উইন্ডোজ ব্যবহারকারীরা একই রকম ইন্টারফেস ব্যবহার করতে এক সময় বিরক্ত হয়ে পড়েন, কিন্তু নিজের পিসিতে বিরক্তি থাকা তো মোটেই চলবেনা। আর এই দূর করতে অনেকেই থার্ড পার্টির থীম ইউজ করেন যা কাষ্টমাইজড। কিন্তু এখানেও সমস্যা আছে। কারন আপনি ইচ্ছে করলেই এটা ইউজ করতে পারবেননা।

এর জন্য আপনি ম্যানুয়ালি বিভিন্ন প্রয়োজনীয় কাজ করতে হয়। আর এই কাজ করতে গিয়ে অনেকের ক্ষেত্রে হিতে বিপরীত হয়। কারন ঠিক ভাবে না করাতে পিসি হয়ে পড়ে আরো স্লো , সাথে আরো নানা রকম সমস্যা। কিন্তু ভাবুনতো আপনি যদি এই কাজ গুলো করতে পারেন একটা সফটওয়ারের মাধ্যমে তাও মাত্র কয়কটি ধাপে, তাহলে কেমন হবে????

হুম আজকের পোষ্টটি সাজানো হয়েছে কিভাবে “Universal Theme Patcher” এর সাহায্যে সহজেই থার্ড পার্টি থীম সেট করবেন, কিংবা অপছন্দ হলে আবার পূর্বের ডিফল্ট থীমে ফিরে আসবেন :)। তার আগে চলুন জেনে নিই এই টুলসটির সাহায্যে কি কি করা যাবে

“Universal Theme Patcher” এর ফিচার/ সাপোর্টকৃত উইন্ডোজ ভার্শনঃ

** Windows XP SP2 32-bit (x86)
** Windows XP SP2 64-bit (x64)
** Windows XP SP3 32-bit (x86)
** Windows XP SP3 64-bit (x64)
** Server 2003 32-bit (x86)
** Server 2003 64-bit (x64)
** Vista SP1 32-bit (x86)
** Vista SP1 64-bit (x64)
** Vista SP2 32-bit (x86)
** Vista SP2 64-bit (x64)
** Server 2008 32-bit (x86)
** Server 2008 64-bit (x64)
** Windows 7 32-bit (x86)
** Windows 7 64-bit (x64)

আপনাদের অবগতির জন্য জানিয়ে রাখি যখনি থীম ইনষ্টল করতে যাবো আমাদের উইন্ডোজ XP,Vista or 7 এর তিনটি ডিএলএল ফাইল প্যাচ করতে হবে, সেগুলো হলো

** uxtheme.dll
** themeui.dll
** themeservice.dll

আর এই ফাইলগুলোর ফোল্ডার লোকেশান হল “%windir%\System32” ফোল্ডারে।
থীম ইনষ্টল করার পুরো পদ্ধতিঃ

০১. প্রথমে “Universal Theme Patcher” নামিয়ে আপনার উইন্ডোজের প্রয়োজনিয় EXE ফরমেটের ফাইলটি চালু করে লেঙ্গুয়েজ সিলেক্ট করুন
০২. ওকে ক্লিক করার পর এটা আপনার অপারেটিং সিষ্টেম ডিটেক্টকরে সিষ্টেম ফাইল এর অবস্থা জানাবে। কনফার্মেসানের জন্য ইয়েস চাপুন।
০৩. ইয়েস চাপার পর টুলসতির ইন্টারফেসে আপনাকে প্যাচ (patch) করার অপশান দিবে। ৩ টিই প্যাচ করুন।
০৪. পরবর্তীতে রিষ্টোর করতে সাথে সাথেই রিষ্টোর অপশান এনাবল হয়ে যাবে।
০৫. পিসিটিকে রিষ্টার্ট করুন।
০৬. এবার আপনি সহজেই যেকোন থীম ইউজ করতে পারবেন কোন সমস্যা ছাড়াই।
০৭. এবার “%windir%\Resources\Themes” এই ডিরেক্টরিতে আপনার থীমের ফোল্ডারটি কপি করুন যেখানে (যেখানে %windir% মানে “Windows” যা আপনার সি ড্রাইভেই থাকার কথা)
০৮. এবার ওখানে থেকেই .theme(যেমন LuckyFm.theme) ফাইলটিতে ডাবল ক্লিক করুন। ব্যাস কাজ হয়ে এবার পরিবর্তন করুন ইচ্ছে মত যেকোন থীম 🙂

