অনেক দিন পরে লিখতে বসেছি। নতুন বেশ কিছু গেম বের হয়েছে, এবং গেম খেলতেও শুরু করে দিয়েছি। তবে, আজকে যে গেমটি নিয়ে আপনাদের সামনে এসেছি, তা হচ্ছে, হোমফ্রন্ট (HomeFront). আমেরিকার মাটিতে অন্য দেশ এসে দখল করে নিচ্ছে, এবং একজন আমেরিকান হয়ে আপনি তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে যাচ্ছেন, এমন টা প্রায় বেশিরভাগ ফার্স্ট পারসন শুটিং গেমেই দেখা যায়। কিন্তু এ বছরের মার্চ মাসে বের হওয়া Kaos Studio র ডেভেলপ এবং THQ এর পাবলিকেশনের হোমফ্রন্ট গেমটি তে আপনি পাবেন এক অন্যরকম অভিজ্ঞতা।

4

হোমফ্রন্ট গেমটিতে তুলে ধরা হয়েছে, ২০২৭ সালের আমেরিকা কে। যেখানে কোরিয়া (সংযুক্ত উত্তর এবং দক্ষিন) তাদের নিউক্লিয়ার অস্ত্র নিয়ে আমেরিকা কে দখল করে নেয়। গেমটির গল্প লিখেছেন, জন মিলিউস (Apocalypse Now এর সহকারী লেখক) গেমটিতে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে, ২০২৭ সালে আমেরিকা হয়ে পড়েছে একটি দরিদ্র দেশের কাতারে, যেখানে তেলের দাম, ২০ ডলার (প্রতি গ্যালন) এবং বার্ড ফ্লু দেশের কয়েক মিলিওন মানুষ মেরে ফেলেছে। কিন্তু কোরিয়া তার দুই অংশ কে একত্রিত করে এক সুবিশাল ক্ষমতার অধিকারী।

3

গেমটির কাহিনী গড়ে উঠেছে রবার্ট জ্যাকব নামের একজন পাইলট কে নিয়ে। যিনি প্রাক্তন মেরিন হেলিকপ্টার পাইলট। তাকে যখন কোরিয়ান সেনা সদস্য রা ধরে নিয়ে যেতে থাকে তখন সেই বাস টিকে অ্যামবুশ করে আমেরিকান রেজিস্টেন্স ফাইটার দলটি। যে দলের সদস্য , কোনোর মরগান এবং রিয়ানা (আপনার বেশির ভাগ মিশনেই আপনি এদের সাথে খেলবেন), এবং তাকে নিয়ে যাওয়া হয়, একটি রেজিস্টেন্স হাইড আউট এ যার দায়িত্বে রেজিস্টেন্স লিডার বন কার্লসন আছে। বন তাকে নিযুক্ত করে একটি মিশনে, যার লক্ষ্য থাকে আমেরিকান মিলেটারির জন্য তেল উদ্ধার করে পৌঁছে দেয়া। এবং মূলত এটাই সম্পূর্ন গেমটি।

1

যদিও গেমটির প্রেক্ষাপট ২০২৭, তবে আপনি এখানে তেমন হাইটেক কোন অস্ত্রপাতি দেখতে পাবেন না। তবে কিছুই যে নেই তা কিন্তু নয়।

গেমটির শেষে আপনার জন্য একটি বিশেষ চমক কিন্তু অপেক্ষা করছে। খেলার মজা নষ্ট হবার ভয় আছে, তাই এ সম্পর্কে কিছুই আপনাদের আমি জানাচ্ছি না।

গেমটিতে আপনাকে বিভিন্ন ধরনের প্রচলিত অস্ত্র নিয়েই খেলতে হবে, মেশিনগান, সেমি এবং সেমি অটোমেটিক রাইফেল, স্নাইপার রাইফেল, রকেট লঞ্চার ইত্যাদি। আপনি সাথে করে, এক্সপ্লোসিভও নিতে পারবেন।

