ক্স বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় স্মার্টফোন প্রতিষ্ঠানের নতুন গ্লোবাল ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর বিশ্বের সেরা ফুটবলার
ক্স যোগাযোগের ক্ষেত্রে উদ্ভাবনী ভূমিকা রেখে হুয়াওয়ে যেভাবে বর্তমান অবস্থানে পৌঁছেছে সেভাবে শ্রেষ্ঠ অবস্থানে পৌঁছাতে সংগ্রাম করার ক্ষেত্রে বিশ্বের কোটি কোটি মানুষকে অনুপ্রেরণা দেয় লিওনেল মেসির উদ্যম ও আগ্রহ

[ঢাকা, মার্চ ১৮, ২০১৬] তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিখাতে বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে তাদের নতুন গ্লোবাল ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে লিওনেল মেসির নাম ঘোষণা দিয়েছে। লিওনেল মেসির সাথে প্রতিষ্ঠানটির এ চুক্তি সারাবিশ্বের মানুষের সাথে তাদের ব্র্যান্ড একীভূতকরণ এবং শ্রেষ্ঠত্বের সঙ্গে সবাইকে যুক্ত করাকেই প্রকাশ করে।

আমরা যা করতে চাই ও যেটা ভালোবাসি সেটা অর্জনে আমাদের সকল বাধা অতিক্রম করে যেতে হবে। শ্রেষ্ঠ অর্জনের সাথে আমাদের যুক্ত হতে মূল্য দিতে হবে সমৃদ্ধি, অভিজ্ঞতা ও সংগ্রামকে। আমাদের আজকের অবস্থান আমাদের এ ইতিহারেই অংশ। সাফল্য মানুষকে এগিয়ে নিয়ে যায় না বরং প্রতিকূলতাই মানুষকে সামনের দিকে নিয়ে যায় আর এটাই লিওনেল মেসি ও হুয়াওয়েকে এক করে দিয়েছে।

বিশেষ করে ইউরোপ, এশিয়া ও লাতিন আমেরিকায় যেখানে হুয়াওয়ে নিবিড়ভাবে কাজ করছে। আমরা উভয়েই সম্মান জানাচ্ছি, যে পথ আমরা অতিক্রম করেছি এবং প্রতিটি নতুন চ্যালেঞ্জের সাথে আমরা আমাদের নতুনভাবে অঙ্গীকার করবো সফলতার পথ খুঁজে পেতে। বলেন, ।

হুয়াওয়ে কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপের হ্যান্ডসেট বিজনেস বিভাগের প্রেসিডেন্ট কেভিন হো বলেন, ‘সারাবিশ্ব বিশেষ করে ইউরোপ, এশিয়া ও লাতিন আমেরিকায় যেখানে হুয়াওয়ে উৎসর্গীকৃতভাবে কাজ করছে সেখানে মনোযোগী ও অধ্যাবসায়ী হওয়া এবং যুগান্তকারী পরিবর্তনের মাধ্যমে শ্রেষ্ঠত্বের সাথে যুক্ত হওয়ার জন্য মানুষকে অনুপ্রেরণা দেয়ার মাধ্যমে লিওনেল মেসি আমাদের ব্র্যান্ডকে সহায়তা করবে। সকল প্রতিকূলতা পেছনে ফেলে আমরা যে পথ অতিক্রম করেছি আমরা উভয়েই এটাকে সম্মান জানাচ্ছি। যেকোনো প্রতিকূলতায় পথ খুঁজে পেতে আমরা নতুনভাবে অঙ্গীকার করবো।’

গ্রাহকদের শ্রেষ্ঠত্বের সাথে যুক্ত করার মাধ্যমে তাদের প্রতি আমাদের আস্থা ও আগ্রহের প্রকাশ পেয়েছে। একইভাবে এ ধারণাটি লিওনেল মেসির জীবন ও কাজেরও প্রতিফলনস্বরূপ। পেশাদার ফুটবল খেলার জন্য আগ্রহ ও স্বপ্নের সাথে তাদের জীবনকে এক করে দিতে যতটুকু করা সম্ভব মেসি ও তার পরিবার সেটা করেছে। এমনকি তারা এজন্য তাদের মাতৃভূমি ছেড়ে চলে গেছে।
এ নিয়ে হুয়াওয়ে লাতিন আমেরিকার কনজ্যুমার বিজনেস গ্রুপের সিইও তাইরোন লিউ বলেন, ‘যে সারাবিশ্বের মানুষকে তাদের স্বপ্নকে ছোয়ার জন্য প্রতিদিন একটু একটু করে সব বাধা অতিক্রম করে এগিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরণা দেয় এমন একজন অসাধারণ ব্যক্তিত্বের সাথে একসাথে কাজ করার ঘোষণা দিতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। সবসময় শ্রেষ্ঠত্বের শীর্ষে পৌঁছানোর অপেক্ষায় থাকে এ মানুষটি এখন থেকে হুয়াওয়ে ব্র্যান্ডের সাথে একসাথে সব কাজ করবে।’