Universal Theme Patcher ডাউনলোড

টপ ২৫ টি থীম ইনষ্টল করুন মিডিয়াফায়ার থেকে

আর বুঝতে সমস্যা হবার কথা নয়, তারপর ও কোন সমস্যায় পড়লে মন্তব্যের মাধ্যমে অথবা ফেইসবুকে জানাতে ভুলবেননা কিন্তু

comments

21 কমেন্টস

  1. একটা পোস্ট লেখার জন্য সত্যি অনেক ধৈর্যের প্রয়োজন। এত সুন্দর একটি পোস্ট আমাদের সাথে শেয়ার করার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ। লেখাটি পছন্দের তালিকায় রাখলাম !!! 🙂

    • ধন্যবাদ আপনার সুন্দর একটা মন্তব্যের জন্য
      আসলে লেখাটাকে লিখতে গেলে কেমন যেন ভালোলাগা কাজ করে 🙂
      আবারো ধন্যবাদ

  2. কি আর বলবো বরাবরের মত জটিল পোস্ট…………আর হ্য আমি একটা জিনিস খেয়াল করছি আমাদের বিজ্ঞান প্রযুক্তি আনেক জনপ্রিয় হচ্ছে আনেক বড় বড় লেখকের আগমন হচ্ছে সবাই কে আমার পক্ষ হতে আসংক ধন্যবাদ।

      • লাকি ভাই ক্ষমা করবেন আমি আমার বলিনি আমাদের সবার বলেছি আপনাদের মত বড় লেখকরা আছেন বলে বাংলা সাইড গুলো আরো গতিময় হচ্ছে আমরা প্রযুক্তি সমন্দে আনেক কিছু জানতে পারছি।ভালো থাকবেন

        • রাসেল ভাই এখানে ক্ষমা চাওয়ার কিছু নেই, আমি জাষ্ট বুঝিয়েছি যে বিপি আমাদের সবার 🙂
          কুল ডাউন ম্যান 🙂

  3. ২৫ টা থিম আগে ট্রাই করি তারপর ধন্যবাদ কি বলেন বাই(ভাই);-)

    • অবশ্যই চেষ্টা করবেন
      আর হা ক্মেওন লাগলো জানাতে ভুলবেননা কিন্তু 😉
      আর হা প্রচিডিউর ঠিক করে ফলো করবেন কিন্তু

  4. প্রেরক :
    মাহফুজ, মোহাম্মাদপুর, ঢাকা । ই-মেইল # mahfuz08@yahoo.com

    ব্লগারদের কাছে কিছু প্রশ্নের উত্তর চাই।

    ১/ উইন্ডোজ # ৭ উপরের আপগ্রেড কনফিগারেশনে চালানো সম্ভব কিনা ?
    ৩২ বিট এবং ৬৪ বিট – এর মধ্যে কোনটি উপরের আপগ্রেড কনফিগারেশনে চালানো সম্ভব ?
    উইন্ডোজ # ৭ – এর মধ্যে কি কি ভাগ আছে এবং কোনটি ভালো ?
    ১ বা ২ টেরাবাইট হার্ডডিস্কের পার্টিশন কি পরিমাণে ভাগ করা হবে ?
    আমি যদি অন্যান্ন সফ্টওয়ার প্রোগ্রাম ফাইলের ডিরেক্টরি এবং মাই ডকুমেন্ট সি এর পরিবর্তে ডি ড্রাইভে
    ইন্সটল করতে চাই তবে উইন্ডোজ # ৭ – এ প্রোগ্রাম ফাইলের পাথ (রুট ডিরেক্টরি) কি ভাবে পরিবর্তন
    করতে হয় ?
    বড় হার্ডডিস্কের ব্যবহারের ফলে উইন্ডোজ # ৭ বা এক্স-পিতে কোন সমস্যা হয় কিনা ?

    ২/ আমার কম্পিউটারে ইন্টারর্নাল সাটা হার্ডডিস্ক আছে যা ৮০ গিগা. । আমি একে এক্সট্রার্নাল হার্ডডিস্কে
    রুপান্তর করতে চাই।
    ‌ইন্টারর্নাল সাটা হার্ডডিস্ক কে এক্সট্রার্নাল হার্ডডিস্কে রুপান্তর করার সহজ উপায় কি ?
    ইন্টারর্নাল সাটা হার্ডডিস্ক কে ইউ.এস.বি এক্সট্রার্নাল হার্ডডিস্কে রুপান্তর করা যায় কি না এবং কি ভাবে?

