নগরজীবনের কোলাহল ছেড়ে দুরে দুরে কোথাও ঘুরতে কার না ভালো লাগে। তবে সেখানে আছে সাধ ও সাধ্যের মেলবন্ধন। তবুও আজকাল টাকা জমিয়ে বছরের অন্তত একবার ঘরতে যান না এমন পরিবার খুব কমই আছে। বছর শেষে বাচ্চাদের স্কুল ছুটির মৌসুমে ঢল নামে কক্সবাাজার, সেন্টমার্টিনসহ আরো নানা স্পটে। আর এসব ভ্রমণপিপাসু মানুষের ঘোরাঘুরিতে শক্তিশালী হচ্ছে দেশের অভ্যন্তরীণ পর্যটন। এই গত বছরও ৫৫ লাখ মানুষ ঘরে বেড়িয়েছে টেকনাফ থেকে তেতুলিয়া। এই বিশাল অভ্যন্তরীণ পর্যটকদের ঘোরার সঙ্গি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে ‘ঘুরবো’। দেশের পর্যটন খাতের নতুন সংযোজন ঘুরবো পর্যটকদের স্বল্পমূল্যে হোটেল বুকিং প্ল্যাটফর্ম। সম্পূর্ন দেশিয় বিনিয়োগে দীর্ঘ গবেষণার ফসল ঘুরবোকে একজন পর্যটকের ঘোরার সাথি হিসেবেই বানিয়েছে ঘুরবো। ঘরবো ওয়েবসাইটে গেলে হোটেল বুকিং নিয়ে আর কোন চিন্তাই করতে হবে না। হোটেলের পাশাপাশি আগামীতে যাতায়াতে গাড়ি কিংবা প্লেনের টিকেট বুকিং, পর্যটন স্পটে গিয়ে গাড়ি ভাড়া ইত্যাদি সবই মিলবে এক প্ল্যাটফর্মে।

pg2ভ্রমণপিপাসু ও পযর্টকদের হোটেল বুকিং সেবাকে আরও সহজ ও সাশ্রয়ী করতে যাত্রা শুরু করেছে হোটেল বুকিং ওয়েবসাইট ঘুরবো (www.ghurbo.com )। তবে এটি আর দশটা হোটেল বুকিং ওয়েবসাইটের মতো নয়। বাংলাদেশি মানুষ যেমন করে কোথাও ঘুরতে গিয়ে হোটেল বুকিং করে ঠিক তেমন করেই করবে। এমনকি যেভাবে হোটেলর পেমেন্ট করে সেভাবেই করবে। ‘ঘুরবো’ শুধু তাদের সহায়ক হিসেবে কিছু বাড়তি সুবিধা ও মূল্যছাড় দেবে। এছাড়া হোটেল পাওয়ার নিশ্চয়তাও দেবে। পর্যটনের ভরা মৌসুমে গিয়েও আপনাকে পথে পথে হোটেলর জন্য ঘুরতে হবে না। কিংবা চড়া দামে হোটেল বুক করতে হবে না। ‘ঘুরবো’র সাথে চুক্তিবদ্ধ হোটেল গ্রাহক সেবা দিতে বদ্ধপরিকর।

‘ঘুরবো’র হেড অফ মার্কেটিং মোঃ তাহের জামিল বলেন, ‘আমাদের উদ্দেশ্য পর্যটকদের সেরা ভ্রমণ অভিজ্ঞতা দেওয়া। এছাড়া স্থানীয় হোটেল শিল্পের প্রসার ঘটানো। দেশে অনলাইন ট্রাভেল বুকিংয়ের শীর্ষ প্লাটফর্ম হতে আমরা গ্রাহক সেবায় সবচেয়ে জোর দিচ্ছি। আমাদের সাইটের মাধ্যমে হোটেল বুকিং দিয়ে যাতে গ্রাহক সবচেয়ে ভালো রুম, ভালো মূল্য পান সেদিকে আমরা বিশেষভাবে নজর দিচ্ছি।’ তিনি বলেন, আমাদের প্রতিটি শহরেই ভালো মানের হোটেল আছে আমাদের গ্রাহকদের দিতে চেষ্টা করবো। আমরা যেসব হোটেল ভালো সেবা দিচ্ছে তাদের তুলে ধরবো। অনলাইনের বিভিন্ন টুলস ব্যবহার করে আমরা সুনির্দিষ্ট গ্রাহকের কাছে আমার হোটেলগুলোর ব্যাপক প্রচারনা চালাবো। পর্যায়ক্রমে সারা দেশের সব হোটেলকে আমাদের প্ল্যাটফর্মে নিয়ে আসবো।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ পর্যটক ও বিদেশ থেকে যারা বাংলাদেশ ভ্রমণে আসে তাদের সবেচেয়ে সাশ্রয়ী মূল্যে হোটেল সরবরাহ করবে ঘুরবো। আমাদের এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে হোটেল বুকিং দিলে গ্রাহক বাজারের সর্বোচ্চ ডিসকাউন্ট পাবেন সেই নিশ্চয়তা আমরা দিতে চাই। বাংলাদেশজুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা হোটেলগুলোকে সংগঠিত করে তাদের ব্যবসায়িক প্রবৃদ্ধি বাড়ানোর মাধ্যমে গ্রাহককে বাড়তি সুবিধা দেওয়ায় আমাদের লক্ষ্য।

ঘুরবো ব্রাউজ করলেই মিলবে স্বল্পমূল্য থেকে উচ্চ মূল্যের নানা হোটেল। গ্রাহককে ঘুরবো ব্যবহারের জন্য রেজিস্টেশন করতে হবে। তারপর বাজেট নির্ধরন করে সার্চ দিলেই সব হোটেল মূল্যসহ প্রদর্শিত হবে। এরপর পছন্দের হোটেল বুকিং দিয়ে একটি বুকিং কোড হোটেল দেখিয়ে হোটেল রুম পাবেন। গ্রাহক চাইলে মূল্য অনলাইনে কিংবা হোটেলে গিয়ে পরিশোধ করতে পারেন। আবার যদি কোন কারণে পছন্দ না হয় তাহলে বুকিং বাতিলও করতে পারবেন। হোটেলে থাকার পর গ্রাহক রিভিউ দিতে পারেন।

বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন www.ghurbo.com এই সাইটে।

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.