুন। Partial(আংশিক) payment for project. এবার Please choose the related project থেকে Active রেডিও বাটনগুলো নির্বাচন করুন। এবং তার নিচের থেকে আপনি যে প্রোজেক্টের জন্র মাইলস্টোন দিবেন সেটি নিবার্চন করুন। যেই প্রোজেক্ট এর জন্য মাইলস্টোন দিবেন সেই প্রোজেক্ট প্রোভাইডার এর Username নির্বাচন করুন। পরের ফাকা অংশটুকুতে পেমেন্টটি কি জন্য দিচ্ছেন তা লিখে দিন। তারপর কত ডলার মাইলস্টোন পেমেন্ট হিসাবে দিবেন তা লিখে দিন। সর্বশেষে Next করুন।

৩. এই পেজে আপনাকে কনফার্ম করতে হবে। দেখুন ঠিক নিচের মতই পাবেন। কনফার্ম এ টিক মার্ক করে Create Milestone Payment ক্লিক করুন।

৪. আপনার মাইলস্টোন পেমেন্টটি সফলভাবে তৈরী হরে নিচের মত বার্তা পাবেন।

আসলে মাইলস্টোন পেমেন্ট কি?

মাইলস্টোন পেমেন্ট হচ্ছে, বায়ার এর প্রোজেক্টে আপনার কাজ শেষে টাকা পাবার নিরাপত্তার জন্য বায়ার কর্তৃক, নির্দিষ্ট পরিমান অর্থ(ডলার) আপনার একাউন্টে(আপনার ফ্রীলান্সার আইডি’তে) ঝুলায় দেয়া। এর মানে এই নয় যে, আপনি আপনার একাউন্টে টাকাটি দেখতে পারবেন বা খরচ করতে পারবেন, কাজ শেষে আপনি যখন বায়ারকে মাইলষ্টোন বিলিজ এর জন্য রিকোয়েস্ট করবেন তখন বায়ার আপনার মাইলস্টোন রিলিজ করে দিবে। এবং আপনি আপনার একাউন্টে টাকা(ডলার) দেখতে পারবেন। এই উভয় লেনদেন এর জন্য। আপনি ইমেইলে কনফার্ম মেসেজ পাবেন সাখে সাথেই। 🙂

এখন কিভাবে কাজ শেষে আপনি আপনার প্রোভাইডারকে টাকা(ডলার) দিবেন তা দেখি…

৫. ফ্রীলান্সার একাউন্টে লগইন থাকা অবস্থায় Payments > Manage Milestone Payments এ ক্লিক করুন।

৬. নিচের চিত্রের মত Take Action থেকে Release Part or Full Payment নির্বাচন করুন।

৭. এবার পেজটি সয়ংক্রীয়ভাবে রিডাইরেক্ট হয়ে নিচের মত পেজে আসবে। কনফার্ম এর ক্লিক দিয়ে, নিচে ফ্রীলান্সার প্রোফাইলের আপনার নামটি লিখে দিন। তারপর Yes, Release it! করুন।

৮. এবার যদি আপনার মাইলস্টোনটি রিলিজ সফল হয় তবে নিচের মত বার্তা পাবেন।

৯. এবার ফ্রীলান্সারে আপনার একাউন্ট ব্যালেন্স চেক করুন।

ব্যাস! মাইলস্টোন তৈরী এবং রিলিজের কাজ এখানেই শেষ। আপনার কোথাও বুঝতে সমস্যা হলে মন্তব্যে জনাবেন। পরবর্তী পর্ব আসছে শীঘ্রই। 🙂

সবাই ভাল থাকবেন, সুস্থ থাকবেন। 🙂

comments

4 কমেন্টস

  1. আমি আপনার সব টিউটোরিয়াল গুলো পড়ে এখন ফ্রিল্যান্সিং এ কাজ করছি। আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ, আমি আপনার টিউটোরিয়াল গুলো কপি করে পি.ডি.এফ আকারে ই-বুক বানাতে চাই, আপনি যদি অনুমতি দেন তাহলে করতে পারি.. আর হা কোন পরির্বতন থেকে আমি বিরত থাকব। আপনার অনুমতির অপেক্ষায় আপনার একজন ছোট ভাই।:-D

  2. খুব ভালো লাগলো আপনার পোস্টি পড়ে।আরো এধরনের পোস্ট আসা করছি আপনার কাছে।বাংলায় লিখতে থাকুন বাঙালি জাতিকে এগিয়ে নিয়ে চলুন।

    ধন্যবাদ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.