    বি.দ্রু. : দয়া করে উত্তরটি অভ্র বা ইউনিকোডের মাধ্যমে বাংলায় এম.এস.ওয়ার্ড ফাইলে লিখে তা ই-মেইলে
    যুক্ত করে পাঠান ।

  5. প্রেরক :
    মাহফুজ, মোহাম্মাদপুর, ঢাকা । ই-মেইল # mahfuz08@yahoo.com

    আমার কম্পিউটার আপগ্রেড করব। তাই ব্লগারদের কাছে কিছু প্রশ্নের উত্তর চাই। আমি কম্পিউটারটি ২৪/০৭/২০০৬ ইং তারিখে কিনেছি। বর্তমানে কোন ওয়ারেন্টি নেই । তাই উল্লেখিত সব গুলো বিষয় আপগ্রেড হবে কিনা দ্রুত জানতে চাই। আমার বাসায় কোন টেকি লোক নেই। দয়া করে উত্তরটি অভ্র বা ইউনিকোডের মাধ্যমে বাংলায় এম.এস.ওয়ার্ড ফাইলে লিখে তা ই-মেইলে যুক্ত করে পাঠান ।

    পিসি কনফিগারেশন হচ্ছে :

    প্রসেসর :
    ইন্টেল পেন্টিয়াম ৪ , সি পি ইউ : ২.৬৬ গিগাহার্টজ।

    মাদারবোর্ড :
    মডেল নেম # জিএ – ৮❙৯১৫ এমডি – জিভি
    ইন্টেল # ৯১৫ জিভি / আই.সি.এইচ. # ৬
    পি ৪ সকেট ৭৭৫ / মাইক্রো এ.টি.এক্স
    গিগাবাইট এল. জি. এ. ৭৭৫, ইন্টেল পেন্টিয়াম ৪ ।
    ইন্টেল বায়স # ইন্টেল ৯১৫ জিভি ফর ৮❙৯১৫ এমডি – জিভি এফ ২।

    অপারেটিং সিস্টেম :
    উইন্ডোজ এক্স-পি প্রফেশনাল।

    মনিটর :
    ১৭ ইঞ্চি সিআরটি মনিটর ।
    র্যা ম :
    ডিডিআর -২ র্যা ম # ১ গিগাবাইট ।

    নিচের বিষয় গুলো আপগ্রেড হবে। কিন্তু প্রসেসর এবং মাদারবোর্ড বদল করা হবে না।

    ১/ আমি ডিডিআর -২ র্যা ম ২ গিগাবাইট কিনব। মাদারবোর্ডে ২ গিগাবাইট পর্যন্ত ব্যবহার করা যায়
    এবং ২টি র্যাামের স্লট আছে ।
    আমি কি ডিডিআর -২ র্যা ম ২ গিগাবাইটের ১টা কিনব, নাকি ১ গিগাবাইটের ২টা কিনব ?
    যেহেতু ২টি র্যাামের স্লট আছে , তাই ২ টি নাকি ১ টি র্যাখম , কোনটি বেশী কর্যকর হবে ?
    র্যা ম কোনটি কিনবো , তা কি ভাবে নির্ধারণ করব ?
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ২/ আমি ১ অথবা ২ টেরাবাইট সাটা হার্ডডিস্ক কিনব।
    উপরের কনফিগারেশনে ১ অথবা ২ টেরাবাইট সাটা হার্ডডিস্ক ব্যবহার করা যাবে কিনা ?
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ৩/ উইন্ডোজ # ৭ উপরের আপগ্রেড কনফিগারেশনে চালানো সম্ভব কিনা ?
    ৩২ বিট এবং ৬৪ বিট – এর মধ্যে কোনটি উপরের আপগ্রেড কনফিগারেশনে চালানো সম্ভব ?
    উইন্ডোজ # ৭ – এর মধ্যে কি কি ভাগ আছে এবং কোনটি ভালো ?
    ১ বা ২ টেরাবাইট হার্ডডিস্কের পার্টিশন কি পরিমাণে ভাগ করা হবে ?
    আমি যদি অন্যান্ন সফ্টওয়ার প্রোগ্রাম ফাইলের ডিরেক্টরি এবং মাই ডকুমেন্ট সি এর পরিবর্তে ডি ড্রাইভে
    ইন্সটল করতে চাই তবে উইন্ডোজ # ৭ – এ প্রোগ্রাম ফাইলের পাথ (রুট ডিরেক্টরি) কি ভাবে পরিবর্তন
    করতে হয় ?
    বড় হার্ডডিস্কের ব্যবহারের ফলে উইন্ডোজ # ৭ বা এক্স-পিতে কোন সমস্যা হয় কিনা ?

