ফেসবুকের প্রধান পরিচালনা কর্মকর্তা শেরিল স্যান্ডবার্গ, ফেসবুক ছেড়ে দিয়ে সরকারের প্রশাসনে ভূমিকা রাখতে যাওয়ার গুজব নাকচ করেছেন।

সম্প্রতি খবর রটেছিল যে, যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডিন্ট নির্বাচনে হিলারি ক্লিনটন বিজয়ী হলে তার প্রশাসনের বাণিজ্য সচিব পদের যোগ্য হিসেবে শেরিল স্যান্ডবার্গকে বিবেচনা করা হচ্ছে। গুজবনির্ভর এমন খবরের প্রত্যুত্তরে শেরিল বলেছেন, তিনি ফেসবুকেই থাকছেন।

ইন্টারনেট অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত ‘ভার্চুয়াস সার্কেল কনফারেন্সে’ তার কাছে জানতে চাওয়া হয় যে, হিলারি ক্লিনটন বিজয়ী হলে তার প্রশাসনে বাণিজ্য সচিব পদে অথবা ট্রেজারি সচিব পদে প্রস্তাব দেওয়া হলে তিনি সরকারে ভূমিকা রাখবেন কিনা? উত্তরে শেরিল জানান, প্রশাসনের কোনো পদই তাকে আকর্ষণ করে না। তিনি ফেসবুকের সঙ্গেই থাকতে চান এবং ফেসবুকেই সবচেয়ে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন।

প্রযুক্তির বিশ্বে অন্যতম প্রভাবশালী নারী ব্যক্তিত্ব হিসেবে বিবেচিত শেরিল স্যান্ডবার্গ ২০০৮ সাল থেকে ফেসবুকের প্রধান পরিচালনা কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১২ সালে তিনি প্রথম নারী হিসেবে ফেসবুকের পরিচালনা বোর্ডে নির্বাচিত হয়েছেন।

ফেসবুকে কর্মজীবন শুরু করার আগে শেরিল গুগলের ‘গ্লোবাল অনলাইন সেলস’ এর ভাইস প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০০১ সালে গুগলে যোগদান করার আগে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের অর্থমন্ত্রীর চিফ অব স্টাফ হিসেবে কাজ করেছেন।

এবারের আসন্ন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তিনি হিলারি ক্লিনটনের প্রতি তার সমর্থন ব্যক্ত করেছেন এবং মিসেস ক্লিনটন কন্যা চেলসির সঙ্গে সুসম্পর্ক রয়েছে তার।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.