স্পেশালঅডিও ল্যাব

কোলাহল পূর্ণ জীবনে নিজের শান্তির জন্য অনেক সময় কোলাহলের বাইরে শান্ত কোনো পরিবেশে আমাদের থাকতে ভালো লাগে।মাঝে মাঝে মনে হয়  পরিবেশটা যদি এমন হয় যে,পৃথিবীর কোনো ধরনের শব্দ সেখানে থাকবে না। তাহলে ব্যাপারটা কেমন হবে? ভাবছেনএমন জায়গা কোথায় রয়েছে? তাহলে আপনাকে জানিয়ে রাখি এমন একটি রুমের কথা, যেরুম এতটাই নীরব পরিবেশ যে, সেখানে পৃথিবীর কোনো ধরনের শব্দ পৌঁছায় না। পৃথিবীর সবচেয়ে নীরব রুম এটি।

আপনি কখনো নিজের বুকের হৃদস্পন্দনের শব্দ শুনেছেন? অন্যের বুকে কান পেতে তার হৃদস্পন্দনের শব্দ শোনা যায়। কিন্তু এই রুমের নীরবতা এতটাই বেশি যে, আপনি আপনার হৃদস্পন্দনের শব্দ শুনতে পাবেন। শুধু তাই নয়, আপনার শরীরে যে রক্ত চলাচল করছে, সেইরক্ত চলাচলের শব্দও আপনি নিজের কানে শুনতে পাবেন!

আশ্চর্য মনে হচ্ছে? কিন্তু এটাই সত্যি। এমন একটি রুম রয়েছে খ্যাতনামা প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফটের অফিসে। যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে মাইক্রোসফটের সদর দপ্তরে থাকা ‘স্পেশালঅডিও ল্যাব’ নামক এই রুমটি গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ড গড়েছে পৃথিবীর সবচেয়ে‘কোয়াইটেস্ট প্লেস’ (নীরব স্থান) হিসেবে।

এই রুমে নিজের শরীরের অর্গানগুলোর আওয়াজ ছাড়া আর কিছুই শোনা যায় না। বাইরের পৃথিবীর কোনো আওয়াজ এখানে পৌঁছায় না। এই রুমের নীরবতার মাত্রা মাইনাস ২০.৬ডিবি, যেটিকে অকল্পনীয় নীরব হিসেবে অ্যাখা দিয়েছে পরীক্ষকরা।

মাইক্রোসফটের এই ‘স্পেশাল অডিও ল্যাব’ এর আগে বিশ্বের সবচেয়ে নীরব স্থানের রেকর্ডটিছিল যুক্তরাষ্ট্রের মিন্নেপোলিসের ওরফিল্ড ল্যাবরেটরিসের ‘অ্যানেচোইক টেস্ট চেম্বার’ এরদখলে। এই রুমটির নীরবতার মাত্রা ছিল মাইনাস ১৩ ডিবি।

মিন্নেপোলিসের ওরফিল্ড ল্যাবরেটরিসের ‘অ্যানেচোইক টেস্ট চেম্বার’ রুমটিতে যারা সাহসদেখিয়ে অবস্থান করেছিল, তাদের অভিজ্ঞতা খুব একটা আনন্দদায়ক ছিল না। যিনি সবচেয়েবেশি সময় অবস্থান করেছিলেন, তা ছিল মাত্র ৪৫ মিনিট। কেন? কারণ এরপর সেখানেঅবস্থান করার শক্তি হারিয়ে ফেলেছিলেন এবং হ্যালুসিলেশন তৈরি হয়েছিল। মাইনাস ১৩ডিবি নীরবতায় যদি এই অবস্থা হয়, তাহলে কল্পনা করুন তো, মাইক্রোসফটের স্পেশালঅডিও ল্যাবের মাইনাস ২০ডিবি পরিবেশে কী অবস্থা হবে?

এ ধরনের বিশেষ রুমগুলো তৈরি করা হয়ে থাকে, বিভিন্ন ডিভাইস এবং নতুন প্রযুক্তি পরীক্ষাকরার জন্য। শব্দরোধী এসব রুমের দেয়াল শব্দ শুষে নেয়, যাতে কোনো রকম শব্দেরপ্রতিফলন না ঘটে।

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.