একটি দ্রুতগামী চিতাবাঘ

পৃথিবীর মাঝে সবচেয়ে দ্রুতগতির প্রাণী হল চিতাবাঘ। কিন্তু দ্রুতগতির এই প্রাণীদের নিজেদের জীবন রক্ষার জন্য আরো জোরে ছুটতে হবে। না, কোন ভয়ঙ্কর মাংসাশী প্রাণীদের হাত থেকে নয়। ছুটতে হবে মানুষদের হাত থেকে। কেন?
কারণ, প্রাণী সংরক্ষণবিদরা মনে করছেন যে পূর্বের ধারণায় চিতাবাঘদের যতটা ধারণা করা হয়েছিল, তারা তার চাইতেও দ্রুতগতিতে বিলুপ্ত হয়ে আসছে। গত তিন দশক ধরেই চিতাবাঘ IUCN এর লাল তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়ে আছে যাদের মনে করা হচ্ছিল খুব দ্রুতই বিলুপ্তির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু তালিকায় তাদের নাম বেশ পরেই ছিল।

চিতাবাঘ
                             চিতাবাঘ

কিন্তু বর্তমানে তাদের নামটি আরো এগিয়ে দেয়া হয়েছে। যার ফলে, যারা নির্বিচারে প্রাণীদের শিকার করে, অর্থাৎ পোচার, এদের হাত থেকে এই অসামান্য সৌন্দর্যের অধিকারী প্রাণীদের রক্ষা করতে হবে। প্রয়োজন হবে সচেতনতার, প্রয়োজন হবে অভয়ারণ্যের। এই লক্ষ্যেই নিরন্তর চেষ্টা করে যাচ্ছেন প্রাণী সংরক্ষণবিদরা। তারা মনে করছেন, সঠিক সিদ্ধান্ত ও কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে না পারলে বাঘ সিংহের বহু আগেই আমাদের হারাতে হতে পারে চিতাবাঘদের।
Proceedings of the National Academy of Sciences নামক একটি জার্নালে এই গবেষণাটি ছাপা হয় যেখানে বলা হয়েছে পৃথিবীতে মাত্র আর ৭,১০০টি চিতা বেঁচে আছে যারা বিলুপ্তির হাত থেকে রক্ষার জন্য নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষার লড়াই করছে। তা না হলে খুব শীঘ্রই পৃথিবীতে চিতা নামক প্রাণীটি কেবলমাত্র জাদুঘরেই পাওয়া যাবে।

সূত্রঃ Truth-out.org

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.