2

গেমটিকে আপনি সিঙ্গেল এবং মাল্টি প্লেয়ার মুডে খেলতে পারবেন।

ভালো দিকঃ

সিঙ্গেল প্লেয়ার মুড টি অসাধারন। চমৎকার গল্প। মারাত্বক গতি সম্পন্য একটি গেম। খেলার সময় আপনাকে বোর হতে হবে না।

খারাপ দিকঃ

খুবি ছোট একটি কাহিনী। মাত্র ৫ ঘন্টায় আপনি গেমটি শেষ করে ফেলতে পারবেন (যদিও আমার একটু বেশি সময় লেগেছিল)। গ্রাফিক্স খুব একটা সুবিধার নয়।

মিনিমান কম্পিউটার রিকয়ারমেন্টঃ

  • উইন্ডোজ এক্সপি, ভিস্তা, অথবা উইন্ডোজ ৭
  • ইন্টেল কোর টু ডুও ২.৪ গিগা হার্জ অথবা এএমডি এথলন এক্স২, ২.৮ গিগা হার্জ
  • ২ গিগাবাইট র‍্যাম।
  • শেডার মডেল ৩.০ কে সাপোর্ট করে এমন গ্রাফিক্স কার্ড এবং সাথে ২৫৬ মেগাবাইট মেমোরি।
  • এনভিদিয়া জিফোর্স ৭৯০০ জিএস বা এটিআই রেডিওন ১৯০০ এক্সটি
  • ১০ গিগাবাইট হার্ড ডিস্ক স্পেস।

শেষ কথাঃ

ভাল দিক এবং খারাপ দিক, সব গেমেরই থাকে, তবে আমার নিজস্ব মতামতের ভিত্তিতে আমি আপনাদের কে বলতে পারি যে, গেমটি যদিও খুবি ছোট, তবে একবার খেলতে বসলে, আপনি হতাশ হবেন না।

গেম রিভিউটি কেমন লাগলো আপনাদের জানাতে ভুলবেন না যেন।

sign3

comments

9 কমেন্টস

  1. হুম ভালোই লাগলো ……..নতুন নতুন গেম খেলতে ভালো লাগে……ধন্যবাদ রিভিউর জন্য

  2. ৫ ঘন্টার গেইমে ১০ গিগা স্পেস 😮 ফার্স্ট পারসন শুটার যদিও তেমন ভাল লাগে না। থার্ডপারসন শুটার আর এডভেঞ্চারই মজার। যাই হোক, রিয়াজ ভাইয়ের প্রত্যাবর্তনে ব্যাপক খুশি 😀

  3. রিয়াজ ভাই, আপনি কোথা থেকে গেম কিনেন?…আমি ঢাকার নিউমার্কেট, ইস্টার্ন প্লাজা, ফার্মগেট – প্রায় সব জায়গা থেকেই গেম কিনেছি। বেশিরভাগ সময়ই piracyর কারনে হয় একটা corrupt নয়তো incomplete একটা গেম এর শিকার হয়েছি। ফলে বাপের বহুত টাকা বানের জলে ভেসে গেছে। প্লিজ জানাবেন ভাই।
    …আপনি কি গেমগুলো কোন টরেন্ট ক্লায়েন্ট থেকে ডউনলোড করেন?

    • ভাই, কেনার সময় কোন কোম্পানির টা কিনছেন তা দেখে নেন। তবে আমি কোন দোকান থেকে কিনি না । নতুন একটি কোম্পানি হয়েছে। ETC নামের, আমি ওদের টা কিনি। সমস্যা হলে ওরাই পরিবর্তন করে দেয়।

  4. vai ami game ta download krte chai………………ami ekta game download krsilam……….bt ota namanor por product key chaisilo……..tar jonno game ta khela hoi nai…………!!!! kew ki amk game tar full version download krar link dite parben………??? thnx

  5. Coming Soon HomeFront 2

    after shuting down Kaos Studio, The one of best game devloper Crytek (makers of Crysis)
    taken over the company. and announced that Homefront 2 is on the way sometime in march 2013-2014.

    the sequel to 2011’s Homefront and will be using CryEngine 3

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Time limit is exhausted. Please reload the CAPTCHA.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.