হুয়াওয়ে বিশ্বাস করে খেলার মাধ্যমে মানুষ জীবনকে সমৃদ্ধ করে তুলতে পারে। এজন্য সব খেলা বিশেষ করে ফুটবলের প্রতি আমরা অঙ্গীকারাবদ্ধ। গত কয়েক বছরে আমরা আমেরিকা, সান্তা ফে, স্পোর্টিং ক্রিস্টাল, আর্সেনাল, অ্যাথলেটিকো ডে মাদ্রিদ ও এসি মিলানে বিনিয়োগ করেছি। এটা সারাবিশ্বের মানুষকে অনুপ্রেরণা দিয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি, রবার্ট লেভনডস্কি, অ্যালেক্সিস সানচেজ ও বর্তমানে মেসি সবাই আমাদের আমাদের ব্র্যান্ড ভ্যালু শেয়ার করেছে।

লিওনেল মেসি বলেন, ‘স্বপ্নের কাছে পোঁছানোর জন্য আপনাকে সংগ্রাম করতে হবে। শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনে আপনাকে অনেক কিছু ত্যাগ করে নিজের স্বররবস্ব ঢেলে দিতে হবে। যেদিন আপনি ভাববেন উন্নতি করার আর কোনো জায়গা নেই তখন আপনাকে অন্যকিছু অর্জনে কাজ করে যেতে হবে।’

শ্রেষ্ঠত্ব, নতুনত্ব ও প্রতিশ্রুতি পূরণে কাজ করে যাওয়ার মাধ্যমে হুয়াওয়ে বিশ্বের প্রধান তিনটি স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের একটিতে পরিণত হয়েছে। মেইট, পি ও জি সিরিজের ফ্ল্যাগশিপ মডেলের অসাধারণ পারফরমেন্স ও ডিজাইনের নৈপূণ্য সারাবিশ্বের উচ্চপ্রযুক্তি সম্পন্ন ফোন ব্যবহারকারীদের মধ্যে জনপ্রিয় ও সেরা মোবাইল ডিভাইসে পরিণত হয়েছে। যেসব স্মার্ট প্রফেশনাল নতুন স্টাইল ও নতুন সব সেবার দিকে ঝুঁকছেন তাদের জন্য রয়েছে মেইট এইট। গত ২৬ নভেম্বর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর থেকে এখন পর্যন্ত সারাবিশ্বে গ্রাহকদের জন্য প্রায় ৩ মিলিয়ন মেইট ৮ রপ্তানি করেছে হুয়াওয়ে।

 

হুয়াওয়ে কনজিউমার বিজনেস গ্রুপ

হুয়াওয়ে বর্তমানে ১৭০টিরও বেশি দেশে নিজেদের পণ্য ও সেবা পরিচালনা করছে, যেখানে সারাবিশ্বের মোট জনসংখ্যার প্রায় এক-তৃতীয়াংশ অন্তর্ভুক্ত। গত বছর সারাবিশ্বে তৃতীয় সর্বোচ্চ মোবাইল ফোন রফতানি করেছে প্রতিষ্ঠানটি। যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, সুইডেন, রাশিয়া, চীন ও ভারত মিলে বর্তমানে হুয়াওয়ের ১৬টি রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (আরঅ্যান্ডডি) সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। তৃতীয় বিজনেস ইউনিট হিসেবে হুয়াওয়ে কনজিউমার বিজি-এর আওতায় আছে স্মার্টফোন, মোবাইল ব্রডব্যান্ড ডিভাইসেস, হোম ডিভাইসেস এবং ক্লাউড সার্ভিসেস। প্রায় ২০ বছর ধরে টেলিকম খাতে সফলতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে হুয়াওয়ের গ্লোবাল নেটওয়ার্ক। সারাবিশ্বের মানুষকে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারে অগ্রগামী করার জন্য হুয়াওয়ে নিরলসভাবে কাজ করছে।

বিস্তারিত অনুসন্ধানের জন্য ভিজিট করুন: consumer.huawei.com/en/

বিস্তারিত জানতে:
ফারহাত আহমেদ
ফোরথট পিআর
ইমেইল: farhat@forethoughtpr.com
মোবাইল: +৮৮০ ১৭১৯৩১০৬৭৯

comments

1 COMMENT

  1. হুয়াওয়ে আর মেসি ভক্তদের জন্য সুখবর। আসা করি হুয়াওয়ে আরো নতুন নতুন প্রোডাক্ট নিয়ে তাদের ভক্তদের সামনে হাজির হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.