পৃথিবী একটি গ্রহ। এটি সবারই জানা। তবে এর আশপাশে অনেক গ্রহ-উপগ্রহ রয়েছে। যেগুলোতে চলছে প্রাণের সন্ধান।চলছে বসবাসের উপযোগী কিনা তা জানার কাজ।

এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি পৃথিবীর খুব কাছেই জীবন ধারণের অনুকূল পরিবেশ সম্পন্ন এক গ্রহ রয়েছে বলে জানিয়েছে এক দল বিজ্ঞানী। তারা বলছে ওই গ্রহ প্রক্সিমা সেঞ্চুরি স্টার সিস্টেমে বিদ্যমান। গবেষকরা একে দ্বিতীয় পৃথিবী বলে অভিহিত করেছেন। ইউরোপিয়ান সাউদার্ন অবজারভেটরি এক ঘোষণায় এ তথ্য দেয়।

এই ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই আরেকটি গল্পও ছড়িয়ে পড়ে। তা হচ্ছে এলিয়েন গল্প। তারা শতাব্দীর পর শতাব্দী ধরে তাদের গ্রহ থেকে পৃথিবী পরিদর্শন করছে বলে ধারণা বিজ্ঞানীদের।

এলিয়ন সম্পর্কে প্রথম তথ্য দেন ক্যালিফোর্নিয়ার দুই মনোবিদ। তাদের ভাষ্য,এক সম্মোহিত নারীর মাধ্যমে তারা ওই এলিয়েনের সঙ্গে কথা বলেছেন। এরা নাকি ৮ হাতের অধিকারী। তারা বেশ মিশুক। এরপরই এলিয়েনের নামকরণ করা হয়,হ্যান্ডস বা হাত।
এদিকে ডেইলিমেইলের এক খবরে বলা হয়,সম্প্রতি এক ঘটনায় নতুন করে আবারো আলোচনায় এসেছে ওই হাত। তাইওয়ানের টাইটাং শহরের জেইমিং লেকের পাড়ে নাকি হাত এলিয়েনদের দেখা মিলেছে। সেখানে কয়েকজন পুলিশ তাকে দেখতে পেয়েছেন। শুধু তাই নয়,তারা নিজেদের আইফোনে এলিয়েনের ছবিও ধারণ করেন! সেই ছবি পরে তারা তাইওয়ানের ইউএফও সোসাইটিকে দেন।
স্থানীয় দৈনিক তাইপাই টাইমস জানায়,ইউএফও সোসাইটি এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দিয়েছে।তারা বলেছে, এলিয়েনের যে ছবিটি পাওয়া গেছে,সেখানে তাকে অনেক লম্বা মনে হয়েছে। এছাড়া তার হাতের আঙুল নেই।
তাইওয়ানের ইউএফও সোসাইটির চেয়ারম্যান জানান,আমাদের হাতে যে ছবি এসেছে,আমরা তাতে শতভাগ নিশ্চিতভাবে বলতে পারি না এটি এলিয়েনরই ছবি। আমরা বিষয়টি যাচাই-বাছাই করছি।

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.