যদি মনে করে থাকেন, আপনার সব গোপন কিছু রাখার জন্য আপনার মন একমাত্র নিরাপদ গোপনীয় স্থান, তাহলে আপনাকে নতুন করে ভাবতে হবে। কেননা বিজ্ঞানীরা এমন একটি মেশিন আবিষ্কার করেছেন যেটি মানুষের মনের খবরাখবর বলে দিতে পারবে।

বিজ্ঞানীরা আপনার চিন্তাধারা পড়া এবং সবাইকে এটি পর্দায় দেখানোর বাস্তব পদক্ষেপ তৈরি করেছেন। অরেগন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের একটি দল এমন একটি সিস্টেম আবিষ্কার করেছেন, যেটি মস্তিষ্ক স্ক্যানের মাধ্যমে মানুষের চিন্তাধারা পড়তে পারবে। এবং মস্তিষ্কের চিন্তাকে মুখের মধ্যে পুর্নগঠন করতে পারবে।

ওই দলের স্নায়ুবিজ্ঞানী ব্রিস কুল জানান, আপনি শীঘ্রই প্রশংসনীয় ফলাফল দেখতে পাবেন। আমরা কারো স্মৃতি নিতে পারি যা সাধারণত অভ্যন্তরীণ এবং ব্যক্তিগত এবং এটি মস্তিষ্ক থেকে আলাদা করতে পারি বলে জানান কুল।

গবেষকরা ২৩ জন স্বেচ্ছাসেবক নির্বাচিত করেন এবং এক হাজার মানুষের মুখের এলোমেলো রঙিন ছবির একটি সেট তৈরি করেন। একটি এফএমআরআই মেশিনে ছবিগুলো লাগানো ছিল এবং স্বেচ্ছাসেবকদের সেগুলো দেখানো হলো। যা মস্তিষ্কের রক্ত প্রবাহে তাদের স্নায়বিক কার্যলাপ পরিমাপ করার জন্য যে সূক্ষ্ম পরিবর্তন তা শনাক্ত করে। এফএমআরআই মেশিনে একটি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রোগ্রাম লাগানো ছিল যেটি অংশগ্রহণকারীদের মস্তিষ্কের কার্যলাপ পড়তে পারে। বাস্তবে উন্মুক্ত প্রতিটি মুখের একটি গাণিতিক বিবরণ নেয়া হয়।

এই পরীক্ষাটি দুটি পর্যায়ে নেয়া হয়। অংশগ্রহণকারীদের প্রথম স্তর থেকে দ্বিতীয় স্তরে সম্পূর্ণ পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। মেশিনে প্রতিটি মুখে মস্তিষ্কে দুটি পৃথক অঞ্চল থেকে ক্রিয়া কলাপের ভিত্তিতে পুর্নগঠন করে পরিচালিত ছিল।

তাই এক সেট মানুষ অন্য সেট মানুষের চিন্তাভাবনা এক বিন্দুতে পড়তে পারে এই মেশিনের সাহায্যে। দলটি এখন আরো কঠিন বিষয়ের ওপর কাজ করছে যেখানে অংশগ্রহণকারীদের স্মৃতিতে ধরে রাখা বিষয় ব্যক্তির মুখে দেখতে কেমন লাগে তা নির্ণয় করতে পারবে। আপনি চিন্তা করতে পারেন, এই সুপার কাজটি করা এবং ফলাফল স্পষ্ট করা কতটা কঠিন! এই গবেষণাটি স্নায়ুবিজ্ঞান জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.