একটা সময় ছিল যখন অনলাইনে মানুষের বন্ধুতালিকা ইয়াহু, গুগল টক, এআইএম এবং যেকোনো সাইটে ভাগ হয়ে থাকতো।

স্মার্টফোনের উত্থানে এ সমস্যা আরো বেড়ে যায়। আরো বেশি সোশাল মিডিয়ার কারণে বন্ধুতালিকা আরো বিভিন্ন অংশে ভাগ হয়ে যায়।

তবে এ ঝামেলা থেকে মুক্তি দিতে এগিয়ে এসেছে ‘Franz’। এ বছরের মার্চের ১ তারিখে বাজারে আসে Franz। ওএস এক্স-এর অ্যাপ হিসাবে বাজারে আসে। ৩৫ হাজার ব্যবহারকারী নিয়ে এদের যাত্রা শুরু। এই অ্যাপের দুই সহ প্রতিষ্ঠাতা এ মাসেই উইন্ডোজ এবং লিনাক্স ব্যবহারকারীদের জন্য অ্যাপটি উন্মুক্ত করেছেন। এখন পর্যন্ত কেবল ডেস্কটপেই কাজ করে অ্যাপটি। এর কাজ হলো ইনস্ট্যান্ট মেসেজিংয়ের সব বন্ধুতালিকা এক প্লাটফর্মে এনে দেওয়া।

হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক মেসেঞ্জার, হ্যাংআউটস, টেলিগ্রাম, স্কাইপে এবং স্ল্যাকসহ ১৪টি মেসেঞ্জার অ্যাপের বন্ধুতালিকা এক করেছে ফ্রাঞ্জ। অতীতে এমন সেবা দিতো ট্রিলিয়ান। এর ইউজার ইন্টারফেস ন্যূনতম। ফ্রাঞ্জের স্ক্রিনটি সরাসরি আপনাকে অনেকগুলো প্রোভাইডারের তালিকায় নিয়ে যাবে। ফ্রাঞ্জ এপিআই’য়ের মাধ্যমে কোনো মেসেজিং প্লাটফর্মে আপনাকে নিয়ে যায় না। বরং এটি দুই দিক থেকে লাভজনক। প্রথমত, প্রতিষ্ঠান তাদের মানসিকতা বদলে ফেললেও ফ্রাঞ্জ তাদের সেবা থেকে সরে আসবে না।

দ্বিতীয়ত, আপনি খুব দ্রুত নতুন ফিচারে প্রবেশ করতে পারবেন। এই অ্যাপের টাস্কবারের নোটিফিকেশন অঞ্চলে আইকন নতুন পেন্ডিং মেসেজ  দেখায়। লাল বুদ্বুদে অঙ্কের মাধ্যমে সংখ্যা দেখানো হয়। তবে এর মাধ্যমে কয়টি মেসেজ এসেছে তা প্রচলিত নিয়মে দেখানো হয় না। বরং কয়টি প্লাটফর্মে মেসে এসেছে তা দেখাবে। অর্থাৎ, যদি হোয়াটসঅ্যাপে ৫টি মেসেজ আসে, তবে সেখানে ‘এক’ দেখাবে। নিজের পছন্দের ওয়েব ব্রাউজারে ফ্রাঞ্জ ব্যবহার করতে পারবেন। নতুন ট্যাবে প্রত্যেকটি সার্ভিস খুলতে পারবেন।

তবে কিছু সমস্যা রয়েছে অনেকের দৃষ্টিতে। ফ্রাঞ্জের মিনিমাইজ, ম্যাক্সিমাইজ এংব ক্লোজ ওয়ার্ক বাটনগুলো আইএম অ্যাপ্লিকেশনের মতো নয়। নোটিফিকেশন এরিয়াতে অ্যাপটি মিনিমাইজ করার উপায় নেই। এর আরেকটি সমস্যা রয়েছে। ফ্রাঞ্জ ওপেন সোর্স হিসাবে ব্যবহৃত হয় না। আপনার যাবতীয় কার্যক্রম সরাসরি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সম্পন্ন হয়। প্রাইভেসি পলিসির ক্ষেত্রেও একই বিষয় প্রযোজ্য।

এ বিষয়ে প্রোডাক্ট ডিজাইনার স্টিফান মালজনার জানান, এপিআইএস সার্ভিসের সঙ্গে কাজ করে না ফ্রাঞ্জ। বরং web.whatsapp.com বা web.skype.com ওয়েব ইন্টারফেসের সঙ্গে সরাসরি কাজ করে। স্কাইপে বা হ্যাংআউট ব্যবহারকারীদের জন্যেও সমস্যা রয়েছে। ভিডিও বা অডিও কলের জন্য ফ্রাঞ্জ এখনো ব্যবহার করা যাবে না। কোনো কল করতে পারবেন না। তবে যাবতীয় সমস্যা নিয়ে কাজ করছে ফ্রাঞ্জ। এর ফাংশন আরো বিস্তৃত করা হবে। হয়তো আগামীতে যে আপডেট আসবে তাতে কোনো অভাব রাখবে না ফ্রাঞ্জ।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.