সেদিন বসে বসে একটি উপন্যাস পড়ছি, তখন আমার ভাগনে নিলয় হঠাৎ এসে হাজির। ও আসলে আমি একটু সংকিত থাকি, হুটহাট প্রশ্ন করে বসে আমাকে। কখনো গণিত নিয়ে, কখনো বিজ্ঞান নিয়ে, কখনোবা সাধারণ জ্ঞানের। ওদের বাসা থেকে ১০ মিনিটেই হেঁটে আমাদের বাসায় আসা যায় বলে প্রায় প্রতিদিনই ও মামার বাড়ি বেড়াতে আসে। নিলয় আমার সামনে এসে দাঁড়াতেই আমি বইটি বন্ধ করে ওর দিকে তাকালাম। মনে মনে ওর প্রশ্নের জন্য প্রস্তুত হয়ে গেছি। শুধু বুঝতে পারছি না আজকের প্রশ্নের বিষয় বস্তু কি হবে।

উত্তর আগেই জানা ১০৮৯

আমি : কি নিলয়, কিছু বলবা?

নিলয়: “মামা আজকে আমি তোমাকে একটা অংকের জাদু দেখাবো।”

আমি একটু গম্ভীর (যদিও মনে মনে খুশি কারণ, আজকে অন্তত কঠিন কোনো প্রশ্নের মুখে পরতে হচ্ছে না।) হয়ে বললাম – “বেশ দেখাও।”

নিলয় আমার হাতে একটা খাতা কলম ধরিয়ে দিয়ে বললো : – “তুমি এখানে একটা অংক করবে, যার উত্তর অলরেডি আমি বাসা থেকে লিখে নিয়ে এসেছি। উত্তরটি আমার পকেটের এই কাগজে লেখা আছে। তাহলে শুরু করি?”

আমি বললাম – শুরু করো।

নিলয় বলো : তিন আংক বিশিষ্ট্য একটি সংখ্যা লিখো যাদের প্রথম ও শেষ সংখ্যার মাঝে অন্তত্য ২ পার্থক্য আছে। সংখাটা আমাকে বলো না বা দেখিও না।

আমি কাগজে ১০৩ লিখে বললাম – তারপর?

নিলয় বললো : এবার তোমার লেখা সংখ্যাটিকে উল্টো করে লিখো।

আমি কাগজে ১০৩ এর উল্টো ৩০১ লিখে বললাম – তারপর?

নিলয় বললো : এবার তোমার লেখা সংখ্যা দুটির বড়টি থেকে ছোটটি বিয়োগ করো।

আমি (৩০১-১০৩) = ১৯৮ বের করে বললাম – তারপর কি করতে হবে নিলয়?

নিলয় বললো : এবার বিয়োগফলটিকে আবারও উল্টো করে লিখে বিয়োগফলটির সাথে তা যোগ করে ফেলো।

আমি কাগজে লিখলাম (১৯৮+৮৯১) = ১০৮৯

এবার নিলয় ওর পকেট থেকে একটি ভাজ করা কাগজ আমার হাতে তুলে দিলো। আমি কাগজটির ভাজ খুলে দেখি সেখানে লেখা রয়েছে আমার উত্তর – ১০৮৯। অবশ্য নিলয়ের উত্তরটি দেখে আমি অবাক হইনি, কারণ আমিও জানতাম উত্তর ১০৮৯ই হবে।

এবার আসল কথা বলি, এই একই কাজ করে আপনিও যেকাউকেই চমকে দিতে পারবে যদি তাদের এই বিষয়টি জানা না থাকে।

ABC-CBA = DEF
DEF+FED = ১০৮৯

উপরের যোগ-বিয়োগ গুলি একটু লক্ষ্য করুন। উপরের অক্ষরগুলিতে ABC এর জন্য যেকোনো মান নিয়ে কাজ করলেই উত্তর সর্বদাই ১০৮৯ হবে। তবে A ও C এর মানের পার্থক্য অবশ্যই এক এর বেশি হতে হবে। বিশ্বাস না হলে আরেক বার চেষ্টা করে দেখুন-

৩৯১-১৯৩ = ১৯৮
১৯৮+৮৯১ = ১০৮৯।
প্রতিবার উত্তর সেই একই হবে।

নিলয় যেখাবে আগেই উত্তর লিখে রেখে আমাকে চমকে দিতে চেয়েছিলো তেমনি আপনারাও আপনাদের পরিচিতদের সেই ভাবে উত্তর আগেই লিখে রেখে চমকে দিতে পারবেন।

আরো দেখুন : কুইক ম্যাথ (১ম পর্ব) , কুইক ম্যাথ (২য় পর্ব)


এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের ঝিঁঝি পোকার বাগানে নিমন্ত্রণ।

comments

13 কমেন্টস

  1. আসলে ABC – CBA = ১৯৮ হবে সব সময়। কারণ,
    আমরা তিন অংকের যে কোন সংখ্যাকে এভাবে লিখতে পারি,
    ১০০A+১০B+১C=ABC যেমন, ৫৯৩=১০০*৫+১০*৯+১*৩ (* মানে গুণ)
    যেহেতু A , C অপেক্ষা ২ বেশি, তাই,
    ABC= ১০০(A+২)+১০B+১A=১০০A+২০০+১০B+A
    CBA=১০০A+১০B+(A+২) =১০০A +১০B+A+২
    ——————————————————————-
    ABC-CBA =২০০-২=১৯৮!!!!!!!!!!!!
    আর তাই, ১৯৮+৮৯১=১০৮৯!

    • হিমাদ্রী ভাই, আপনার বুঝতে সামান্য ভুল হয়েছে। আমি বলিনি যে সর্বদাই A , C অপেক্ষা ২ বেশি হবে। বরং বলেছি অন্তত্য ২ পার্থক্য থাকবে বা A ও C এর মানের পার্থক্য অবশ্যই এক এর বেশি হতে হবে। সেই হিবেসে-
      A=১, B=০, C=৮ নিলে হিসাবটি দাঁড়াবে

      ABC-CBA = ৮০১-১০৮ = ৬৯৩ (আপনার হিসাব অনুযাই ১৯৮ হয়নি)
      DEF+FED = ৬৯৩+৩৯৬ = ১০৮৯। (প্রামাণিত)

  2. If you want to fall asleep easier, it is best to go to bed when you are feeling particularly sleepy. Aiming to compel you to ultimately get to sleep within a predetermined time is not intending to help. Because you are not drained presently, you will simply result in laying there restlessly.

  3. obviously like your web site but you have to test the spelling on quite a few of your posts. A number of them are rife with spelling problems and I find it very bothersome to tell the reality then again I will certainly come again again.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.