শনি গ্রহ ছবি সূত্রঃ ইন্টারনেট

প্রায় ২০ বছর ধরে নানা ধরণের ছবি পাঠাবার পর নাসার কাসিনি যানের মিশন এবার বোধহয় শেষ হয়েই এল। গত ২৩ এপ্রিল ছিল এর সর্বশেষ অভিযান। কিন্তু নাসা কর্তৃপক্ষের এটি নিয়ে আলোচনা কিংবা আগ্রহের অবস্থান এখনো শেষ হয় নি। তারা চাইছে জীবনের সায়াহ্নে এসে কাসিনি শনির ভূখণ্ডে আপতিত হোক। কাসিনি গত ২০ বছরে নাসার ডাটাবেজে যত ছবি পাঠিয়েছে, তার সবই পৃথিবীবাসীর কাছে বিস্ময়ের সঞ্চার করেছে। কাসিনির পাঠানো সব ছবি এখনো প্রকাশ করা হয় নি। আসুন জেনে নেয়া যাক, কাসিনি আমাদের ঠিক কি কি তথ্য দিল এই গত ২০ বছরেঃ

১) শনির দ্বিত্ব অবস্থানের সুরাহাঃ

শনির দ্বিত্ব অবস্থান  ছবি সূত্রঃ ইন্টারনেট
শনির দ্বিত্ব অবস্থান
ছবি সূত্রঃ ইন্টারনেট

প্রায় ১৬০০ সাল থেকেই জ্যোতির্বিদদের কাছে শনি গ্রহ একটি বেশ আগ্রহের বিষয়। কিন্তু মাঝে মাঝে এই গ্রহটি অদৃশ্য হয়ে যায় বলে তারা জানিয়েছেন। তখন আধুনিক প্রযুক্তি ছিল না, ছিল না স্যাটেলাইটের মাধ্যমে প্রাপ্ত প্রযুক্তি। যার ফলে আমরা দেখতে পাই এটি বেশ আগ্রহ এবং একই সাথে কিছু প্রশ্নেরও সঞ্চার করে।
কাসিনির পাঠানো ছবির মাধ্যমে আমরা দেখতে পাই যে, শনির দুটি অংশ রয়েছে। একটি তুষার বরফের ন্যায় সাদা এবং অপর অংশটি হচ্ছে কয়লার ন্যায় কালো। শনি চক্রাকারে ঘুরবার কারণে কখনো কখনো মানুষের সামনে এর সফেদ অংশটি ধরা দেয়, আবার কখনো কালো অংশটি। কাসিনির পাঠানো ছবি থেকে সে রহস্যের উদঘাটন হল।

২) নতুন চন্দ্র আবিষ্কারঃ

শনির একটি চাঁদ  ছবি সূত্রঃ ইন্টারনেট
শনির একটি চাঁদ
ছবি সূত্রঃ ইন্টারনেট

শনিকে কেন্দ্র করে প্রায় ৫০টি চাঁদ এর পরিমণ্ডলে ঘুরছে। সবগুলো সম্পর্কে জানা না গেলেও কাসিনি আমাদের বেশ কয়েকটি সম্পর্কে তথ্য প্রদান করেছে। যেমন, আন্থে, এগাগিওন, ডেফনোস, মিথোন ইত্যাদি।

 

 

 

৩) পৃথিবীসদৃশ গ্রহ টাইটানঃ

পৃথিবীসদৃশ গ্রহ টাইটান ছবি সূত্রঃ ইন্টারনেট
পৃথিবীসদৃশ গ্রহ টাইটান
ছবি সূত্রঃ ইন্টারনেট

শনিকে কেন্দ্র করে ঘুরতে থাকা গ্রহ টাইটান দেখতে একদম পৃথিবীর মত। কাসিনি থেকে পাওয়া নানা ধরণের স্যাটেলাইট ইমেজ থেকে এটি সম্পর্কে একটি স্পষ্ট ধারণা পাই। বিজ্ঞানীরা এখন পরীক্ষা নিরীক্ষা করছেন কাসিনি থেকে পাওয়া এই ধরণের তথ্যের মাধ্যমে মানুষের বসবাসযোগ্য আরো নতুন একটি গ্রহ পাওয়া গেল কি না!

সূত্রঃ পপুলার সাইন্স

comments

কোন কমেন্ট নেই

LEAVE A REPLY

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.