সমাপণী অনুষ্ঠানে নিজেদের মেডেল উঁচিয়ে প্রতিজ্ঞা করে প্রোগ্রামাররা ছবি সূত্রঃ নিজস্ব প্রতিনিধি

বাংলাদেশ এক অফুরন্ত সম্পদের ভান্ডার। এই সম্পদ হচ্ছে তার দক্ষ জনশক্তি এবং নতুন প্রজন্ম। আজকের দিনে বিজ্ঞান শিক্ষার ব্যতীত উন্নয়ন সম্ভব নয়। সে প্রয়াসেই বাংলাদেশ সরকার চেষ্টা করে যাচ্ছে নতুন প্রজন্মের শিশু কিশোররা বিজ্ঞান শিক্ষায় যাতে আগ্রহী হয়। এই লক্ষ্যেই হাইস্কুল পর্যায় থেকেই করা প্রতি বছর করা হচ্ছে প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা।

জমজমাট আয়োজনে শেষ হল তৃতীয় বারের মত আয়োজিত “জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা ২০১৭’। সারা দেশের মোট ১৯টি অঞ্চল বা জোন থেকে ১,২০০ জন বিজয়ীদের নিয়ে জাতীয় পর্বের এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

অর্গানাইজারদের সাথে প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন সেন্ট জোসেফ কলেজের ছাত্র ছবি সূত্রঃ বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক
অর্গানাইজারদের সাথে প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন সেন্ট জোসেফ কলেজের ছাত্র
ছবি সূত্রঃ নিজস্ব প্রতিনিধি

তথ্য প্রযুক্তি ব্যতিরেকে একটি দেশ কখনো উন্নয়ন লাভ করতে পারে না। আধুনিক বিশ্বের তাই স্লোগান “ইনফরমেশন ইজ পাওয়ার” অর্থাৎ তথ্যই হচ্ছে শক্তি। একজন ব্যক্তির কাছে যত তথ্য থাকবে, সে ততই শক্তিশালী হবে ও দেশ তার থেকে কিছু আশা করতে পারবে। মাননীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক কিশোর প্রোগ্রামারদের উদ্দেশ্যে বলেন,

“তোমরাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। আগামী দিনের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার সবচেয়ে বড় হাতিয়ার তোমরাই।” তিনি আরো বলেন ২০০৯ সালে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০২১ সালের ভেতর একটি স্কিম বা পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন যার মূলকথা হচ্ছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিতে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলা। তাই স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়গুলোতে প্রোগ্রামিং শিক্ষার ওপর বিশেষ জোর দেয়া হচ্ছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর শুরু হয় জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার মূল পর্ব। এর পর মূল ভেন্যু কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হয় কুইজ প্রতিযোগিতা। এরপর আসে প্রশ্নোত্তর পর্ব, সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্কের সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোবটিক্স এন্ড মেকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান লাফিফা জামাল।

পুরস্কার বিতরণী ও সমাপণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোঃ হারুনুর রশিদ, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালসহ আরও অনেকে।

সমাপণী অনুষ্ঠানে অতিথিদের সাথে কিশোর প্রোগ্রামাররা ছবি সূত্রঃ বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক
সমাপণী অনুষ্ঠানে অতিথিদের সাথে কিশোর প্রোগ্রামাররা
ছবি সূত্রঃ নিজস্ব প্রতিনিধি

প্রতিযোগিতায় সমাপণী অনুষ্ঠানে জাফর ইকবাল বলেন, “জিপিএ ফাইভ পাওয়ার সাথে সাথে ভালো মানুষ হওয়াও প্রয়োজন। কষ্ট করে মুখস্থ করার দরকার নেই। আনন্দ নিয়ে পড়লে এমনিতেই পড়া মনে থাকবে।”

অনুষ্ঠানে গান পরিবেশনা করেন মাহমুদুজ্জামান বাবু ও সন্ধি।

আয়োজনে প্রয়োজনীয় কারিগরি, ইভেন্ট ও নলেজ সহায়তা দিয়েছে বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক।

 

সূত্রঃ বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক

comments

কোন কমেন্ট নেই

LEAVE A REPLY

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.