হিন্দি ছবি কই..মিল গ্যায়া যারা দেখেছেন, তাদের জন্য বুঝতে সুবিধা হবে। যুক্তরাষ্ট্রের একটি সংস্থা দীর্ঘদিন ধরে মহাকাশের বিভিন্ন গ্রহে তল্লাশি চালিয়ে যাচ্ছে এলিয়েনের খোঁজে। আমরা যদিও এলিয়েন বলতে ঢিঙঢিঙে শরীরের অদ্ভূতদর্শন প্রাণীকে কল্পনা করে থাকি, বস্তুত প্রাণের সন্ধান পাওয়া গেলে সেটাই এলিয়েন। তা যত ক্ষুদ্র পোকাই হোক না কেন। ভিনগ্রহে প্রাণীর খোঁজাখুঁজির কাজ চালিয়ে যাওয়া এই প্রতিষ্ঠানের নাম সেটি। সার্চ ফর এক্সট্রা-টেলেস্ট্রিয়াল ইন্টেলিজেন্স এর সংক্ষিপ্ত রূপ সেটি। তবে সাম্প্রতিক ঘটনা হলো এই যে, টাকার অভাবে পড়ে বেশ কিছু টেলিস্কোপ বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছে এই সংস্থা।

উল্লেখ্য, পৃথিবীতে স্থাপিত এসব টেলিস্কোপ ব্যবহার করে রেডিও যোগাযোগের চেষ্টা করা হয় বহির্বিশ্বের কোনো অজ্ঞাত প্রাণীর সঙ্গে। বলা বাহুল্য, গত ৫০ বছর ধরে সেটি এই কাজ চালিয়ে যাচ্ছে অসীম ধৈর্য্যের সাথে। তবে সফলতার হার একেবারেই শূণ্যের কোঠায়। আজ অবধি কোনো এলিয়েনের অস্তিত্বের প্রমাণ মেলেনি। আসেনি মহাকাশ থেকে কোনো জবাব। এদিকে অর্থনৈতিক মন্দার কারণে এর পেছনে প্রতি বছর মিলিয়ন ডলার খরচ জোগাতেও আর পারছে না সংস্থাটি। তাই নিতান্ত বাধ্য হয়েই মোট ৪২টি অ্যালেন টেলিস্কোপ অ্যারে নামক টেলিস্কোপের কাজ বন্ধ করে দিচ্ছে সেটি।

satএ বিষয়ে সেটির পরিচালক জিল টারটার সিনেট নিউজকে জানান, এটি তাদের কপালের দোষ যে যখনই তারা মহাকাশে রেডিও যোগাযোগের জন্য প্রচুর গ্রহ খুঁজে পেয়েছে, ঠিক তখনই খোঁজার কাজ চালানোর জন্য ফান্ড নেই তাদের কাছে। জানা গেছে, সরকারি ফান্ড এবং দাতাপক্ষের অনুদান কমে যাওয়ায় এই ৪২টি ডিশ বন্ধ করে দিতে হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের এয়ার ফোর্স কিছু ফান্ড দিতে পারে এমন কথা শোনা গেলেও আপাতত শিগগিরই ডিশগুলো চালু হওয়ার কোনো লক্ষণ নেই বলেই জানিয়েছে সংবাদ সংস্থাগুলো।

অবশ্য সিনেট নিউজ বলছে, সেটি’র উচিৎ গুগলের সঙ্গে যোগাযোগ করা কারণ মনে হচ্ছে মহাবিশ্বে প্রাণের অস্তিত্ব আছে কি না তা জানতে গুগল বেশ আগ্রহী। হয়তো শিগগিরই তারা নতুন অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করবে অ্যান্ড্রয়েডের জন্য যা ব্যবহারকারীকে এনে দিবে মাইক্রো-টেলিস্কোপ, যা ব্যবহার করে ব্যক্তিগতভাবেও ভিনগ্রহের প্রাণী খোঁজাখুঁজির কাজ চালানো যাবে, আশা করছে সিনেট নিউজ। 😀

comments

9 কমেন্টস

    • আমেরিকার টাকার অভাব নেই। তাদের বন্ধ করলেই আমাদের কি আর না করলেই কি। টাকা তো আর আমাদের দেশে দান করবে না। করলেও সেটা সরকারের পেটে যাবে। তাই আমি আশা করি খোঁজাখুঁজি চলুক। তাতে যদি বিস্ময়কর কোনো তথ্য পাওয়া যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.