    ৪/ সাটা ডিভিডি রাইটার কিনব ।
    সাটা ডিভিডি রাইটার পাওয়া যায় কিনা এবং কোথায় ?
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ৫/ গ্রাফিক্স কার্ড কিনব , যাতে ভারি গেম খেলা যায় ।
    আমার মাদারবোর্ড এবং উপরের আপগ্রেড কনফিগারেশনে কোন ধরনের এবং কত শক্তিশালী গ্রাফিক্স
    কার্ড কিনব ?
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ৬/ ইন্টারনাল ডায়াল-আপ মডেম কিনব, যাতে ইন্টারনেট, ফোন এবং ফ্যাক্স ব্যবহার করা যায় ।
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ৭/ ইন্টারনাল টিভি কার্ড কিনব ।
    ডিস লাইন ছাড়া ইন্টারনাল টিভি কার্ডের মধ্যমে কি ভাবে টিভি দেখা যায় ?
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ৮/ পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট কিনব , যাতে উপরের কনফিগারেশনে কোন ধরনের সমস্যা না হয় ।
    কত ওয়াট পিএসইউ কিনতে হবে ?
    কোন ডিভাইস কি পরিমাণ কারেন্ট টানবে ?
    অধিক পাওয়ারের পিএসইউ কিনলে আইপিএস এর ব্যাকআপ কমে যায় কিনা ?
    কোন কোম্পানি ভালো এবং এর দাম কত ?

    ৯/ আমি ট্রান্সসেন্ড জে এফ ৩০ পেন-ড্রাইভ ব্যাবহার করি, যা ৪ গিগাবাইট। এটা ৩/৪ বছর আগে কিনা
    হয়েছে, এটা উইন্ডোজ এক্স-পি সাপোর্ট করে।
    আমি এটা উইন্ডোজ # ৭ এর সাথে চালাতে পারব কিনা ?

    ১০/ আমার মাদারবোর্ডে কোন ধরণের এবং ক্ষমতা সম্পূর্ণ গ্রাফিক্স কার্ড বিল্টইন আছে , তা কি ভাবে বুঝব ?
    মাদারবোর্ডের কনফিগারেশন কি ভাবে লিখে পাঠাতে হয় ?

    ১১/ মাদারবোর্ডের ফিচারে দেখা যায় যে, চিপসেট , অনবোর্ড ল্যান, আইডিই কানেকশানস,অনবোর্ড সাটা –
    এ ( সাপোর্টেট অন দি উইন ২০০০ / এক্স-পি অপারেটিং সিস্টেমস ) লিখা আছে ।
    উইন্ডোজ # ৭ অপারেটিং সিস্টেম চালু করলে ব্রডব্যান্ড লাইন বা অন্য কোনো ইন্টারনেট লাইনে
    কোনো সমস্যা হবে কিনা ?
    চিপসেটের ক্ষেত্রে উইন্ডোজ # ৭ অপারেটিং সিস্টেম চালু করলে কি ধরনের সমস্যা হবে ?

    ১২/ উইন্ডোজ # ৭ এবং উইন্ডোজ এক্স-পি এর মধ্যে কোনটি কেন ব্যাবহার করা উচিত বা ভাল ?
    ৩২ বিট এবং ৬৪ বিট – এর মধ্যে কোনটি কেন সুবিধাজনক বা অসুবিধাজনক ?

    ১৩/ বর্তমান মাদারবোর্ডের পরিপ্রেক্ষিতে আমি যদি নতুন প্রসেসর কিনতে চাই, তবে ইন্টেলের কোন ধরনের
    এবং কি পরিমাণ শক্তিশালী প্রসেসর কিনা যাবে ?

    ১৪/ আমি কম্পিউটারটি ২৪/০৭/২০০৬ ইং তারিখে কিনেছি। বর্তমানে কোন ওয়ারেন্টি নেই।
    তাই উল্লেখিত সব গুলো বিষয় প্রসেসর এবং মাদারবোর্ড বদল না করে আপগ্রেড হবে কিনা ?

    ১৫/ ব্রাউজারে অভ্র কিবোর্ডে লিখতে গেলে যুক্ত অক্ষর হয় না ।
    যুক্ত অক্ষরের মাঝে ্‌ থাকে ।
    যেমন :
    শিক্ষা = শিক্‌ষা
    এর ফলে গুগল সার্চ ঠিক মত হয় না।
    এই সমস্যা থেকে মুক্তির উপায় কি ?

