বিজ্ঞানী আলবার্ট আইনস্টাইন ১৯০৫ সালে বিংশ শতাব্দীতে পদার্থবিজ্ঞানের গুরুত্বপূর্ণ ও যুগান্তকারী যে তত্ত্ব প্রদান করেন তার নাম থিওরি অব রিলেটিভিটি যার বাংলা অর্থ আপেক্ষিকতার তত্ত্ব। এই তত্ত্বটি স্থান ও কাল ভেদে বস্তুর ধর্ম ও আচরণ ব্যাখ্যা করে থাকে। এছাড়াও কৃষ্ণগহবর,সুপারনোভা,মহাকর্ষের প্রভাবে আলোর বেঁকে যাওয়ারও ধারণা পাওয়া যায় এই তত্ত্ব থেকে।

যদিও তত্ত্বটি স্বাভাবিক দৃষ্টিতে বেশ সহজ। তিনি ধারণা করেন যে,পদার্থবিজ্ঞানের সূত্র সর্বত্র সমান। এছাড়াও তিনি ৩টি গুরুত্বপূর্ণ অনুসিদ্ধান্ত উপস্থাপন করেন। প্রথমত,পরম প্রসঙ্গবস্তু বলতে কিছু নেই। আমরা সবসময় একটি বস্তুকে প্রসঙ্গবস্তু কল্পনা করে তার সাপেক্ষে অন্য কোন বস্তুর বেগ,ভরবেগ পরিমাপ করি। প্রসঙ্গবস্তুর যে কোন পরিবর্তনে অপর বস্তুটির আপেক্ষিক ধর্মেরও পরিবর্তন ঘটে। তাই পরম গতি ও পরম স্থিতির অস্তিত্ব প্রকৃত অর্থে নেই।
দ্বিতীয়টি হচ্ছে,আলোর বেগ সবসময় সব জায়গায় সমান। এটি স্থির বা গতিশীল যে কোন বস্তুর সাপেক্ষে ধ্রুব থাকে।
তৃতীয়ত,আলোর চেয়ে বেশি গতিতে মহাবিশ্বের কোন কিছু যেতে পারে না ।

comments

কোন কমেন্ট নেই

LEAVE A REPLY

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.