স্মার্টফোনের বাজারে ঝড় তুলতে আসছে এক সময়ের দুনিয়া কাঁপানো ব্র্যান্ড নকিয়া। গুজবটি হলো, খুব শিগগিরই ফিনল্যান্ডের এইচএমডি গ্লোবালের তৈরি দুটি নকিয়া অ্যান্ড্রয়েড ফোন বাজাতে আসতে চলেছে।

গুজবে বলা হয়, ৫.২ ইঞ্চি ও ৫.৫ ইঞ্চি পর্দার ফোন দুটিতে স্পোর্ট ২কে রেজ্যুলেশন (কিউএইচডি) দেওয়া হবে। ফোন দুটি পাচ্ছে আইপি৬৮ সার্টিফিকেঠ। অর্থাৎ, এগুলো পানি ও ধুলোবালি প্রতিরোধী হবে।

গিজমো চাইনার প্রতিবেদনে বলা হয়, স্ন্যাপড্রাগন ৮২০ চিপসেট নিয়ে আসবে এরা। জুড়ে দেওয়া হবে জেড-লাঞ্চার সিস্টেম ইউআই-ভিত্তিক অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ নগাট নিয়ে।

আরেক প্রতিবেদনে বলা হয়, ফোনের দেহ দুটি মেটাল দিয়ে তৈরি হবে। দুটোতেই ওলেড পর্দা দেওয়া হবে। ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার থাকছে। এ দু্টি ফোনে যে সেন্সর ব্যবহার করা হবে, সম্ভবত এরা এ যাবতকালের সবচেয়ে স্পর্শকাতর সেন্সর।

নকিয়া পাওয়ার ইউজার থেকে বলা হয়, আনুষ্ঠানিকভাবে এ বছরের শেষের দিকে ঘোষণা আসতে পারে। হয়তো পরের বছরের প্রথম তিন মাসের মধ্যে বাজারে আসবে ফোনটি।

এ বছরের মে মাসে নকিয়া জানায়, নতুনভাবে প্রতিষ্ঠিত এইচএমডি গ্লোবালকে নকিয়া ব্র্যান্ডের স্মার্টফোন নির্মাণ ও বাজারজাতকরণের গ্লোবাল লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে। আগামী ১০ বছর তারাই নকিয়ার স্মার্টফোন ও ট্যাব তৈরি করবে।

অ্যাপল এবং স্যামসাংয়ের বাজার দখলের আগে নকিয়ার ফোনগুলো পৃথিবী দাপিয়ে বেড়াতো। অ্যান্ড্রয়েডের বাজারে নকিয়া উইন্ডোজকে অপারেটিং সিস্টেম হিসাবে পছন্দ করে নেয়। আর তাতেই জনপ্রিয়তা প্রায় শূন্যের কোঠায় নেমে আসে। পরে নকিয়া তাদের মোবাইল ফোন ব্যবসা মাইক্রোসফটের কাছে ৭.২ বিলিয়ন ডলারে বিক্রি করে দেয়।

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.