মুখের সামনে ফনা তুলে আছে সাপ! কিংবা কানের পাশ দিয়ে বাতাস কেটে বেড়িয়ে গেল গুলি, থ্রিডি মুভির এই চার্ম পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই চোখে পরিধান করতে হয় থ্রিডি গ্লাস।

 

তবে কারো কারো কাছে চোখে ঢাউস আকৃতির এই গ্লাসগুলো পরতে খুবই বিরক্ত লাগে। কেউবা এই থ্রিডি গ্লাস পরতে হবে বলে থ্রিডি মুভিই দেখতো না। তাদের এই জ্বালা দূর করতে চলে এসেছে নতুন প্রযুক্তি।

 

এমআইটি নিউজ জানাচ্ছে, বিজ্ঞানীরা নতুন এক প্রযুক্তি আবিষ্কার করেছেন যাতে থ্রিডি মুভি দেখা যাবে থ্রিডি গ্লাস ছাড়াই। ফলে অনেকের কাছে থ্রিডি মুভি দেখা এখন অনেক সহজ হবে। কেননা যারা এমনিতেই পাওয়ার চশমা পরেন, তাদের জন্যে অন্য গ্লাস পরে মুভি দেখা আরো ঝামেলার মনে হতো।

 

কেননা থ্রিডি গ্লাস তো আর চশমা পরিধেয় ব্যক্তির চোখের পাওয়ার অনুযায়ী হয় না! তাই বিশেষ করে যারা চোখের পাওয়ার জনিত সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্যে এটা বিরাট এক সুখবর।

 

এবার তারা নিজেদের পাওয়ারের চশমা পরেই উপভোগ করতে পারবেন পছন্দের মুভি। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এতে করে সিনেমার স্ক্রিনে আনতে হয়েছে বিশেষ ধরনের পরিবর্তন। স্ক্রিনের পেছনে বেশ কিছু আয়না এবং লেন্স ব্যবহার করা হয়েছে যাতে আপনি থ্রিডি গ্লাস ছাড়াই থ্রিডি মুভির মজা নিতে পারেন।

 

 

থ্রিডি মুভিগুলো সাধারণত এক জায়গায় বসে অন্য এঙ্গেলের দৃশ্য দেখারও ব্যবস্থা থাকে। থ্রিডি চশমা ছাড়া যাতে অন্য এঙ্গেলের দৃশ্যও এক জায়গায় বসেই দেখা যায় সেজন্যেই এই বিশেষ ধরনের গ্লাস এবং লেন্সের ব্যবহার। এতে ৫০ সেটের আয়না এবং লেন্স ব্যবহার করা হয়েছে। যদিও বাণিজ্যিক উৎপাদনের ব্যাপারে এখনও কিছু জানা যায়নি তবে এর বেশ প্রটোটাইপ তৈরি করা হয়ছে। হয়তো অচিরেই এর বাণিজ্যিক উৎপাদন শুরু হবে। বর্তমানে এর পরীক্ষামূলক ব্যবহার একটি ল্যাবে করা হয়েছে।

 

এমআইটির কম্পিউটার সাইন্স এবং আর্টিফিসিয়াল ইন্টিলিজেন্স ল্যাব (সিএসএআইএল) এবং ইসরাইলের ওয়েইজমান ইনস্টিটিউট অব সাইন্সের কিছু গবেষক এই গবেষণায় অংশ নেন। তারা এই বিষয়ে একটি জার্নাল প্রকাশ করেন, যাতে এর বিস্তারিত দেয়া আছে।

 

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.