টুইটারভিত্তিক বর্তমানের সবচাইতে হট নিউজ হল টুইটডেক কেনার চেস্টা করছে টুইটার। সাম্প্রতিক ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত রিপোর্টে এই সংবাদ দেওয়া হয়। রিপোর্টটি নিয়ে ইতোমধ্যেই একটি পোস্ট করেছেন আমিনুল ভাইয়া। টুইটার মূলত তাদের নিজস্বতাকে রক্ষা করার জন্য এই পদক্ষেপ গ্রহণ করতে যাচ্ছে। টুইটার ব্যবহারকারীদের জন্য যতগুলো টুইটার ক্লায়েন্ট আছে টুইটডেক সবচাইতে বেশি সমাদর পেয়েছে। তবে অনেকে ধারনা করছে টুইটার যদি টুইটডেককে কিনে নেয়, তাহলে এর কোন উন্নয়নতো হবেই না বরং এর কিছু সুবিধা বন্ধ করে দেয়া হতে পারে।

tweetdecklogo

আইফোন ও অ্যান্ড্রয়েডে ব্যবহারযোগ্য টুইটারের ডিফল্ট ক্লায়েন্ট নিয়ে ব্যবহারকারীদের মধ্যে তেমন কোন ক্রেজ দেখা যায় না। অনেকের মতে এগুলো বিরক্তিকর এবং এর বিকল্প হিসেবে টুইটডেকই সবচাইতে ভালো বলে তাদের ধারণা। আবার অনেক ব্যবহারকারী আছেন যারা টুইটারের মূল ওয়েবপেজ থেকেও টুইট করতে অপছন্দ করেন। আর এই কারণেই টুইটডেকের এত গুণগাণ।

সপ্তাহখানেক পূর্বে সিএনএন তাদের একটি সংবাদে জানিয়েছে UberMedia  নামক একটি প্রতিষ্ঠান টুইটারকে টক্কর দেওয়ার মত একটি সোশ্যাল নেটওয়ার্ক সাইট তৈরীর চেষ্টা চালাচ্ছে। টুইটডেককে কেনার জন্য এই UberMedia আগ্রহ প্রকাশ করেছিল। এই প্রতিষ্ঠানটিই আবার অনেক জনপ্রিয় সব টুইটার ক্লায়েন্ট UberTwitter, Echofon and Twidroyd এর মত অ্যাপ্লিকেশন তৈরী করেছে। বেশ কিছু দিন আগে টুইটার এই কোম্পানিটির Twidroyd নামক অ্যাপ্লিকেশন ব্লক করে দিয়েছে নীতিমালা ভঙ্গের দায়ে। প্রসঙ্গ অবহির্ভূত না হয়ে মূল আলোচনায় যাওয়া যাক। যেই ৫টি কারণে টুইটার “টুইটডেককে” কিনতে চায়।

  • বর্তমানে অধিক হারে টুইটারের জন্য বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত অ্যাপ্লিকেশন ডেভলপ করা হচ্ছে। অতিরিক্ত অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারকারীদেরকে বিভ্রান্ত করে ফেলছে। টুইটার চাইছে একটি নির্দিষ্ট প্লাটফরম তৈরী করতে যা ব্যবহারকারীরা নিজের সুবিধা মত ব্যবহার করতে পারে। টুইটার যখন প্রথম Tweetie কিনল তখন তারা তাদের অফিশিয়াল ব্লগে জানিয়েছিল-

People are looking for an app from Twitter, and they’re not finding one. So, they get confused and give up. It’s important that we optimize for user benefit and create an awesome experience.

যেহতু টুইটডেক অনেক জনপ্রিয় এবং বহুল ব্যবহৃত একটি ক্লায়েন্ট সেহতু এখন সময় এসেছে এই নিয়ে টুইটারের চিন্তা-ভাবনা করার।

  • টুইটডেক কেনার মাধ্যমে টুইটারের রক্ষণশীল মনোভাবই বেশি প্রকাশ পাবে। UberMedia যেহতু সবাইকে জানান দিয়ে বলে দিয়েছে যে তারা টুইটারকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মত সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট বানাবে সেহতু টুইটারও আশঙ্কা করছে যে তারা টুইটারের এক বৃহৎ অংশ তারা নিজেদের দিকে নেবে। UberMedia টুইটার সম্পর্কিত বিভিন্ন ভুল-ত্রুটি ও তাদের সমালোচনার মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের নিজেফের দিকে আর্কষণ করতে চায়। ১৪০ শব্দের মধ্যে টুইটের বাধ্যতাও এই সমালোচনায় প্রাধান্য পাবে। অপরদিকে টুইটডেকও তাদের ব্যবহারকারীদের নিজস্ব অ্যাকাউন্ট তৈরীর প্রস্তাব করছে। টুইটডেক যত নিত্য নতুন ফিচার যুক্ত করবে ততই ব্যবহারকারীরা ঝুঁকে পড়বে এর ওপর। মূলত যে যাই বলুক না কোন টুইটার আসলে টুইটডেককে ডেভলপের চেয়ে নিজেদের করে নিতেই বেশি মরিয়া।
  • জানা গেছে টুইটার চায় না যে তাদের নেটওয়ার্ক ব্যবহৃত ক্লায়েন্টগুলোতে ফেসবুক ও ফোরস্কয়ারের মত অন্য কোন সোশ্যাল নেটওয়ার্ক ব্যবহার করা হোক। কারণ টুইটডেক ফেসবুক সাপোর্ট করে। আবার Deck.ly এর মাধ্যমে ১৪০ শব্দের বড় আকারের টুইট করা যায়। সাইটটির অধিকর্তা মূল টুইটডেক।
  • টুইটডেকের ব্যবহার অভিজ্ঞতাকে টুইটার ডেস্কটপে কাজে লাগাতে চায়। এটা খুবই সহজ হবে যখন তারা মূল টুইটডেকটিকে কিনে নেবে।  টুইটডেকের মাল্টি ট্যাবিং সিস্টেম একে আরো ব্যবহার বান্ধব করে তুলেছে। এরই ফায়দা লুটতে চায় টুইটার।

টুইটার তাদের ব্যবহারকারীদের সুবিধা চেয়ে নিজেদের নিজস্বতাকে বেশি বড় করে দেখছে যা এত বড় প্রতিষ্ঠানের কাছে মোটেও কাম্য নয়। বেশিরভাগ ব্যবহারকারী টুইটডেক ব্যবহার করে কারণ টুইটডেকে টুইটার ছাড়াও অন্যান্য সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলো ব্যবহারের সুবিধা আছে। এখন দেখার পালা টুইটডেকের ভাগ্যে শেষমেস কি লেখা আছে।

comments

1 COMMENT

  1. খালিদ ভাইয়ার কথার সাথে সম্পূর্ণ একমত পোষণ করছি। টুইটার নিজেদেরকে বাচানোর জন্য এসব ছলচতুরি করছে। ধন্যবাদ সবাইকে জানানোর জন্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.