    ১৬/ ফায়ার ফক্স # ৪ – এর এড-অনস ইন্সটল করা যাচ্ছে না।
    কাজেই ব্যাকআপ এড-অনস পাওয়া গেলে তা ইন্সটল করা যেত।
    এটা কোথায় পওয়া যাবে ?

    ১৭/ আমার কম্পিউটারে ইন্টারর্নাল সাটা হার্ডডিস্ক আছে যা ৮০ গিগা. । আমি একে এক্সট্রার্নাল হার্ডডিস্কে
    রুপান্তর করতে চাই।
    ‌ইন্টারর্নাল সাটা হার্ডডিস্ক কে এক্সট্রার্নাল হার্ডডিস্কে রুপান্তর করার সহজ উপায় কি ?
    ইন্টারর্নাল সাটা হার্ডডিস্ক কে ইউ.এস.বি এক্সট্রার্নাল হার্ডডিস্কে রুপান্তর করা যায় কি না এবং কি ভাবে?

    ১৮/ আমার কম্পিউটারে ইসেট স্মার্ট সিকিউরিটি এন্টিভাইরাস আছে। আমার ইন্টারনেট কানেকসান আছে।

    বিভিন্ন পত্রিকায় দেখলাম ইন্টারনেট কানেকসান থাকলে এন্টিভাইরাসের পাশাপাশি ইন্টারনেট সিকিউরিটি
    এবং এন্টিম্যালওয়ার ইন্সটল থাকতে হবে।তার মানে উক্ত ৩ টি জিনিস কি একই সাথে ইন্সটল থাকতে হবে ?

    ইসেট স্মার্ট সিকিউরিটি এন্টিভাইরাসের পাশাপাশি আর কি কি সতর্কতা মূলক জিনিস ইন্সটল এক সাথে রাখা যাবে ?

    ফ্রি হিসাবে যে সব সতর্কতা মূলক জিনিস ইসেট স্মার্ট সিকিউরিটি এন্টিভাইরাসের পাশাপাশি একই সাথে
    রাখা যাবে সেগুলোর মধ্যে সব চেয়ে ভালো কোন গুলা ?

    যেমন নড ৩২ তেমন ভাল লিন্ক চেকারের নাম কি ?

    ভাল পি ডি এফ চেকার হিসেবে কি ব্যবহার করা যায় ?

    উপরের সব গুলা কি একই সাথে ব্যাবহার করা যায়, যেমন: ইসেট স্মার্ট সিকিউরিটি ও পান্ডা ভ্যাকসিন?

    ম্যালওয়ার কম্পিউটারে ঢুকে গেলে কি করে বুঝব এবং কি করব ?

    পেনড্রাইভে যদি অন্য কম্পিউটার থেকে আগে থেকেই ম্যালওয়ার autorun.inf ফাইল প্রবেশ করে তবে
    এবং তা ইতিমধ্যে আমার কম্পিউটারে ব্যবহার করা হয় তবে এখন কি করা যাবে ?

    ভাইরাস মুক্ত রাখার জন্য এডবি রিডারে স্ক্রিপ্টকে নিষ্ক্রিয় করার জন্য পিডিএফ এডিট অফসনে গিয়ে
    Enable menu items JavaScript execution privileges – টিক চিন্হ দিয়ে ওকে করতে হবে কিনা ?

    দয়া করে উল্লেখিত সব গুলো বিষয় প্রশ্নের
    উত্তর দিলে বাধিত হব ।

    বি.দ্রু. : দয়া করে উত্তরটি অভ্র বা ইউনিকোডের মাধ্যমে বাংলায় এম.এস.ওয়ার্ড ফাইলে লিখে তা ই-মেইলে
    যুক্ত করে পাঠান ।

  6. ঝামেলাহীন ভাবে উইন্ডোজ এক্সপি/ভিসতা/৭ এ কাস্টমাইজড থীম ব্যবহার করুন : বিজ্ঞান ☼ প্রযুক্তি
    ugg sale

  7. Great post! You see, I’m currently working on a blog post and, depending on where my writing takes me, I might just put a citation for this post in it. I hope you won’t mind if I do. Anyway, people all over are making their own takes on what makes for a great muscle building program/routine. The way I see it is that all the things that they are saying nay, preaching can be rolled up into one thing and that is having the self-discipline to follow-through with whatever it is that you are doing. Personally, I strongly believe that following through is the singular most important ingredient in attaining success, not only in bodybuilding/building muscles but in life in general. Once again, wonderful post. Keep it up! I hope you won’t mind if I look around your blog a bit more.
    Christian Louboutin Blue white stripes linen bottom shoes

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.